প্রযুক্তি

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কেন কিনবেন দেশের তৈরি সেরা ইলেকট্রিক ভেইকেল Tata Nexon EV? দেখে নিন এক নজরে

কেন কিনবেন দেশের তৈরি সেরা ইলেকট্রিক ভেইকেল Tata Nexon EV? দেখে নিন এক নজরে

কেন কিনবেন Tata Nexon EV, জেনে নিন বিস্তারিত

  • Share this:

Tata Nexon EV: ইলেকট্রি-মোবিলিটি ও ইলেকট্রিক SUV তৈরির ক্ষেত্রে একের পর পদক্ষেপ করে চলেছে Tata Motors। এর আগে এই গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থার তৈরি Tigor EV ক্রেতাদের প্রশংসা কুড়িয়েছিল। এ বার চর্চার বিষয় সদ্য লঞ্চ হওয়া Tata Nexon EV। অটো-এক্সপার্টদের মতে, এ পর্যন্ত দেশে তৈরি সেরা ইলেকট্রিক ভেহিকল এটি। কিন্তু কেন সেরা এটি? কেন নির্বাচন করবেন এই গাড়িটি? বিস্তারিত জেনে নিন।

১. আকর্ষণীয় ফিচার - প্রথমবার দেশের তৈরি ইলেকট্রিক SUV হল Tata Nexon EV। এই গাড়িতে থাকছে পাওয়ারড সানরুফ, লেদারেট সিট, অটো হেডল্যাম্প। এ ক্ষেত্রে অটো হেডল্যাম্পে থাকছে ফলো-মি-হোম ফিচার। গাড়িতে ইনফোটেনমেন্টের ব্যবস্থাও রয়েছে। থাকছে ৭ ইঞ্চি ডিসপ্লে ও ৭ ইঞ্চি ডিজিটাল ইনস্ট্রুমেন্ট ক্লাস্টার।

২. গাড়ির দাম - এই গাড়ির দাম ১৩.৯৯-১৬.২৫ লক্ষ টাকার মধ্যে। এ দিক থেকেও একই সেগমেন্টের অন্যান্য গাড়ির থেকে এগিয়ে Tata Nexon EV।

৩. নিরাপত্তা - এই ইলেকট্রিক SUV-এর নিরাপত্তা নিয়ে নিশ্চিন্ত থাকুন। কারণ গাড়িটিতে থাকছে ডুয়াল এয়ারব্যাগ, ABS-EBD সিস্টেম, কর্ণার স্টেবিলিটি কন্ট্রোল। গাড়িতে থাকছে IP67 কমপ্লায়েন্ট ব্যাটারি। এর জেরে বন্যাবিধ্বস্ত ও খারাপ রাস্তাতেও ভালো ভাবে চলতে পারে গাড়ি। গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থার তরফে জানানো হয়েছে, দেশের নানা দুর্গম এলাকায় প্রায় ১০ লক্ষ কিমি রাস্তায় পরীক্ষামূলক ভাবে চালানো হয়েছে Tata Nexon EV।

৪. চার্জিং এক্সপিরিয়েন্স - ফাস্ট চার্জিংয়ের সুবিধা দিচ্ছে Nexon EV। গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থার দাবি, এ ক্ষেত্রে CCS2 ফাস্ট চার্জারের সাহায্যে এক ঘণ্টায় ৮০ শতাংশ পর্যন্ত চার্জ হতে পারে ব্যাটারি। এ ছাড়াও ২৪x৭ ইমারজেন্সি চার্জিং সাপোর্টের পাশাপাশি একটি ফ্রি হোম চার্জার ইনস্টলেশন পাচ্ছেন ক্রেতারা। Tata Power-এর সঙ্গে পার্টনারশিপের সূত্রে দেশের সব চেয়ে বড় পাবলিক চার্জিং নেটওয়ার্কের সুবিধা দিচ্ছে Tata Motors। একই সঙ্গে ব্যাটারি প্যাকে ৮ বছর/ ১.৬০ লক্ষ কিমি ওয়ারেন্টিও দিচ্ছে গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থা।

৫. ৩৬০ ডিগ্রি সলিউশন - Tata uniEVerse নামে একটি ই-মোবিলিটি ইকোসিস্টেম তৈরি করতে Tata Power, Tata Chemicals, Tata Autocomp, Tata Motors Finance ও Croma-র সঙ্গে কাজ করছে Tata Motors। এর জেরে চার্জিং সলিউশন, রিটেল এক্সপিরিয়েন্স, ফিনান্স অপশনসহ একাধিক ই-মোবিলিটি পরিষেবা পাবেন গ্রাহক তথা ক্রেতারা।

প্রসঙ্গত, লিথিয়াম-আয়ন ব্যাটারি সেল তৈরি করার জন্য Tata Chemicals-এর সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধছে Tata Motors। এ ছাড়াও ব্যাটারি প্যাক অ্যাসেম্বলির লোকালাইজেশনের জন্য Tata Autocomp-এর সঙ্গে কাজ করছে এই গাড়িপ্রস্তুতকারী সংস্থা। শোনা যাচ্ছে Tata Nexon EV-র জন্য নতুন ফিনান্স অপশনও দেওয়া হচ্ছে Tata Motors-এর তরফে। তাই ভালো করে সব কিছু খতিয়ে দেখুন। সুযোগ বুঝে কিনে ফেলুন Tata Nexon EV।

Published by: Ananya Chakraborty
First published: November 16, 2020, 4:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर