খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

দাবা অলিম্পিয়াডে জেতা স্বর্ণ পদক ছাড়াতে দিতে হল কাস্টমস ডিউটি!

দাবা অলিম্পিয়াডে জেতা স্বর্ণ পদক ছাড়াতে দিতে হল কাস্টমস ডিউটি!
শ্রীনাথ নারায়ণন৷ Photo-Twitter

গত ২ ডিসেম্বর বিষয়টি ট্যুইটারে জানিয়েছিলেন শ্রীনাথ৷ এর দু' দিন পর কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের তরফে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়৷

  • Share this:

#চেন্নাই: আন্তর্জাতিক দাবা ফেডারেশন (FIDE)-এর আয়োজিত অনলাইন দাবা অলিম্পিয়াডে প্রথমবার স্বর্ণ পদক জিতেছিল ভারতীয় দল৷ কিন্তু সেই স্বর্ণ পদক পাওয়ার জন্যই দীর্ঘদিন অপেক্ষা করতে হল দলের সহ অধিনায়ক শ্রীনাথ নারায়ণনকে৷ শুধু তাই নয়, স্বর্ণপদক হাতে পেতে কাস্টমস দফতরকে নির্দিষ্ট মাশুলও দিতে হয় বলে অভিযোগ৷

শেষ পর্যন্ত শ্রীনাথ গোটা বিষয়টি ট্যুইটারে জানানোর পরে সমালোচনার ঝড় ওঠে৷ শেষ পর্যন্ত কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রক থেকে তাঁর সঙ্গে যোগযোগ করা হয়৷ অবশেষে সেই স্বর্ণপদক হােত পেয়েছেন ওই দাবারু৷

গত ২ ডিসেম্বর বিষয়টি ট্যুইটারে জানিয়েছিলেন শ্রীনাথ৷ এর দু' দিন পর কেন্দ্রীয় ক্রীড়ামন্ত্রকের তরফে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়৷ যে ক্যুরিয়র সংস্থা এই স্বর্ণপদক পৌঁছে দেওয়ার দায়িত্বে ছিল তাদের তরফেও যোগাযোগ করে দুঃখপ্রকাশ করা হয়৷ পাশাপাশি শুল্ক দফতরকে দেওয়ার জন্য যে মাশুল নেওয়া হয়েছিল, তাও ফেরত দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দেওয়া হয়৷

২০১৭ সালের ৩০ জুন জারি করা সরকারি বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, কোনও আন্তর্জাতিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় ভারতীয় দলের কোনও সদস্য পদক বা ট্রফি জিতলে তার উপর কাস্টমস ডিউটি ধার্য্য হয় না৷

ট্যুইটে শ্রীনাথ অভিযোগ করেন, ভারতীয় দলের সদস্যদের জেতা স্বর্ণ পদক রাশিয়া থেকে ভারত পৌঁছতে তিন দিন সময় লাগে৷ তার পর বেঙ্গালুরু থেকে চেন্নাইতে তাঁর কাছে পৌঁছতে এক সপ্তাহের বেশি সময় লেগে যায়৷ শ্রীনাথ জানিয়েছেন, '১৯ বা ২০ নভেম্বর পদকগুলি পাঠানো হয়৷ প্রাগের বাসিন্দা আমাদের এক সতীর্থ হরিকৃষ্ণ ২১ তারিখেই তাঁর পদক হাতে পেয়ে যায়৷ আমাদের পদকগুলি ২৩ তারিখ বেঙ্গালুরুতে পৌঁছয়৷ তার পর এক সপ্তাহ কেটে যায়৷'

শ্রীনাথের আরও অভিযোগ, কাস্টমস বিভাগ থেকে পদক ছাড়িয়ে আনার জন্য একাধিক কাগজপত্র জমা দেন তিনি৷ যে প্যাকেজে করে স্বর্ণ পদক পাঠানো হয়েছিল, সেটি কাস্টমস-এর আধিকারিকরা খুলে ফেলেন৷ এমন কি ওই স্বর্ণ পদকে যে আসল সোনা নেই তারও প্রমাণ দিতে পদক কী কী ধাতু রয়েছে তার কেমিক্যাল কম্পোজিশন সংক্রান্ত কাগজপত্রও জমা দিতে হয় শ্রীনাথকে৷ এর পরেও কাস্টমস থেকে স্বর্ণ পদক ছাড়িয়ে আনতে ক্যুরিয়র সংস্থাকে ৬৩০০ টাকা জমা দিতে হয় শ্রীনাথকে৷

সরকারি হস্তক্ষেপের পর অবশ্য সেই সমস্যা মিটেছে৷ বেঙ্গালুরু কাস্টমস-এর চিফ কমিশনার এ কে জ্যোতিষী জানিয়েছেন, তিনি অভিযোগ খতিয়ে দেখবেন৷ তবে শেষ পর্যন্ত যাবতীয় জটিলতা কেটে স্বর্ণ পদক হাতে পাওয়ায়  ট্যুইটারেই সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন শ্রীনাথ নারায়ণন৷

Published by: Debamoy Ghosh
First published: December 5, 2020, 6:22 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर