প্রযুক্তি

corona virus btn
corona virus btn
Loading

জানুয়ারিতে প্রায় ১.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ছাড় Jeep Compass SUV গাড়িতে

জানুয়ারিতে প্রায় ১.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত ছাড় Jeep Compass SUV গাড়িতে

ইতিমধ্যেই Jeep Compass Facelift লঞ্চ নিয়ে ক্রেতাদের মধ্যে দারুণ কৌতূহল।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ইতিমধ্যেই Jeep Compass Facelift লঞ্চ নিয়ে ক্রেতাদের মধ্যে দারুণ কৌতূহল। এর মাঝে নতুন বছরের প্রথম মাসে প্রিমিয়াম Compass SUV মডেলে প্রায় ১.৫ লক্ষ টাকা পর্যন্ত আকর্ষণীয় ছাড় দিচ্ছে Jeep India। তবে এই মাসের শেষ পর্যন্ত বৈধ থাকছে এই অফার। জেনে নেওয়া যাক বিশদে। এক্ষেত্রে Jeep Compass SUV-এর ক্রেতারা ক্যাশ বেনিফিটের পাশাপাশি EMI স্কিমেও একাধিক ডিসকাউন্ট পাচ্ছেন। গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, বর্তমানে মাসিক ২২,৮২৩ টাকার EMI-তে এই SUV মডেল কিনতে পারবেন গ্রাহকরা। এর সঙ্গে একটি হাইব্রিড EMI অপশন রয়েছে। এক্ষেত্রে মেয়াদ বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে অর্থের পরিমাণও বাড়বে। এছাড়াও EMI-তে আরও একটি বিশেষ ছাড় দেওয়া হচ্ছে। এক্ষেত্রে পর পর তিন মাসের জন্য প্রায় ৫০ শতাংশ পর্যন্ত কমতে পারে EMI-এর পরিমাণ। আর এই তিনটি মাস নিজেদের পছন্দমতো বেছে নিতে পারেন ক্রেতারা। উল্লেখ্য, এই আমেরিকান SUV ব্র্যান্ড মহিলা-ক্রেতাদের জন্যও বেশ কিছু ছাড় দিচ্ছে। এক্ষেত্রে নিকটবর্তী Jeep ডিলারশিপে গিয়ে কথা বলতে হবে। প্রয়োজনে অফিসিয়াল ওয়েবসাইট দেখে নেওয়া যেতে পারে। অটো-এক্সপার্টদের মতে, নতুন মডেল আসতে চলেছে। তাই পুরনো স্টক খালি করতেই নানা রকমের অফার নিয়ে হাজির হয়েছে সংশ্লিষ্ট গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থা।

প্রসঙ্গত, মাস খানেক আগেই প্রকাশ্যে আসে Jeep Compass-এর Facelift ভার্সনের লুক। এক্ষেত্রে পাঁচটি ভার্সান অর্থাৎ স্পোর্টস প্লাস (Sport Plus), লংগিটিউড অপশন (Longitude Option), লিমিটেড প্লাস (Limited Plus), নাইট ইগল (Night Eagle), ট্রেলহক (Trailhawk) ট্রিমে পাওয়া যাবে এই গাড়ি। সব ঠিক থাকলে পরের মাসেই বাজারে আসতে পারে গাড়িটি। গাড়িতে দুই ধরনের ইঞ্জিন থাকছে। এগুলি হল ১.৪ - লিটার মাল্টি এয়ার টার্বো পেট্রোল ও ২.০ -লিটার মাল্টি জেট ডিজেল ইঞ্জিন। এক্ষেত্রে  ১.৪ - লিটার মাল্টি এয়ার টার্বো পেট্রোল ইঞ্জিন ১৬০ bhp ও ২৫০ nm টর্ক পর্যন্ত ক্ষমতা সরবরাহ করতে পারে। আর ২.০ -লিটার মাল্টি জেট ডিজেল ইঞ্জিন ১৭০ bhp ও ৩৫০ nm টর্ক পর্যন্ত ক্ষমতা সরবরাহ করতে পারে। ডিজেল ভ্যারিয়েন্টে গাড়িতে থাকছে সিক্স স্পিড ম্যানুয়াল গিয়ার বক্স ও  নাইন স্পিড টর্ক কনভার্টার অটোমেটিক গিয়ার বক্স। অন্য দিকে, পেট্রোল ভ্যারিয়েন্টে থাকছে সিক্স স্পিড ম্যানুয়াল গিয়ার বক্স ও সেভেন স্পিড টুইন ক্লাচ অটোমেটিক ট্রান্সমিশন। ৬০টির বেশি সেফটি ফিচার রয়েছে এই গাড়িতে। থাকছে ছ'টি এয়ারব্যাগ, অ্যান্টি-লক ব্রেকিং সিস্টেম। এছাড়াও রয়েছে রেনি ব্রেক সাপোর্ট, ইলেকট্রিক স্টেবিলিটি প্রোগ্রাম, প্যানিক ব্রেক অ্যাসিস্ট-সহ একাধিক ফিচার। এগুলির সঙ্গে টেরেন মোড, হিল অ্যাসিস্ট, হিল ডিসেন্ট কন্ট্রোল ও ISOFIX চাইল্ড সিট মাউন্টের ব্যবস্থাও রয়েছে। গাড়ির হেড ল্যাম্প, সেভেন স্ল্যাট গ্রিল লাইন, ফ্রন্ট ও রেয়ার বাম্পার যথাযথ। ১৮ ইঞ্চি অ্যালয় হুইলও যথেষ্ট আকর্ষণীয়।

Published by: Akash Misra
First published: January 13, 2021, 9:43 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर