নতুন বছরের শুরুতেই Xiaomi-র ধামাকা এন্ট্রি, মাত্র ৫ মিনিটে বিক্রি হল সাড়ে তিন লক্ষ Mi 11

নতুন বছরের শুরুতেই Xiaomi-র ধামাকা এন্ট্রি, মাত্র ৫ মিনিটে বিক্রি হল সাড়ে তিন লক্ষ Mi 11

জেনে নিন Xiaomi Mi 11-এর স্পেসিফিকেশন ও দাম

জেনে নিন Xiaomi Mi 11-এর স্পেসিফিকেশন ও দাম

  • Share this:

    Xiaomi Mi 11: ২৯ ডিসেম্বর চিনে লঞ্চ হয়েছিল শাওমির Mi 11 স্মার্টফোন। ২০২১ এর প্রথম দিন ছিল এই ফোনটির প্রথম সেল। আর প্রথম দিনের সেলেই রেকর্ড ব্রেকিং সাড়া পেল মি ১১ ফোনটি। কোম্পানির অফিশিয়াল ডেটা অনুযায়ী, সেল শুরু হওয়ার ৫ মিনিটের মধ্যেই Mi 11 এর প্রায় ৩,৫০,০০০ স্মার্টফোন বিক্রি হয়েছে।

    শাওমি জানিয়েছে যে, প্রথম সেলে ১৩ মিনিটেই মি ১১ আউট অফ স্টক হয়ে যায়। এছাড়া সেল শুরুর প্রথম ৫ মিনিটের মধ্যে তারা ১.৫ বিলিয়ন ইউয়ান (প্রায় ১৬৭৮ কোটি টাকার অধিক) এর স্মার্টফোন বিক্রি করেছে। উল্লেখযোগ্য, এই ফোনের দাম শুরু হয়েছে ৩,৯৯৯ ইউয়ান ( প্রায় ৪৪,৯৯০ টাকা) থেকে। এতে গ্রহাকরা পেয়ে যাবেন ৮জিবি র‍্যাম আর ১২৮জিবি স্টোরেজ ভেরিয়েন্টটি। আবার টপ ভ্যারিয়েন্ট ১২জিবি র‍্যাম + ২৫৬জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজের দাম ৪,৬৯৯ ইউয়ান (প্রায় ৫২,৮৬৬ টাকা)। আর ৮জিবি + ২৫৬জিবি স্টোরেজ ভ্যারিয়েন্টের দাম ৪,২৯৯ ইউয়ান (প্রায় ৪৮,৩৬৬ টাকা)।

    Xiaomi Mi 11 এর স্পেসিফিকেশন : শাওমি এমআই ১১ ফোনে ৬.৮১ ইঞ্চি ফুল WQHD অ্যামোলেড কার্ভড ডিসপ্লে রয়েছে যার পিক্সেল রেজোলিউশন ৩২০০x১৪৪০। এর রিফ্রেশ রেট ১২০ হার্টজ, সর্বোচ্চ ব্রাইটনেস ৫১৫ পিপিআই। ডিসপ্লের প্রোটেকশানের জন্য দেওয়া হয়েছে কর্নিং গোরিলা গ্লাস ভিক্টাস। কোম্পানি দাবি করেছে যে, স্ক্রিন অ্যানালিসিস ফার্ম DislplayMate ফোনটির স্ক্রিনকে A+ রেটিং দিয়েছে। Mi 11-এর ডিসপ্লে DCI-P3 কালার গামুট, HDR10, এবং Motion Estimation, Motion Compensation (MEMC) সাপোর্ট করবে।

    Xiaomi Mi 11 এর ক্যামেরা: ছবি তোলার জন্য ফোনের পিছনে আছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ। যার প্রাইমারি ক্যামেরা হিসাবে রয়েছে এফ/১.৮ অ্যাপারচার-সহ ১০৮ মেগাপিক্সেলের সেন্সর। অন্য দুটি ক্যামেরা হল ১২৩ ডিগ্রী ফিল্ড অফ ভিউযুক্ত এফ/২.৪ অ্যাপারচার-সহ ১৩ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল লেন্স, আর এফ/২.৪ অ্যাপারচার-সহ ৫ মেগাপিক্সেলের ম্যাক্রো ক্যামেরা। ফোনের ডিসপ্লে ডিজাইন পাঞ্চ হোল, যার মধ্যে এফ/২.৪ অ্যাপারচার-সহ ২০ মেগাপিক্সেলের সেলফি ক্যামেরা দেওয়া হয়েছে।

    Mi 11 ফোনে ব্যবহার করা হয়েছে কোয়ালকমের লেটেস্ট স্ন্যাপড্রাগন ৮৮৮ প্রসেসর। সঙ্গে রয়েছে আছে ১২ জিবি পর্যন্ত র‌্যাম ও ২৫৬ জিবি পর্যন্ত ইন্টারনাল স্টোরেজ। সিকিউরিটির জন্য এতে ইন ডিসপ্লে অপটিক্যাল ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর আছে যা হার্ট রেট মনিটর হিসেবেও কাজ করবে।

    পাওয়ারের জন্য এই ফোনে ৪,৬০০ এমএএইচ ব্যাটারি দেওয়া হয়েছে, যা Mi TurboCharge ৫৫ ওয়াট ওয়্যারড ফাস্ট চার্জিং এবং ৫০ ওয়াট ওয়্যারলেস চার্জিং সাপোর্ট করবে। এতে আবার ১০ ওয়াট ওয়্যারলেস রিভার্স চার্জিং সাপোর্টও রয়েছে। এছাড়া এটি ক্যুইক চার্জ ৪+, ক্যুইক চার্জ ৩+, এবং পাওয়ার ডেলিভারি ৩.০ সাপোর্ট করবে।

    এছাড়া ফোনের অন্যান্য ফিচারের মধ্যে আছে ডুয়াল 5G ন্যানো-সিম সাপোর্ট, R ব্লাস্টার, ওয়াইফাই ৬, ব্লুটুথ ৫.২, NFC। ফোনটি চলবে অ্যান্ড্রয়েড ১১ বেসড এমআইইউআই ১২ ইন্টারফেসে। দুর্দান্ত সাউন্ডের জন্য মি ১১ ফোনে আছে হারমান কার্ডন স্টিরিও স্পিকার।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published: