Home /News /sports /
ইডেনে আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ইংল্যান্ড, গেইল ঝড় দেখতে মুখিয়ে কলকাতা

ইডেনে আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজ বনাম ইংল্যান্ড, গেইল ঝড় দেখতে মুখিয়ে কলকাতা

গেইল-ব্র্যাভো নন, গোটা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলটাই তাঁদের ভাবাচ্ছে। ২৯ বছর পর কলকাতায় বিশ্বকাপের ফাইনাল থেলতে নামার আগে দাবি ইংরেজ অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যানের। একই সঙ্গে তাঁর দাবি, তবে গোটা দলই মানসিক ভাবে চাঙ্গা। অন্যদিকে, ক্যারিবিয়ানদের প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড নয় সমালোচক ৷ এই বিশ্বকাপ জিতে সমালোচকদেরই জবাব দিতে চায় গোটা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক ড্যারেন স্যামির বিশ্বাস, ইডেনের ফাইনালেও তাঁরাই ডেভিড।

আরও পড়ুন...
  • Pradesh18
  • Last Updated :
  • Share this:

    #কলকাতা: গেইল-ব্র্যাভো নন, গোটা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলটাই তাঁদের ভাবাচ্ছে। ২৯ বছর পর কলকাতায় বিশ্বকাপের ফাইনাল থেলতে নামার আগে দাবি ইংরেজ অধিনায়ক ইয়ন মর্গ্যানের। একই সঙ্গে তাঁর দাবি, তবে গোটা দলই মানসিক ভাবে চাঙ্গা। অন্যদিকে, ক্যারিবিয়ানদের প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড নয় সমালোচক ৷ এই বিশ্বকাপ জিতে সমালোচকদেরই জবাব দিতে চায় গোটা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দল। ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক ড্যারেন স্যামির বিশ্বাস, ইডেনের ফাইনালেও তাঁরাই ডেভিড।

    ইডেনে আজ বিরাট নেই। তবে কলকাতা তাকিয়ে গেইলের দিকে। আইপিএলের সুবাদে এই ইডেনকে হাতের তালুর মতো চেনেন গেইল। কালবৈশাখী না আসুক গেইল ঝড় আসবে সেটাই চায় কলকাতা। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজ চায় এই বিশ্বকাপ জিতেই সাবেক ঐতিহ্যকে পুনরুদ্ধার করতে। ২২ বছর পর ইডেনে কোনও ফাইনাল খেলবে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। তার আগে প্রতিপক্ষ ইংল্যান্ড নয়, ড্যারেন স্যামিদের পয়লা নম্বর শক্রুর নাম এক ইংরেজ। নাম মার্ক নিকোলাস। যিনি বিশ্বকাপ শুরুর আগে তাঁর কলামে দাবি করেছিলেন এই ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলের কাপ জেতার মতো কোনও হিম্মত নেই। কারণ, মস্তিস্কহীন কয়েকজন যুবক আজ ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিকেটার। তাই মাঠে নামার আগে বিনয়ী ড্যারেন স্যামির দাবি, সমালোচকদের এবার তাঁদের পরিসংখ্যান বদলানোর সময় এসেছে।

    ১৯৮৭ রিয়ালেন্স কাপে বর্ডারের অস্ট্রেলিয়ার কাছে সাত রানে হারে ইংল্যান্ড। মাইক গ্যাটিংয়ের রিভার্স সুইপ বিখ্যাত থেকে কুখ্যাত হয়েছিল সেই ম্যাচে। এ সব কিছুই দেখা হয়নি ইয়ন মর্গ্যানের। কারণ বর্তমান ইংরেজ অধিনায়ক তখনও এই পৃথিবীর আলো দেখেননি। সবই শুনেছেন পরিবারের কাছ থেকে। তবে দেখেছেন ২০০৯ সালের বিশ্বকাপ জয়ের ছবিটা। তাই ২৯ বছর পর ইডেনে ফাইনাল খেলতে নামার আগে পিছনের দিকে নয়, এগিয়ে যেতে চান মর্গ্যান। মিনি বিশ্বকাপ খেলতে আসা এই ইংল্যান্ড দলটা আক্ষরিথ অর্থেই মিনি বিশ্ব। আদিল রসিদ, মইন আলিদের পূর্বপুরুষরা পাকিস্তানের। অন্যদিকে নিউজিল্যান্ডের বাসিন্দা ছিলেন জো রুট। এর উপর কলকাতা। নাক উঁচু ইংরেজরা টি-টোয়েন্টিকে খুব একটা পাত্তা দিতেন না। মর্গ্যান স্বীকার করলেন গত পাঁচ বছর এই ক্রিকেটটা নিয়ে তাঁরা ভাবছেন। তাই অতীত নয়, নতুন করে শুরু করতে চায় মানসিক ভাবে চাঙ্গা এই ইংল্যান্ড দল। তাই তাঁর কাছে একটা গেইল বা একটা ব্র্যাভো সমস্যা নয়। এই বিশ্বকাপে উল্কার মতো আর্বিভাব হওয়া গোটা ক্যারিবিয়ান দলটাই একটা সমস্যা ।

    ইডেনে খেলা অথচ ধোনির ভারত নেই ৷ তাই জাতীয়তাবাদ ভুলে আজ সবাই ক্রিকেটের পক্ষে ৷ ইডেনে শেষ হাসি কে হাসবে ইয়ন মর্গ্যান না ড্যারেন সামি ? তা জানতে আর কিছুক্ষণের অপেক্ষা ৷ কলকাতায় সামান্য ঝড়-বৃষ্টি হওয়ার পূর্বাভাস থাকলেও দর্শক আজ গেইল ঝড় দেখতে চায় ৷

    First published:

    Tags: Eden, Eden Gardens, England vs West Indies, ICC T20 World Cup final, Kolkata, T-20 World Cup 2016

    পরবর্তী খবর