প্রযুক্তি

corona virus btn
corona virus btn
Loading

কেন কিনবেন iPhone 12 Pro ? আইফোনের অন্য মডেলের সঙ্গে পার্থক্যগুলি জেনে নিন

কেন কিনবেন iPhone 12 Pro ? আইফোনের অন্য মডেলের সঙ্গে পার্থক্যগুলি জেনে নিন

জেনে নিন কেন কিনবেন iPhone 12 Pro,

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: অক্টোবরে দেশের বাজারে এসেছে iPhone 12। তার পর থেকেই এই ফোন নিয়ে মাতামাতি তুঙ্গে। iPhone 12-এর সঙ্গে বাজারে বিক্রি হচ্ছে iPhone 12 Pro, iPhone 12 Mini, iPhone 12 Pro Max। এগুলির দাম নিয়েও নানা জল্পনা রয়েছে। কিন্তু এর মাঝেই iPhone 12 Pro নিয়ে একাধিক বিতর্ক দানা বেঁধেছে। কেউ বলছেন iPhone-এর আগের মডেলের থেকে তেমন কোনও পার্থক্য নেই এই ফোনে। অযথাই বেশি দামে বিক্রি হচ্ছে। কেউ বলেছেন Apple iPhone 12 Pro খানিকটা Apple iPhone 11 Pro-র মতো। যদি আপনি এই বিষয়গুলিকে গুরুত্ব দিচ্ছেন, তা হলে ভুল করছেন। এই সবের মাঝেই অনেক সূক্ষ্ম, কিন্তু গুরুত্বপূর্ণ পার্থক্য রয়েছে। এই পার্থক্যগুলিই বিবেচনা করুন। ভাবুন কেন কিনবেন iPhone 12 Pro।

দিন দিন iPhone ডিজাইন ল্যাঙ্গোয়েজে কিন্তু বিস্তর পরিবর্তন এসেছে। এর আগে বড়সড় পরিবর্তন এসেছিল iPhone X-এর হাত ধরে। তার পর iPhone XS, iPhone XR ও iPhone 11 সিরিজেও কম-বেশি একই রকম ডিজাইন দেখা গিয়েছে। তবে এ বারের iPhone 12 pro-তে ডিজাইনে বেশ পরিবর্তন এসেছে। এটি ঠিক iPhone 11 Pro আর iPhone 12 Pro-র রেজোলিউশনে পার্থক্য রয়েছে। আগের রেজোলিউশন ছিল ২৪৩৬ x ১১২৫। এ বার তা ২৫৩২x ১১৭০। পার্থক্য মিলবে HDR কনটেন্টেও।

এ বার রিফ্রেশ রেটের কথা ভুলে নতুন MagSafe charger টুলে ডুব দেবেন ব্যবহারকারীরা। এই ম্যাগনেট বেসড ক্লিকটি সিস্টেম বেশ আকর্ষণীয়। চার্জিংয়ের ক্ষেত্রেও একাধিক আপগ্রেডেশন দেখা গিয়েছে। তবে এর কিছু সীমাবদ্ধতা রয়েছে। যেমন ওয়্যার বেশি বড় নয়। চার্জিং কেবলও নন-রিমোভেবল। Apple A13 Bionic chip-এর পারফরম্যান্স নিয়ে আলোচনার দিন শেষ। কারণ এ বার ৫ nm চিপের উপর তৈরি করা হয়েছে A14 Bionic। যা মেশিন লার্নিং টাস্ককে বাড়িয়ে দিয়েছে। এ ছাড়া ৬ GB ব়্যাম থাকছে ফোনে। তাই A14 Bionic-এর কম্পিউটিং পাওয়ারকে ব্যবহার করতে পারবেন iPhone 12 Pro ব্যবহারকারীরা।

ক্যামেরা পারফরম্যান্সের ক্ষেত্রেও নানা পরিবর্তন এসেছে। iPhone 12 Pro Max-এর মতো iPhone 12 Pro-তে থাকছে ট্রিপল ক্যামেরা সেটআপ। তবে এখানেও কিছু সূক্ষ্ম পার্থক্য রয়েছে। আগের মডেলগুলির তুলনায় নানা আপগ্রেড এসেছে ক্যামেরা পারফরম্যান্সে। iPhone 12 Pro ফোনের প্রতিটি ক্যামেরায় থাকছে নাইট মোড। এর আপডেটেড অপটিক্যাল ইমেজ স্টেবিলাইজেশনও অত্যন্ত আধুনিক প্রযুক্তি নির্ভর। তাই ছবি ব্লার হওয়া বা নড়ে গিয়ে নষ্ট হয়ে যাওয়ার প্রবণতা অনেক কম। অটোফোকাস স্পিডও বেড়েছে। নতুন অ্যালগরিদম ছবি ও ব্যাকগ্রাউন্ডের মধ্যে দ্রুত তফাৎ করতে পারে। iPhone 12 Pro-তে নতুন স্মার্ট HDR 3-এর কাজও অত্যন্ত উল্লেখযোগ্য। শোনা যাচ্ছে, বছরের শেষের দিকে একটি ProRAW মোড যুক্ত হতে পারে iPhone 12 Pro-তে। এ ক্ষেত্রে RAW ইমেজ এডিটিংয়ের বিষয়টি আরও আকর্ষণীয় হয়ে উঠবে।

সব মিলিয়ে বলা যায়, নানা ক্ষেত্রে আপগ্রেডেশন এসেছে iPhone 12 Pro-তে। ফটোগ্রাফি ও ক্যামেরা আসপেক্টে বেশ কয়েকটি পরিবর্তন এসেছে। তা সে ডলবি ভিশন হোক বা লাইডার। 5G নেটওয়ার্কও একটি বড় বিষয়। HDR ভিডিও রেকর্ডিংয়ের ক্ষেত্রেও নানা পরিবর্তন এসেছে। তাই ভালো করে প্রতিটি বিষয়গুলির মধ্যে তুলনা করে দেখে নিন। নিজেই বিবেচনা করুন। তার পর কিনে নিন আপনার পছন্দের মডেল।

Published by: Ananya Chakraborty
First published: November 4, 2020, 6:53 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर