Suresh Raina: আমি ব্রাক্ষ্মণ..! রায়নার বেফাঁস মন্তব্যে সমালোচনার ঝড়

সুরেশ রায়নার অবিলম্বে ক্ষমা চাওয়া উচিত বলেও দাবি করেছেন অনেকে।

সুরেশ রায়নার অবিলম্বে ক্ষমা চাওয়া উচিত বলেও দাবি করেছেন অনেকে।

  • Share this:

    #নয়াদিল্লি:

    খেলাধূলার সঙ্গে জাতপাতের কোনও সম্পর্ক নেই। তবুও তিনি কেন এমন কথা বললেন! সুরেশ রায়নার একখানা মন্তব্য নিয়ে এখন সোশ্য়াল মিডিয়া উত্তাল। আসলে এক সাক্ষাত্কারে উপস্থাপকের প্রশ্নের জবাবে সুরেশ রায়না এমন একখানা কথা বলে ফেললেন। এক সাক্ষাত্কারে রায়না হঠাত্ করেই নিজেকে ব্রাক্ষ্মণ বলে পরিচয় দেন। তার পর থেকেই রায়নার বিরুদ্ধে অনেকে ক্ষোভ উগড়ে দিয়েছেন। রায়নার অবিলম্বে ক্ষমা চাওয়া উচিত বলেও দাবি করেছেন অনেকে। কিন্তু কেন হঠাত্ নিজেকে ব্রাক্ষ্মণ বলে পরিচয় দিতে গেলেন চেন্নাই সুপার কিংসের অলরাউন্ডার! কোনও কারণ তেমন নেই। রায়না হয়তে বেখেয়ালেই এমনটা বলে ফেলেছেন।

    তামিলনাড়ু প্রিমিয়র লিগের (TNPL) পাঁচ নম্বর সিজন চলছে। প্রথম ম্যাচ খেলেছে লাইকা কোবই কিংস ও সালেম স্পার্টান্স। ওই নিয়েই কথা বলার সময় রায়না বেঁফাস মন্তব্য করে ফেলেন। ২০০৮ সাল থেকে চেন্নাই সুপার কিংসের হয়ে খেলেন সুরেশ রায়না। একজন ধারাভাষ্যকার রায়নাকে জিজ্ঞেস করেছিলেন, আপনি কী করে দক্ষিণ ভারতের সংস্কৃতি এতটা আপন করে নিলেন! একটা সময় দক্ষিণ ভারতের পোশাক পরে নাচতেও দেখা গিয়েছে তাঁকে। তা ছাড়া বরাবরই চেন্নাইয়ের সমর্থকদের সঙ্গে সুসম্পর্ক বজায় রেখেছেন তিনি। প্রতি মরশুমে তিনি যেন চেন্নাই সংসারেরই একজন হয়ে ওঠেন। রায়নাকে চেন্নাইয়ের সমর্থকরা চিন্না থালা বলেন।

    সুরেশ রায়না এদিন সেই ধারাভাষ্যকারের প্রশ্নের জবাবে বলেন, আমি ব্রাক্ষ্মণ। ২০০৪ সাল থেকে চেন্নাইতে খেলি। এখানকার সংস্কৃতি আমার ভাল লাগে। চেন্নাইয়ের সতীর্থদেরও আমি খুব ভালবাসি। এখানে অনিরুদ্ধ শ্রীকান্তের সঙ্গে খেলেছি। এস বদ্রীনাথ, এল বালাজির সঙ্গে খেলেছি। চেন্নাই সুপার কিংসের প্রশাসকরা ভাল। এই দলে সুস্থ পরিবেশ থাকে সব সময়। তাই চেন্নাইয়ে খেলাটাকে আমি সব সময় উপভোগ করি।

    Published by:Suman Majumder
    First published: