২১ টি টেস্ট জয়, ঘরের মাঠে ধোনিকে ছুঁয়ে ফেললেন বিরাট

২১ টি টেস্ট জয়, ঘরের মাঠে ধোনিকে ছুঁয়ে ফেললেন বিরাট
একুশটি টেস্ট জয়, ঘরের মাঠে ধোনিকে ছুঁয়ে ফেললেন বিরাট

অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহলি ঘরের মাঠে টেস্ট জয়ের সংখ্যায় (21 Test Wins) ছুঁয়ে ফেললেন ধোনিকে। চেন্নাইয়ের মাঠে এই অনন্য নজির স্থাপন করলেন ভারত অধিনায়ক।

  • Share this:

    #চেন্নাই: প্রথম টেস্টে ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের কাছে বড় ব্যবধানে হার। সমালোচনা শুরু হয়ে গিয়েছিল টিম ইন্ডিয়ার। আসলে মানুষের স্মৃতি ক্ষণস্থায়ী। প্রথম টেস্টের ব্যর্থতায় অনেকেই ভুলে গিয়েছিলেন এই দলটা একাধিক সিনিয়র ক্রিকেটার ছাড়া অস্ট্রেলিয়া থেকে সিরিজ জিতে ফিরেছে। ব্রিটিশদের বধ করতে দ্বিতীয় টেস্টে খুব বেশি সমস্যায় পড়েনি ভারত। একতরফা খেলে লজ্জাজনক হার উপহার দিয়েছে ইংল্যান্ডকে। অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহলি ঘরের মাঠে টেস্ট জয়ের সংখ্যায় (21 Test Wins) ছুঁয়ে ফেললেন ধোনিকে। চেন্নাইয়ের মাঠে এই অনন্য নজির স্থাপন করলেন ভারত অধিনায়ক।

    এর আগে পর্যন্ত পরপর চারটি টেস্ট হেরেছিলেন অধিনায়ক হিসেবে। ম্যাচ শেষে ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি স্বীকার করে নিলেন ম্যাচটা জিততে যতটা জেদ এবং সংকল্প নিয়েছিলেন ক্রিকেটাররা, ততটাই সাহায্য করেছে মাঠে উপস্থিত দর্শকরা। বিরাট বলেন,"টেস্ট ম্যাচটা আলাদা করে গুরুত্ব পাবে মাঠে উপস্থিত দর্শকদের জন্য। দীর্ঘদিন বাদে দর্শকদের উপস্থিতিতে খেলা হল। এই পরিবেশটা আমরা মিস করছিলাম। চেন্নাইয়ের দর্শক বরাবর ক্রিকেট বোদ্ধা। যখনই দল কঠিন সময়ে থাকে গ্যালারি থেকে দর্শকরা মোটিভেট করে। এটা ভাল পারফর্ম করতে সাহায্য করে। এই জয়ের কৃতিত্ব দর্শকদের সঙ্গে ভাগ করে নেব"।

    এমনিতে তৃতীয় দিনে দেখা গিয়েছিল দর্শকদের সঙ্গে কখনও সিটি দিয়ে, কখনও হাততালি দিয়ে খেলা চলাকালীন উৎসাহ খুঁজছেন ভারত অধিনায়ক। বিরাট জানিয়ে গেলেন,"পিচ যে'রকমই হোক, দুটো দলকেই খেলতে হয়েছে। সিমিং উইকেট অথবা ঘূর্ণি উইকেট, ব্যাট হাতে বুঝে খেলাটাই চ্যালেঞ্জ। দুটো ইনিংস মিলিয়ে আমরা ৬০০ রান করেছি। পিচ খারাপ হলে সেটা সম্ভব হত না" অর্থাৎ ভারত অধিনায়ক নাম না করে সেসব প্রাক্তন ইংলিশ ক্রিকেটারদের সমালোচনার উত্তর দিয়ে দিলেন যাঁরা পিচ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিলেন।


    অশ্বিন, রোহিত শর্মার প্রশংসা করার পাশাপাশি ঋষভ পন্থ সম্পর্কে ভারত অধিনায়ক বলেন, "ব্যাট হাতে ও কী করতে পারে আমরা সকলেই জানি। কিন্তু আমি বেশি খুশি হয়েছি এই ম্যাচে ওর কিপিং দেখে। দুর্দান্ত ক্যাচ নিয়েছে, স্টাম্পিং করেছে, স্পিনারদের একহাত করে ঘোরা বল গ্লাভসে কালেক্ট করেছে। কিপিং নিয়ে ও কতটা পরিশ্রম করছে সেটা পরিষ্কার"। কিন্তু বড় ব্যবধানে জেতার পরেও সাবধানী বিরাট। এই বুধবারের পরের বুধবার গোলাপি বলের দিন রাতের টেস্ট হবে আমেদাবাদে। জনি বেয়ারস্টো এবং জ্যাক ক্রলি সম্ভবত ফিরতে চলেছেন ইংল্যান্ড দলে। ইংল্যান্ডকে ছোট করে দেখার জায়গা নেই জানিয়ে দিলেন কোহলি।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: