• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • সুরেশ রায়নার গ্রেফতারির বিবৃতি দিল তাঁর ম্যানেজমেন্ট

সুরেশ রায়নার গ্রেফতারির বিবৃতি দিল তাঁর ম্যানেজমেন্ট

কোভিড প্রটোকল না মানায় মুম্বইয়ের নাটট ক্লাব থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন ক্রিকেটার সুরেশ রায়না। যদিও পরে জামিনে ছাড়া পেয়ে যান ভারতীয় দলের ব্রাত্য তারকা ক্রিকেটার৷

কোভিড প্রটোকল না মানায় মুম্বইয়ের নাটট ক্লাব থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন ক্রিকেটার সুরেশ রায়না। যদিও পরে জামিনে ছাড়া পেয়ে যান ভারতীয় দলের ব্রাত্য তারকা ক্রিকেটার৷

কোভিড প্রটোকল না মানায় মুম্বইয়ের নাটট ক্লাব থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন ক্রিকেটার সুরেশ রায়না। যদিও পরে জামিনে ছাড়া পেয়ে যান ভারতীয় দলের ব্রাত্য তারকা ক্রিকেটার৷

  • Share this:

    #মুম্বই: কোভিড প্রটোকল না মানায় মুম্বইয়ের নাটট ক্লাব থেকে গ্রেফতার হয়েছিলেন ক্রিকেটার সুরেশ রায়না। যদিও পরে জামিনে ছাড়া পেয়ে যান ভারতীয় দলের ব্রাত্য তারকা ক্রিকেটার৷ এবার তাঁর গ্রেফতারি প্রসঙ্গে বিবৃতি দিল ম্যানেজমেন্ট টিম৷ সেখানে স্পষ্ট করে জানিয়ে দেওয়া হল ঠিক কী কারণে সোমবার রাতে মুম্বইয়ের ড্রাগনফ্লাই এক্সপিরিয়েন্সে পুলিশ গ্রেফতার করেছিল রায়নাকে৷

    বিবৃতিতে বলা হয়েছে, “শুটিংয়ের জন্য সুরেশ মুম্বইয়ে ছিলেন। শুটিংয়ের সময় দীর্ঘায়িত হয়ে তা গভীর রাত পর্যন্ত চলে৷ দিল্লির বিমান ধরে ফিরে যাওয়ার আগে এক বন্ধুর আমন্ত্রণে তিনি অল্প সময়ের জন্য ডিনার সারতে গিয়েছিলেন। রায়না স্থানীয় কোভিড প্রোটোকল ও সময়সীমা সম্পর্কে অবগত ছিলেন না। কিন্তু একবার সেটা জানার পরেই তিনি কর্তৃপক্ষ দ্বারা কর্তৃপক্ষের দ্বারা নির্ধারিত পদ্ধতিগুলি মেনে চলেন৷ এই দুর্ভাগ্যজনক ও অনভিপ্রেত ঘটনার জন্য দুঃখিত রায়না৷ তিনি সর্বদা সর্বোচ্চ সম্মানের সাথে পরিচালনা পর্ষদের নিয়মকানুন মেনে চলেছেন এবং ভবিষ্যতেও তা মানবেন। ”

    মুম্বই বিমানবন্দরের কাছে অবস্থিত ক্লাবে অভিযান চালিয়ে মুম্বই পুলিশ শুধু রায়নাকেই গ্রেফতার করেননি৷ সেখানে উপস্থিত ছিলেন গায়ক গুরু রানধাওয়া ও সুজান খানের মত সেলেবরাও। জানা গিয়েছে গায়ক বাদশাও নাকি ছিলেন সেখানে। যদিও পুলিশ তাঁর নাগাল পায়নি৷ সকলকেই গ্রেফতার করার পর পরে জামিনে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। পুলিশ ওই নাইট ক্লাবের সাতজন কর্মী সহ মোট ৩৪ জনকে নিজেদের হেফাজতে নিয়েছিল পুলিশ। নাইট ক্লাব যে সময় বন্ধ হওয়ার কথা, তার থেকে অনেক বেশি রাত পর্যন্ত তা খোলা ছিল। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে কোভিড নিয়ম লঙ্ঘনের অভিযোগে মামলা করা হয়।

    করোনাতঙ্কের জেরে মহারাষ্ট্র সরকার সতর্কতামূলক পদক্ষেপ নিতেই নাইট কারফিউ জারি করেছে৷ উদ্ধব ঠাকরের সরকার জানিয়েছে যে, সেই রাজ্যের মিউনিসিপ্যাল কর্পোরেশনের আওতাভুক্ত প্রতিটি জায়গায় নাইট কারফিউ জারি থাকবে৷ মঙ্গলবার অর্থাৎ ২২ ডিসেম্বর থেকে ৫ জানুয়ারি পর্যন্ত চলবে এই কারফিউ৷ রাত ১১টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত সময় ধার্য করা হয়েছে৷

    Published by:Subhapam Saha
    First published: