শার্দুল - সুন্দরের লড়াইকে কুর্নিশ বিরাট কোহলির, ভেঙে গেল তিরিশ বছরের পুরনো রেকর্ড

শার্দুল - সুন্দরের লড়াইকে কুর্নিশ বিরাট কোহলির, ভেঙে গেল তিরিশ বছরের পুরনো রেকর্ড
photo/bcci twitter

অভিষেক ম্যাচে ওয়াশিংটন ঠান্ডা মাথা এবং প্রয়োগ ক্ষমতা সঠিকভাবে তুলে ধরল। এটাই টেস্ট ক্রিকেট। দেখিয়ে দিয়েছে ওই জায়গায় কীভাবে খেলতে হয়। আত্মবিশ্বাস প্রশংসা করার মত

  • Share this:

    #ব্রিসবেন: কয়েকদিন আগে কন্যা সন্তানের পিতা হয়েছেন। এই সময় পরিবারের পাশে থাকবেন বলে অ্যাডিলেডে প্রথম টেস্ট খেলে ফিরে এসেছিলেন দেশে। তবে আসার আগে প্রত্যেক ক্রিকেটারের সঙ্গে আলাদা করে আলোচনা এবং উদ্বুদ্ধ করে এসেছিলেন ক্যাপ্টেন কোহলি। ঠিক তার পরেই রাহানের নেতৃত্বে মেলবোর্নে দুরন্ত জয় পায় ভারত। সিডনি টেস্ট অস্ট্রেলিয়া জেতার জায়গায় থাকলেও অশ্বিন এবং বিহারি দুর্দান্ত লড়াই করে ম্যাচ ড্র করে দেন। আর শেষ টেস্টে ব্রিসবেনের মাঠে তৃতীয় দিন সকালে দুই তরুণ যা করে দেখালেন সেটা বোধহয় কেউ আশা করেননি। তামিলনাড়ুর ওয়াশিংটন সুন্দর এবং মুম্বইয়ের শার্দুল ঠাকুর সপ্তম উইকেটে ব্রিসবেনের মাঠে ভারতীয়দের মধ্যে সবচেয়ে বড় পার্টনারশিপ গড়লেন। ব্যক্তিগতভাবে ভারতীয়দের মধ্যে সাত নম্বরে নেমে সর্বোচ্চ স্কোরের তালিকায় ওয়াশিংটন সুন্দর তৃতীয় স্থানে। আগে রয়েছেন রাহুল দ্রাবিড় এবং নাদকার্নি।

    এছাড়াও এদিন ভেঙে গেল কপিল দেব এবং মনোজ প্রভাকরের তিরিশ বছর আগের রেকর্ড। সকাল থেকেই টিভির সামনে থাকেন বিরাট। দেশে ফিরে এলেও মন পড়ে আছে অস্ট্রেলিয়ায়। হয়তো হাত কামড়াচ্ছেন, চুল ছিঁড়ছেন, কিন্তু চাইলেও মাঠে নামার উপায় নেই। দুই তরুণের অদম্য সাহস এবং হার না মানা লড়াই দেখে প্রশংসা না করে থাকতে পারেননি বিরাট। সোশ্যাল মিডিয়ায় লিখেছেন, "অভিষেক ম্যাচে ওয়াশিংটন ঠান্ডা মাথা এবং প্রয়োগ ক্ষমতা সঠিকভাবে তুলে ধরল। এটাই টেস্ট ক্রিকেট। দেখিয়ে দিয়েছে ওই জায়গায় কীভাবে খেলতে হয়। আত্মবিশ্বাস প্রশংসা করার মত"। আর শার্দুল ঠাকুরের উদ্দেশ্যে মারাঠিতে তিনি লিখেছেন,"তুলা পারাত মানলা রে ঠাকুর"- অর্থাৎ কুর্নিশ তোমার প্রচেষ্টাকে শার্দুল ঠাকুর।

    আইপিএলে ওয়াশিংটন বিরাট কোহলির ফ্র্যাঞ্চাইজি রয়েল চ্যালেঞ্জার্স বেঙ্গালুরুর হয়ে খেলেন। তাই বিরাট নিশ্চিত ছিলেন নিজের প্রতিভার প্রতি সুবিচার করতে পারলে টেস্ট ক্রিকেটেও সুন্দর নিজেকে সুন্দরভাবে প্রকাশ করতে পারবেন। প্রথম ইনিংসে বল হাতেও দুজনে তিনটি করে উইকেট তুলে নিয়েছিলেন। এরপর ব্যাট হাতে কামাল। জাদেজা এবং অশ্বিন ছিটকে গেলে টিম ম্যানেজমেন্ট কিছুটা সংশয় ছিল এটা ভেবে যে ওই দুজন স্পিনারের ব্যাট হাতেও অবদান থাকে। সেই অভাব কে ঢাকতে পারবে? রবিবার সকালে গাব্বার বাইশ গজে কঠিন প্রশ্নের সহজ উত্তর পাওয়া গিয়েছে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: