Home /News /sports /
Bangladesh vs WI : বাঘের গর্জন ওয়েস্ট ইন্ডিজে! ক্যারিবিয়ানদের উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ জয় বাংলাদেশের

Bangladesh vs WI : বাঘের গর্জন ওয়েস্ট ইন্ডিজে! ক্যারিবিয়ানদের উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ জয় বাংলাদেশের

ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে এবার একদিনের সিরিজ জয় টাইগারদের

ক্যারিবিয়ানদের বিরুদ্ধে এবার একদিনের সিরিজ জয় টাইগারদের

Spinners on song as Bangladesh clinch West Indies series in style. বাঘের গর্জন ওয়েস্ট ইন্ডিজে! ক্যারিবিয়ানদের উড়িয়ে দিয়ে সিরিজ জয় বাংলাদেশের

  • Share this:
    #গায়ানা: আবার একটা উজ্জ্বল দিন বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য। গায়ানা নাকি বাংলাদেশ? খেলা হচ্ছে কোথায়? সিরিজের প্রথম দুই ওয়ানডে শেষে এমন প্রশ্ন উঠতেই পারে। ধীরগতির স্পিন সহায়ক উইকেটে ক্যারিবীয়রা নিজ ঘরেই পরবাসী, আর বিদেশের মাটিতে দেশের ছোঁয়া বাংলাদেশিদের! প্রায় প্রথম ওয়ানডের ধাঁচেই, আরও দাপুটে পারফরম্যান্সে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে ৯ উইকেটে হারিয়ে এক ম্যাচ বাকি থাকতেই সিরিজ জিতল বাংলাদেশ। এ নিয়ে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে বাংলাদেশ হারাল টানা ১০ ওয়ানডেতে, জিতল টানা চারটি সিরিজ। আগের ম্যাচের মতোই গুরুত্বপূর্ণ টসটি জেতেন তামিম ইকবাল, আবারও বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন তিনি। আবারও বাংলাদেশ স্পিনারদের সামনে দিশেহারা হয়ে পড়ে উইন্ডিজ ব্যাটিং লাইন আপ, বেশ অনভিজ্ঞ এক দলের স্পিন-দূর্বলতা ফুটে উঠেছে বেশ ভালোভাবেই। আগের ম্যাচে ১৪৯ রান তুললেও এবার নাসুম আহমেদ, মেহেদী মিরাজ, শরীফুল ইসলামদের তোপে তারা গুটিয়ে যায় ১০৮ রানেই। পরে তামিম ইকবালের অপরাজিত ৫০ ও লিটন দাসের ২৭ বলে ৩২ রানের ইনিংসে বাংলাদেশ জিতেছে ১৭৬ বল বাকি থাকতেই। তামিম ইকবালের সঙ্গে ইনিংস উদ্বোধন করতে আসেন আরেক বাঁহাতি নাজমুল হোসেন। নাজমুল ফিরলেও তিনে নামা লিটনের অনায়াস ব্যাটিং কাজটা আরও সহজ করে দিয়েছেন। ব্যাটিংয়ের জন্য বেশ কঠিন উইকেটেও তিনি খেলেছেন ৬ চারে ২৭ বলে ৩২ রানের ইনিংস। অধিনায়ক তামিমের ৬২ বলে ৫০ রানের ইনিংস নিশ্চিত করেছে—বোলারদের গড়ে দেওয়া ভিতে বাংলাদেশ সহজ জয়ই পাচ্ছে। ধীরগতির স্পিন সহায়ক উইকেটে রান তুলতে শুরু থেকেই হিমশিম খাচ্ছিল ওয়েস্ট ইন্ডিজ। এর আগেই অবশ্য প্রথম ওয়ানডে উইকেটটি পেতে পারতেন নাসুম, তাঁর বলেই শাই হোপকে কট-বিহাইন্ড দিয়েছিলেন আম্পায়ার। ফলে টানা তিন বার রিভিউ প্রথম ওয়ানডে উইকেট থেকে বঞ্চিত করেছে নাসুমকে। নাসুম অবশ্য সফল হতে সময় নেননি বেশি, শামার ব্রুকসকে বোল্ড করে পান প্রথম উইকেটটি। রান উঠছে না, সঙ্গে পড়ছে উইকেট—ওয়েস্ট ইন্ডিজ পড়ে দ্বিমুখী চাপে। নাসুমের জন্য প্রথম উইকেটটি ছিল বাঁধ ভাঙার মতো, এরপর ৩ বলের মধ্যে তিনি নেন আরও ২ উইকেট। ৮৬ রানে ৯ উইকেট হারিয়ে নিজেদের মাটিতে সর্বনিম্ন রানে অলআউট হয়ে যাওয়ার দ্বারপ্রান্তে হাজির হয় ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ২০১৩ সালে পাকিস্তানের বিপক্ষে ৯৮ রানে গুটিয়ে যাওয়া ছিল তাদের রেকর্ড।
    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    Tags: Bangladesh cricket team

    পরবর্তী খবর