ছাত্রছাত্রীদের জন্য সুখবর, শিক্ষার্থীদের জন্য ক্যাম্পাস সুবিধা চালু করছে Facebook

ছাত্রছাত্রীদের জন্য সুখবর, শিক্ষার্থীদের জন্য ক্যাম্পাস সুবিধা চালু করছে Facebook
ফেসবুক তার শুরুর দিকের সময়ে যেন ফিরে গিয়েছে. শুধু কলেজ পডুয়াদের সোশ্যাল নেটওয়ার্ক, যেমনটা আগে ছিল

ফেসবুক তার শুরুর দিকের সময়ে যেন ফিরে গিয়েছে. শুধু কলেজ পডুয়াদের সোশ্যাল নেটওয়ার্ক, যেমনটা আগে ছিল

  • Share this:

    ফের নতুন একটি ফিচার আনার ঘোষণা করল সোশ্যাল মিডিয়া জায়ান্ট ফেসবুক (Facebook)। শিক্ষার্থীদের জন্য ‘ক্যাম্পাস’ নামে নতুন একটি সেকশন চালু করতে চলেছে ফেসবুক। ঘোষণা অনুযায়ী, এটি ব্যবহার করে কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষার্থীরা নিজেদের মধ্যে যোগাযোগ ও সংযোগ স্থাপণে মূল ফেসবুকের বাইরে সম্পূর্ণ আলাদা একটি প্রোফাইল তৈরি করতে পারবেন। যেখানে ব্যবহার করতে হবে কলেজ ইমেইল অ্যাড্রেস ও স্নাতকের শিক্ষাবর্ষ। যদিও মূল ফেসবুক অ্যাকাউন্ট থেকেই প্রবেশ করা যাবে ফেসবুক ক্যাম্পাসে, যা অনেকটা ফেসবুক ওয়াচের মতোই।

    তবে এখানে তাদের প্রকৃত ফেসবুক অ্যাকাউন্টের তথ্য ও কাভার ফটো ব্যবহার করার সুযোগ থাকবে। ক্যাম্পাস প্রোফাইলে বাড়তি তথ্য যুক্ত করার বা সরিয়ে ফেলার সুযোগও থাকবে। তবে যত বেশি তথ্য দেওয়া হবে, তত সহপাঠী ও কমিউনিটির সঙ্গে যুক্ত হওয়ার সুযোগ বেশি হবে।

    এখানে শিক্ষার্থীরা পরস্পরের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারবে। নিউজ, গ্রুপ, ইভেন্ট, গ্রুপ চ্যাটরুম পৃথক হবে। এমনকি তাদের চ্যাটরুমের নাম হবে ‘ক্যাম্পাস চ্যাট’। তারা ক্যাম্পাস ডিরেক্টরি থেকে অন্য শিক্ষার্থীদের বন্ধুত্বের অনুরোধ জানাতে পারবে। এখানে যেসব নিউজ ফিড থাকবে, তা কেবল ক্যাম্পাসের বন্ধুদের ফিড হবে। এখানকার চ্যাট হবে রিয়েল টাইম চ্যাটরুম। নিজেরা বিভিন্ন বন্ধুকে নিয়ে নিজস্ব চ্যাটরুম তৈরি করতে পারবে।


    এই মুহূর্তে আমেরিকার ৩০টি বিশ্ববিদ্যালয়ে এই ক্যাম্পাস ফিচারটি ব্যবহার করা যাচ্ছে। যার মধ্যে রয়েছে - জনস হপকিন্স বিশ্ববিদ্যালয়, নর্থ ওয়েস্টার্ন বিশ্ববিদ্যালয়, লুইসভিল, ভাসর ও ভার্জিনিয়া টেক বিশ্ববিদ্যালয়।

    বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারির কারণে প্রায় সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ থাকায় শিক্ষা কার্যক্রম চলছে অনলাইনে। তাই শিক্ষার্থীদের মধ্যে যোগাযোগ আরও সহজ করার পাশাপাশি ক্যাম্পাস ও শিক্ষার্থীদের বিষয়ে যেকোনো ধরনের তথ্য আদান প্রদানের লক্ষ্যেই মূলত ‘ফেসবুক ক্যাম্পাস’ ফিচারটি চালুর উদ্যোগ নেয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে ফেসবুক কর্তৃপক্ষ।

    ২০০৪ সালের ৪ ফেব্রুয়ারি চালু হয়েছিল এ সময়ের সবচেয়ে বেশি ব্যবহৃত সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ফেসবুক। ফেসবুক আবার তার সেই শিকড়ে ফিরতে যাচ্ছে।

    Published by:Ananya Chakraborty
    First published:

    লেটেস্ট খবর