• Home
  • »
  • News
  • »
  • technology
  • »
  • Instagram-এর সিইও-র সঙ্গে আমার ‘আলাদা’ সম্পর্ক ! লিখতেই নিষিদ্ধ হলেন নীল ছবির অভিনেত্রী

Instagram-এর সিইও-র সঙ্গে আমার ‘আলাদা’ সম্পর্ক ! লিখতেই নিষিদ্ধ হলেন নীল ছবির অভিনেত্রী

Instagram-এর CEO-র-র বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগও তোলেন আমেরিকার অ্যাডাল্ট ফিল্ম স্টার Kendra Sunderland

Instagram-এর CEO-র-র বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগও তোলেন আমেরিকার অ্যাডাল্ট ফিল্ম স্টার Kendra Sunderland

Instagram-এর CEO-র-র বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগও তোলেন আমেরিকার অ্যাডাল্ট ফিল্ম স্টার Kendra Sunderland

  • Share this:

Instagram-এ লাগাতার নগ্ন ছবি পোস্ট। স্টোরিও নগ্ন ছবিতে ভরা। তাতে বার বার লেখা Instagram-এর nudity policies ভঙ্গন করেছেন তিনি। তবুও তাঁর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করছে না সংস্থা। এ ক্ষেত্রে Instagram CEO-র বিরুদ্ধে পক্ষপাতের অভিযোগও তোলেন আমেরিকার অ্যাডাল্ট ফিল্ম স্টার Kendra Sunderland। অবশেষে তাঁর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করল সংস্থা। ব্যান করে দেওয়া হল তাঁর Instagram অ্যাকাউন্ট।

বেশ কিছু সপ্তাহ আগে নিজের একটি টপলেস ছবি শেয়ার করেন এই ২৫ বছর বয়সী অভিনেত্রী। সেসময় তাঁর ছবি Instagram-এ পোস্ট হয়ে যায়। তাঁর বক্তব্য সেসময় তিনি Instagram-এর nudity policies ভেঙেছিলেন কিন্তু তাঁর বিরুদ্ধে সংস্থা কোনও পদক্ষেপ করেনি। এরপর তিনি আবার বুধবার পর পর একাধিক নগ্ন ছবি স্টোরিতে শেয়ার করেন। সেখানেও তিনি লেখেন আবারও Instagram-এর nudity policy ভেঙে তিনি ছবি শেয়ার করলেন কিন্তু তাঁর বিরুদ্ধে কোনও ব্যবস্থা নিল না সংস্থা।

একটি ছবিতে দেখা যায় তাকে sex toy-এর সঙ্গে, একটি ছবিতে তাঁর নগ্ন লুক। কিন্তু শুধু ছবি পোস্ট করে বা সংস্থার বিরুদ্ধে বুড়ো আঙুল দেখিয়ে নিয়ম ভাঙার অভিযোগ তুলেই থামেননি তিনি। অভিনেত্রী আবার জোকস হিসেবে লেখেন তিনি Instagram-এর CEO Adam Mosseri-র সঙ্গে যৌনক্রিয়া করেছেন, তাই তাঁর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ করছে না সংস্থা।

তাঁর এই পোস্টের পরই এই নিয়ে নানা কথা শুরু হয়। অবশেষে এই ঘটনার পরের দিন অর্থাৎ বৃহস্পতিবার তাঁর অ্য়াকাউন্ট ব্যান করে দেয় Instagram।

DailyMail-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, এ ক্ষেত্রে Kendra-র সঙ্গে Adam-এর সঙ্গে যোগসূত্রের কথা অস্বীকার করেছে সংস্থা। কোনও পক্ষপাতের কাজ করা হয়নি।

এদিকে এ বিষয়ে Daily Beast-কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে Kendra জানিয়েছেন, তিনি ঠিক বুঝতে পারেননি তাঁকে কোন কারণে ব্যান করা হয়। CEO-র বিরুদ্ধে অভিযোগ আনার জন্য বা অ্যাডাল্ট কনটেন্ট (Adult content) পোস্টের জন্য।

তিনি আরও জানান, Instagram-এর CEO কে তা তিনি জানেন না। তিনি তাঁর সঙ্গে কখনও দেখা পর্যন্ত করেননি। এটা সম্পূর্ণ একটা জোকস ছিল। sex toy নিয়ে ছবি পোস্ট করার জন্য অবশ্য তিনি ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন।

একাধিক ট্যুইট করে তিনি বোঝানোর চেষ্টা করেছেন, তাঁর কনটেন্ট বার বার TikTok ও Instagram থেকে মুছে দেওয়া হয়। কখনও তিনি তার কারণও বুঝতে পারেন না।

সব শেষে তিনি অভিযোগ তোলেন, এই ধরনের app গুলো যৌনকর্মীদের নিজেদের কথা বলতে বাধা দেয়। তাদের আটকানোর চেষ্টা করে। ফলে যৌনকর্মীদের জন্য তিনি লড়াই চালিয়ে যাবেন।

Published by:Ananya Chakraborty
First published: