সাইবার ক্রাইমে এগিয়ে এই শহর, জানেন কলকাতা কত নম্বরে?

এই তালিকায় সবার প্রথমে রয়েছে মুম্বই, দ্বিতীয় সাথনে রয়েছে দিল্লি, তৃতীয় স্থানে বেঙ্গালুরু তারপর কলকাতা।

Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 04, 2019 09:17 PM IST
সাইবার ক্রাইমে এগিয়ে এই শহর, জানেন কলকাতা কত নম্বরে?
Representational Image
Bangla Editor | News18 Bangla
Updated:Sep 04, 2019 09:17 PM IST

২০১৯ এর বার্ষিক থ্রেড রিপোর্ট (Annual threat report 2019) প্রকাশ করেছে ভারতের সাইবার সিকিউরিটি রিসার্চ (Indian Cyber Security Research) আর সফটওয়্যার ফার্ম (software firm) কুইক হীল (Quick Heal)। এই রিপোর্ট রয়েছে ২০১৯ সালে হওয়া সাইবার অ্যাটাকের তথ্য। এই রিপোর্টে সব থেকে আশ্চর্যজনক তথ্য হল এটি যে ২০১৯ সালে সাইবার অ্যাটাকে সব থেকে বেশি প্রভাবিত হয়েছে ৪টি মহানগর - মুম্বই (Mumbai), দিল্লি (Delhi) , কলকাতা (Kolkata) আর বেঙ্গালুরু (Bengaluru)।

এই তালিকায় সবার প্রথমে রয়েছে মুম্বই, দ্বিতীয় সাথনে রয়েছে দিল্লি, তৃতীয় স্থানে বেঙ্গালুরু তারপর কলকাতা। রিপোর্টে বলা হয়েছে যে মহারাষ্ট্র, দিল্লি আর পশ্চিম বাংলা এমন তিনটি রাজ্য যেখানে সব থেকে বেশি সাইবার অ্যাটাকের ঘটনা সামনে এসেছে।

রিপোর্টে সাইবার অ্যাটাকের তথ্যটি কে দুটি ভাগে ভাগ করা হয়েছে - Windows আর Android। Windows -এর ডিভাইসে 9 লক্ষ 73 হাজার অ্যাটাক হয়েছে। এর থেকে বোঝা যায় যে প্রতি মিনিটে 1,852 ডিভাইস এতে প্রভাবিত হয়েছে। ভারতে বেশির ভাগ সাইবার অ্যাটাক ট্রোজেন ভাইরাস (Trojans) দিয়ে করা হয়েছে। এতে দ্বিতীয় নম্বরে রয়েছে Standalone আর তার পরেই রয়েছে Infectors। এই ভাইরাসগুলোর সাহায্যে ও সাইবার অ্যাটাক করা হয়েছে।

Ransomware-এর সাহায্যে খুব কম অ্যাটাকের তথ্য সামনে এসেছে। বোমা হয়েছে যে প্রতি ১৪ মিনিটে একটি কম্পিউটার প্রভাবিত হয়েছে। আরও বলা হয়েছে যে সাইবার অ্যাটাকের জন্য ১০টি টুলের মধ্যে ৬টি ট্রোজেন ভাইরাস।

Windows-এর থেকে অনেক কম সাইবার অ্যাটাক হয়েছে Android-এ। Android-এ সব থেকে বেশি সাইবার অ্যাটাক হয়েছে অজানা অ্যাপলিকেশন, ডুপ্লিকেট বা ম্যালিসিয়াস ডাউনলোড করে। এই অ্যাপগুলির সাহায্যে Android ফোন ৩ মিনিটের মধ্যে প্রভাবিত হয়। Quick Heal-এর রিপোর্টে বলা হয়েছে যে google play স্টোরে সব থেকে বেশি ক্ষতিকারক ম্যালওয়্যার আর অ্যাডওয়্যার রয়েছে।

First published: 09:17:24 PM Sep 04, 2019
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर