Virat Kohli: নিউজিল্যান্ড এগিয়ে আছে মনে করলে বিমানে উঠতাম না

ইংল্যান্ড সফরের আগে বিরাটের আগুনে মেজাজে উজ্জীবিত টিম ইন্ডিয়া

দেশ ছাড়ার আগে আক্রমণাত্মক মেজাজকে বিরাট কোহলি জানিয়ে দিলেন আত্মবিশ্বাসের অভাব নেই এই দলের। যদি কেউ মনে করত নিউজিল্যান্ড এগিয়ে, তাহলে বিমানে ওঠার প্রয়োজন ছিল না

  • Share this:

    #মুম্বই: অস্ট্রেলিয়া সফরে প্রথম টেস্ট খেলে দেশে ফিরে এসেছিলেন তিনি। ৩৬ রানে অল আউট হওয়া ভারতীয় দল কিন্তু অধিনায়ক বিরাট কোহলিকে ছাড়াই সিরিজ জিতে ফিরেছিল। আর এবার ইংল্যান্ড সফরে প্রথম থেকেই আছেন তিনি। আজই ইংল্যান্ডে পৌঁছে গেল ভারতীয় দল। দেশ ছাড়ার আগে আক্রমণাত্মক মেজাজকে বিরাট কোহলি জানিয়ে দিলেন আত্মবিশ্বাসের অভাব নেই এই দলের। যদি কেউ মনে করত নিউজিল্যান্ড এগিয়ে, তাহলে বিমানে ওঠার প্রয়োজন ছিল না।

    সামনে থেকে নেতৃত্ব দেওয়ার জন্য তিনি তৈরি। বিশ্ব টেস্ট ফাইনালের আগে বেশিরভাগ সময়টাই কাটাতে হচ্ছে নিভৃতবাসে। ফলে অনুশীলন এবং নিজেদের মধ্যে প্রস্তুত হওয়া ছাড়া গতি নেই। প্রতিপক্ষ নিউজিল্যান্ড যেখানে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দুটি টেস্ট খেলে নামবে, সেখানে ভারতের জন্য নেই কোনও প্রস্তুতি ম্যাচ। তবে তাতে কোনও সমস্যা নেই বিরাট কোহলির। অধিনায়ক জানিয়েছেন, সমস্ত পরিকল্পনাই তাঁদের তৈরি।

    বলেছেন, “দেখুন, এর আগে আমরা ঠিকঠাক সূচিতেও কোনও সফরের তিনদিন আগে গিয়ে পৌঁছেছি এবং দারুণ একটা সিরিজ খেলেছি। তাই সব কিছুই মাথার মধ্যে ঠিক করা রয়েছে। এমন নয় যে প্রথম বার ইংল্যান্ডে খেলতে নামছি। সবাই জানি ওখানকার পরিস্থিতি কী রকম। প্রস্তুতি ভাল থাকলেও আপনার মানসিক অবস্থা যদি ঠিক না থাকে, তাহলে মাঠে নেমে প্রথম বলেই আপনি খোঁচা দেবেন বা প্রচুর চেষ্টা করলেও উইকেট পাবেন না।”

    বিরাটের সংযোজন, “আমাদের যদি চারটে অনুশীলনের সেশন দেওয়া হয় তাতেও সমস্যা নেই। কারণ দল হিসেবে কী করতে পারি সেটা আমরা জানি। প্রত্যেকে এর আগে ইংল্যান্ডে খেলেছি। সেটা ভারতীয় দলের হয়েই হোক বা মহম্মদ সিরাজদের ভারত ‘এ’ দলের হয়ে। আমরা চাই মাঠে নেমে সুযোগ কাজে লাগাতে।”কোচ রবি শাস্ত্রীর মতোই তিনি বিশ্ব টেস্টের ফাইনালকে অনেক উচ্চস্থানে রাখছেন।

    তাঁর মতে, গত কয়েক বছরে টেস্টে ভারতীয় দল অনেক উন্নতি করেছে। বলেছেন, “আমরা যারা অনেক বছর দলে এই টেস্ট দলের সদস্য, তাঁদের কাছে এটা কঠোর পরিশ্রমের একটা ফল। আরও ভাল টেস্ট খেলতে চাই। পরিস্থিতি নিউজিল্যান্ড বা আমাদের জন্য একই থাকবে। অস্ট্রেলিয়াতে পরিবেশ ওদের পক্ষে ছিল। সেখানে গিয়ে আমরা জিতে এসেছি। যদি আপনারা ভাবেন পরিবেশের দিক থেকে নিউজিল্যান্ড এগিয়ে, তাহলে তা ভুল।”

    কথায় বলে একজন অধিনায়কের বডি ল্যাঙ্গুয়েজ খুব গুরুত্বপূর্ণ। আত্মবিশ্বাসী এবং প্রত্যয়ী শরীরী ভাষা রাখতে পারলে একজন অধিনায়ককে দেখেই বাকি দল মোটিভেটেড হয়। বিরাট কোহলি মেজাজটা তাই আর্মি জেনারেলের মতোই রাখছেন।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: