Yusuf Pathan retirement: দুটি বিশ্বকাপ জয় সেরা মুহূর্ত সিনিয়র পাঠানের

Yusuf Pathan retirement: দুটি বিশ্বকাপ জয় সেরা মুহূর্ত সিনিয়র পাঠানের

ক্রিকেট থেকে অবসর ঘোষণা ইউসুফ পাঠানের

ক্রিকেটের সবরকম ফরম্যাট থেকে অবসর ঘোষণা করে দিলেন ইউসুফ পাঠান। শুক্রবার সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে এই খবর ঘোষণা করেন তিনি।

  • Share this:

    #বরোদা: ক্রিকেটের সবরকম ফরম্যাট থেকে অবসর ঘোষণা করে দিলেন ইউসুফ পাঠান। শুক্রবার সোশাল মিডিয়ার মাধ্যমে এই খবর ঘোষণা করেন তিনি। বিদায়বেলায় নিজের পরিবার, বন্ধুবান্ধব, কোচ, ভাই ইরফান, বিসিসিআই, টিম ইন্ডিয়ার প্রাক্তন সদস্যদের ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি। আবেগপ্রবণ হয়ে জানিয়েছেন যেদিন প্রথমবারের জন্য ভারতের জার্সি গায়ে উঠেছিল সেদিন বুঝেছিলেন শুধু নিজের জন্য নয়, গোটা দেশের সম্মানের জন্য খেলতে হয়। দুটো বিশ্বকাপ জয়ের অন্যতম সেরা মুহূর্ত।

    ক্রিকেট মাঠে ব্যাট হাতে তিনি কতক্ষণ ক্রিজে থাকবেন গ্যারান্টি থাকত না। কিন্তু যতক্ষণ থাকতেন বোলারদের রাতের ঘুম কেড়ে নিতেন। তাঁর বিশাল ছক্কা উড়ে এসে পড়ত গ্যালারিতে। বুলেট গতির বাউন্ডারি সবুজ ঘাসের বুক চিরে চলে যেত মাঠের বাইরে। ভারতের হয়ে ৫৭ টি একদিনের ম্যাচ এবং ২২ টি টি টোয়েন্টি খেলেছেন। পাকিস্তানের বিরুদ্ধে অভিষেক হয়েছিল তাঁর। টি টোয়েন্টি ফাইনালে মহম্মদ আসিফকে মাথার ওপর দিয়ে মারা ছক্কা ভোলা সম্ভব নয় ক্রিকেটপ্রেমীদের। টি টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং একদিনের বিশ্বকাপ জিতেছেন।

    কিন্তু ইউসুফ পাঠানকে ক্রিকেটপ্রেমীদের বেশি মনে থাকবে আইপিএলের জন্য। বিশেষ করে মুম্বই ইন্ডিয়ান্স দলের বিরুদ্ধে রাজস্থানের হয়ে ৩৭ বলে শতরান নতুন রেকর্ড সৃষ্টি করেছিল আইপিএলে। এরপর শাহরুখ খানের কলকাতা নাইট রাইডার্স দলেও খেলেছেন। আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন। শতরান না হলেও কয়েকটা মনে রাখার মত ইনিংস খেলেছিলেন। পরে অবশ্য খারাপ ফর্মের জন্য তাঁকে ছেড়ে দেয় কেকেআর। সানরাইজার্স হায়দরাবাদ জার্সি গায়ে খেলেছেন। মারকুটে ব্যাটিং করার পাশাপাশি কার্যকরী অফস্পিনার হিসেবেও নাম ছিল তাঁর।

    টেস্ট ক্রিকেট অবশ্য দেশের হয়ে খেলা হয়নি। দুটো বিশ্বকাপ জয় এবং ফাইনাল জেতার পর ওয়াংখেড়েতে সচিন তেন্ডুলকরকে কাঁধে নিয়ে ঘোরা জীবনের সেরা স্মৃতি জানিয়েছেন তিনি। তবে অবসর নেওয়ার পর ক্রিকেটের সঙ্গেই জড়িয়ে থাকার বার্তা দিয়েছেন তিনি। আগামী প্রজন্মের ক্রিকেটার তৈরির কাজে নিজেকে ব্যবহার করতে চান তিনি।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    লেটেস্ট খবর