• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • SACHIN TENDULKAR HELPS DIPTI VISHVASRAO OF RATNAGIRI TO FULFIL HER DREAM ARC

Sachin Tendulkar : রোজ দীর্ঘ পথ পাড়ি ইন্টারনেটের জন্য, দরিদ্র কৃষককন্যার ডাক্তার হওয়ার স্বপ্নপূরণ সচিনের দৌলতে

ছবি-ফেসবুক

  • Share this:

    মুম্বই : তিনি এখনও স্বপ্নের কারিগর ৷ সচিন তেন্ডুলকরের (Sachin Tendulkar) জন্য স্বপ্নপূরণ হল দীপ্তি বিশ্বাসরাওয়ের ৷ ১৯ বছর বয়সি এই তরুণী এ বার তাঁর গ্রামের প্রথম বাসিন্দা হিসেবে ডাক্তারি পড়তে চলেছেন ৷ মহারাষ্ট্রের রত্নগিরি জেলার প্রত্যন্ত গ্রাম জারিয়ে-এর দীপ্তির দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন মাস্টার ব্লাস্টার ৷

    ইন্টারনেটের ভাল নেটওয়ার্কের জন্য লকডাউনে রোজ এক কিলোমিটার পাড়ি দিতেন দীপ্তি ৷ তার পরই অনলাইন ক্লাস করতে পারতেন এই কৃষককন্যা ৷ শত প্রতিকূলতা পাড়ি দিয়ে দীপ্তি দ্বাদশ শ্রেণীর চূড়ান্ত পরীক্ষায় ৭২০-র মধ্যে পেয়েছেন ৫৭৪ ৷ উত্তীর্ণ হয়েছেন ন্যাশনাল এলিজিবিলিটি কাম এন্ট্রান্স টেস্ট বা এনইইটি-তে ৷ সুযোগ এসেছে আকোলায় সরকারি মেডিক্যাল কলেজে পড়ার ৷ কিন্তু তার পরও বিধিবাম ৷ ডাক্তারি কোর্সের খরচ সামলানোর ক্ষমতা নেই দীপ্তির পরিবারের ৷ আত্মীয় পরিজন ও অন্যান্য ঘনিষ্ঠজনদের চেষ্টায় কিছু টাকা যোগাড় হয় ৷ কিন্তু তার পরও হস্টেল ও অন্যান্য ব্যয় সামলাতে অপারগ দীপ্তির পরিবার ৷ এর পরই পরিত্রাতা হয়ে এগিয়ে আসেন মাস্টার ব্লাস্টার ও তাঁর স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ৷

    তাঁদের কাছ থেকে বৃত্তি পেয়ে দীপ্তি উচ্ছ্বসিত ৷ সংবাদমাধ্যমে বলেছেন, ‘‘এই বৃত্তি আমাকে দেওয়ার জন্য আমি সচিন তেন্ডুলকর ফাউন্ডেশনে কাছে কৃতজ্ঞ ৷ এই সাহায্য আমার অনেক চিন্তা লাঘব করেছে ৷ এ বার আমি অনেক বেশি করে পড়াশোনায় মনঃসংযোগ করতে পারব ৷’’ আরও বলেছেন, তাঁর জীবনভর স্বপ্ন ছিল ডাক্তার হওয়া ৷ সেই স্বপ্ন এ বার সত্যি হতে চলেছে ৷ কঠোর পরিশ্রম করার শপথ নিয়েছেন তিনি ৷ একদিন তিনিও অন্য মেধাবী ছাত্রছাত্রীদের পাশে দাঁড়াবেন৷ যাতে তাঁরাও তাঁদের স্বপ্নপূরণ করতে পারেন ৷ ঠিক যেমন সচিন তেন্ডুলকর ফাউন্ডেশন সাহায্য করেছে তাঁকে ৷

    ভবিষ্যতের জন্য হবু চিকিৎসক দীপ্তিকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন সচিন ৷ তাঁর কথায়, ‘‘স্বপ্নকে তাড়া করে গিয়ে তাকে বাস্তবে রূপান্তরিত করার উজ্জ্বল নিদর্শন হল দীপ্তির যাত্রা ৷ তাঁর জীবন আরও অসংখ্যকে উজ্জীবিত করবে কঠোর পরিশ্রম করে অভীষ্ট লক্ষ্যের দিকে এগিয়ে যেতে ৷’’

    গত ১২ বছরে ৪ রাজ্যের মোট ২৪ টি জেলার ৮৩৩ জন পড়ুয়ার অবলম্বন হয়ে দাঁড়িয়েছেন সচিন ও তাঁর স্বেচ্ছাসেবী সংস্থা ৷

    Published by:Arpita Roy Chowdhury
    First published: