সুদের হার কমালো স্টেট ব্যাঙ্ক, সস্তা হচ্ছে গাড়ি ও বাড়ির EMI

৮ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণের পর নড়ে গিয়েছিল গোটা দেশ ৷ আচমকাই পুরোনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী ৷

Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 02, 2017 09:18 AM IST
সুদের হার কমালো স্টেট ব্যাঙ্ক, সস্তা হচ্ছে গাড়ি ও বাড়ির EMI
Dolon Chattopadhyay | News18 Bangla
Updated:Jan 02, 2017 09:18 AM IST

#নয়াদিল্লি: ৮ নভেম্বর প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণের পর নড়ে গিয়েছিল গোটা দেশ ৷ আচমকাই পুরোনো ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট বাতিলের ঘোষণা করেন প্রধানমন্ত্রী ৷ সেই ঘোষণার পর প্রায় দু’মাস হতে চললেও নোট সমস্যার সমাধান এখনও হয়নি গোটা দেশে ৷ বিপুল পরিমাণে নোট ব্যাঙ্কে জমা পড়লেও এখনও মেটেনি নোট সঙ্কট  ৷ বর্ষ শেষের সন্ধেয় ফের জাতির উদ্দেশ্যে ভাষণ দিলেন প্রধানমন্ত্রী। গরিব ও নিম্ন মধ্যবিত্তের সুবিধার জন্য ব্যাঙ্কগুলির কাছে ঋণের উপর সুদের হার কমানোর আর্জি জানিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। এর ঠিক ২৪ ঘণ্টার মধ্যেই দেশের তিনটি রাষ্ট্রায়ত্ত ব্যাঙ্ক ঋণের উপর সুদের হার কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ৷ এর জেরে কমতে চলেছে গাড়ি ও গৃহ ঋণে সুদের হার ৷

প্রথম স্টেট ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া তাদের সুদের হার কমিয়েছে ০.৯ শতাংশ ৷ এক বছরের জন্য মার্জিনাল কস্ট অফ ফান্ড বেসড লেন্ডিং রেট (এমসিএলআর) বা তহবিল ভিত্তিক সুদের হার ৮.৯ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৮ শতাংশ করেছে। এরপরই পঞ্জাব ন্যাশনাল ব্যাঙ্ক ও ইউনিয়ন ব্যাঙ্ক অফ ইন্ডিয়া তাদের সুদের হার কমানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছেন ৷

অথর্মন্ত্রী অরুণ জেটলি জানিয়েছেন, দেশজুড়ে নোট বাতিলের সিদ্ধান্ত সফল হয়েছে ৷ তার সুফল এবার সাধারণ মানুষ পাবেন ৷ নোট বাতিলের জেরে ব্যাঙ্কগুলির হাতে এখন প্রচুর তহবিল চলে এসেছে।

তবে বিরোধীরা তা মানতে নারাজ ৷ কারণ সরকারের তরফে এখনও জানানো হয়নি কত ৫০০ ও ১০০০ টাকার নোট ব্যাঙ্কে জমা পড়েছে ৷

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ট্যুইটে ফের একবার মোদির বিরুদ্ধে সরব হয়েছেন ৷ নোট বাতিলের জেরে কত কালো টাকা উদ্ধার হয়েছে সে বিষয়ে বিস্তারিত জানতে চেয়েছেন প্রধানমন্ত্রীর কাছে ৷

Loading...

অন্যদিকে, কংগ্রেস দাবি করেছে নোট বাতিলের জেরে সাধারণ মানুষকে কেবল হয়রানির মুখে পড়তে হয়েছে  ৷ তাই মানুষের কাছে মোদির ক্ষমা চাওয়া উটিৎ ?

First published: 09:15:57 AM Jan 02, 2017
পুরো খবর পড়ুন
Loading...
अगली ख़बर