WTC Final: চাকরি নিয়ে টানাটানি! পাঁচবার ICC টুর্নামেন্ট হারের পর রবি শাস্ত্রী কী বলছেন!

রবি শাস্ত্রীকে কেউ ছেড়ে কথা বলতে রাজি নন।

রবি শাস্ত্রীকে কেউ ছেড়ে কথা বলতে রাজি নন।

  • Share this:

    #সাউদাম্পটন:

    এই নিয়ে পরপর পাঁচবার আইসিসি টুর্নামেন্ট হারল ভারতীয় দল। তাঁর কোচিংয়ে টানা ব্যর্থতা। বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপে ভারতীয় দল হারার পর সব থেকে বেশি সমালোচনার মুখে পড়েছেন কোচ রবি শাস্ত্রী। লোকজন তাঁর ইস্তফা দাবি করছে। বিরাট কোহলিকেও সমালোচনা হজম করতে হয়েছে। ফাইনাল ম্যাচে কোহলির পারফরম্য়ান্স ভাল নয়। সেই পরিসংখ্যান প্রকাশ্যে আসার পর থেকেই কোহলির সমালোচনা শুরু হয়েছে। তবে অনেকেই বলছেন, কোহলির অধিনায়কত্বে কোনও খামতি ছিল না। ভারতীয় দলের ব্যাটিং অর্ডার ফ্লপ করেছে। কিন্তু রবি শাস্ত্রীকে কেউ ছেড়ে কথা বলতে রাজি নন।

    শাস্ত্রীর ভারতীয় দলের সঙ্গে যুক্ত থাকাকালীন ২০১৫ বিশ্বকাপ, ২০১৬ টি-২০ বিশ্বকাপ, ২০১৭ চ্য়াম্পিয়ন্স ট্রফি, ২০১৯ বিশ্বকাপ ও ২০২১ ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ হেরেছে টিটিম ইন্ডিয়া। ফলে ভারতীয় ক্রিকেট সমর্থকদের একাংশ এখন শাস্ত্রীকে ইস্তফা দিতে বলছেন। ২০২১ টি-২০ বিশ্বকাপ পর্যন্ত শাস্ত্রীর চুক্তি রয়েছে বিসিসিআই-এর সঙ্গে। তবে তার আগেই তাঁকে সরিয়ে দেওয়ার দাবি উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়ায়। শাস্ত্রীর আমলে ভারতীয় দল কোনও আইসিসি টুর্নামেন্ট জিততে পারেনি। তাই এমন কোচ দিনের পর দিন রাখার কোনও মানে হয় না বলে জানিয়েছেন অনেকে। অনিল কুম্বলের জায়গায় ভারতীয় দলের কোচ হিসাবে দায়িত্ব পেয়েছিলেন শাস্ত্রী। কিন্তু এখনও পর্যন্ত কোচ হিসাবে তাঁর সাফল্য আহামরি কিছু নয়। তবুও কেন তাঁকে দায়িত্বে বহাল রাখা হয়েছে! প্রশ্ন উঠছে।

    এদিকে নিউ জিল্যান্ডের কাছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ফাইনাল হারের পর শাস্ত্রী সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, যোগ্য দলই এই পরিস্থিতিতে জিতেছে। বিশ্বকাপের জন্য দীর্ঘ সময় অপেক্ষা করার পর যোগ্য দলই সেটা পেল। বড় কিছু এত সহজে পাওয়া যায় না। এ যেন তারই আদর্শ উদাহরণ। দারুণ খেলল নিউ জিল্যান্ড। ওদের সম্মান প্রাপ্য। শাস্ত্রীর এমন পোস্টের পর সমর্থকদের রাগ যেন আরও বেড়েছে। ধারে ও ভারে ভারতীয় দল নিউ জিল্যান্ডের থেকে কোনও অংশে কম নয়। যোগ্যতার দিক থেকেও কোহলিরা কম নন। তা হলে এমন হার কেন! কিছুতেই মেনে নিতে পারছেন না ভারতীয় দলের সমর্থকরা।

    Published by:Suman Majumder
    First published: