• Home
  • »
  • News
  • »
  • technology
  • »
  • যিশুর জন্মের সময়ে ঘটা মহাজাগতিক ঘটনা ফের ঘটছে এই বছর, কী ভাবে তা দেখবেন জেনে নিন

যিশুর জন্মের সময়ে ঘটা মহাজাগতিক ঘটনা ফের ঘটছে এই বছর, কী ভাবে তা দেখবেন জেনে নিন

সৌরমণ্ডলের এই দুই বৃহত্তম গ্রহ বৃহস্পতি ও শনি এবার একে অপরের খুব কাছাকাছি আসতে চলেছে

সৌরমণ্ডলের এই দুই বৃহত্তম গ্রহ বৃহস্পতি ও শনি এবার একে অপরের খুব কাছাকাছি আসতে চলেছে

সৌরমণ্ডলের এই দুই বৃহত্তম গ্রহ বৃহস্পতি ও শনি এবার একে অপরের খুব কাছাকাছি আসতে চলেছে

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: বড়দিনের আকাশে এক দারুণ মহাজাগতিক দৃশ্যের সাক্ষী হতে চলেছে পৃথিবী। আগামী ১৬ থেকে ২৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত সৌরমণ্ডলের এই দুই বৃহত্তম গ্রহ বৃহস্পতি ও শনি এবার একে অপরের খুব কাছাকাছি আসতে চলেছে। এ ক্ষেত্রে ২১ ডিসেম্বর সব থেকে কাছে থাকবে শনি ও বৃহস্পতি। যে দৃশ্য সহজেই উপভোগ করা যেতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, কয়েকশো বছরে প্রথম এই রকম ঘটনার সাক্ষী হতে চলেছে পৃথিবী। গ্রহদের এই কাছে আসার ঘটনাকে বলা হচ্ছে ক্রিসমাস স্টার।

জানা গিয়েছে, এই মাসের ১৬ তারিখ থেকে ২৫ তারিখ পর্যন্ত অর্থাৎ পরবর্তী দশটি সন্ধ্যায় এই গ্রহদু'টি একে অন্যের কাছাকাছি থাকবে। তবে, ২১ ডিসেম্বর সব থেকে কাছে থাকবে শনি ও বৃহস্পতি। ২১শে ডিসেম্বর সূর্যাস্তের পরই রাতের আকাশে পরিষ্কার দেখা যাবে এই বিরল দৃশ্য। এ ক্ষেত্রে ২১ ডিসেম্বরের পর থেকে ধীরে ধীরে আলাদা হতে শুরু করবে শনি ও বৃহস্পতি। এক সময়ে অর্থাৎ ২০২১ সালের শুরুতে সৌরমণ্ডলের অতলে নিজেদের মতো করে অদৃশ্য হয়ে যাবে গ্রহ দু'টি। শনি থেকে দূরে সরে গিয়ে আবার প্রকৃতির নিয়মে সূর্যকে প্রদক্ষিণ শুরু করবে বৃহস্পতি। একই ঘটনা ঘটবে শনির ক্ষেত্রেও। তবে আবার এই দৃশ্য দেখা যেতে পারে। মহাকাশ বিজ্ঞানীদের অনুমান, সব ঠিক থাকলে ফের ২০৪০ সালের ৩১ অক্টোবর এই গ্রহদু'টিকে কাছে আসতে দেখা যাবে।

কী ভাবে দেখা যাবে এই মহাজাগতিক দৃশ্য?

যেহেতু, ২১ ডিসেম্বর এরা সব চেয়ে কাছে আসবে, তাই দূরবীক্ষণ যন্ত্র দিয়ে দেখলে বৃহস্পতির উপগ্রহের পাশাপাশি শনির বলয়ও প্রত্যক্ষ করা যাবে। এ ক্ষেত্রে যাঁরা নিরক্ষরেখা বরাবর দেশের বাসিন্দা, তাঁরা সব চেয়ে ভালো করে বিষয়টি উপভোগ করতে পারবেন। বিখ্যাত জ্যোতির্বিদ জেফরি হান্টের (Jeffrey Hunt) কথায়, ২১ তারিখ খালি চোখে দেখা যাবে এই দৃশ্য। এ দিন সূর্যাস্তের পর দক্ষিণ আকাশের দিকে চোখ রাখতে হবে। এ ক্ষেত্রে বাইনোকুলার বা ছোট টেলিস্কোপেই কাজ চলে যাবে। মহাকাশপ্রেমীরা এই দৃশ্যকে ক্যামেরাবন্দীও করতে পারেন। একটি ট্রাইপড মাউন্টেড ক্যামেরা বসিয়ে সহজেই ছবি নেওয়া যেতে পারে।

মহাকাশ বিশেষজ্ঞদের মতে, গ্রহদের এ ভাবে কাছে আসার ঘটনাকে বলা হয় কনজানকশন (Conjunction Of Planets )। খ্রিস্টধর্ম মতে, একে ক্রিসমাস স্টারও (Christmas star) বলা হয়। সতেরো শতাব্দীতে জার্মান জ্যোতির্বিদ জোহানস কেপলারও (Johannes Kepler) এ নিয়ে সবিস্তারে ব্যাখ্যা দিয়েছিলেন। জ্যোতির্বিদ ও মহাকাশ গবেষকদের মতে, প্রায় ৮০০ বছর আগেও এই ঘটনার সাক্ষী হয়েছিল পৃথিবী। যদি খুব কাছাকাছি না-ও আসে, তবুও একই রেখায় দেখা যাবে সৌরজগতের দুই বড় গ্রহ বৃহস্পতি ও শনিকে।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: