• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • Ravi Shastri: পয়েন্ট বন্টনের প্রক্রিয়া নিয়ে আইসিসিকে তোপ শাস্ত্রীর

Ravi Shastri: পয়েন্ট বন্টনের প্রক্রিয়া নিয়ে আইসিসিকে তোপ শাস্ত্রীর

আইসিসিকে একহাত নিলেন শাস্ত্রী

আইসিসিকে একহাত নিলেন শাস্ত্রী

রবি শাস্ত্রী প্রশ্ন তুলছেন পয়েন্ট বন্টন প্রক্রিয়া নিয়ে। অক্টোবর-নভেম্বর মাসে তিনশো ষাট পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ছিল ভারতীয় দল

  • Share this:

    #আমেদাবাদ: তাঁকে অনেকে পছন্দ করেন, অনেকে দেখতে পারেন না। কিন্তু কোচ হিসেবে ভারতীয় দলের ক্ষেত্রে তাঁর অবদান অস্বীকার করতে পারবেন না কেউ। ক্রিকেটের বাইরে মদ্যপান করা নিয়েও তাঁর মিম তৈরি হয় সোশ্যাল মিডিয়ায়। তিনি রেগে যান না, বরং উপভোগ করেন। মানুষকে আনন্দ দিতে পারলে তার থেকে ভাল প্রাপ্তি আর কিছু হতে পারে না বিশ্বাস করেন। কিন্তু সম্প্রতি বেশ রেগে গিয়েছেন রবি শাস্ত্রী। ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ নিশ্চিত করে ফেলেছে ভারত। জুন মাসে নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে ইংল্যান্ডের মাটিতে এই টেস্ট খেলার কথা টিম ইন্ডিয়ার।

    কিন্তু রবি শাস্ত্রী প্রশ্ন তুলছেন পয়েন্ট বন্টন প্রক্রিয়া নিয়ে। অক্টোবর-নভেম্বর মাসে তিনশো ষাট পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে ছিল ভারতীয় দল। কয়েকদিনের মধ্যেই নিয়ম পাল্টায় দিল আইসিসি। পার্সেন্টেজ সিস্টেমে পয়েন্ট বন্টন করার প্রক্রিয়া শুরু হয়। যাঁর ফলে শীর্ষস্থান থেকে তৃতীয় স্থানে নেমে যেতে হয় ভারতকে। ফাইনালে জায়গা পেতে গেলে অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে অস্ট্রেলিয়াকে হারাতেই হত। পাশাপাশি ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে সিরিজ জিততে হত। এই অদ্ভুত নিয়মের যুক্তি খুঁজে পাচ্ছেন না শাস্ত্রী।

    তিনি জানিয়েছেন ভারত কোয়ালিফাই করে গিয়েছে বলে প্রশ্ন উঠছে না। কিন্তু যদি ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে ভারত সিরিজ জিততে না পারত, তখন কিন্তু এই সম্মান হাতছাড়া হত টিম ইন্ডিয়ার। যে কারণে হাতছাড়া হত সেটা যুক্তিযুক্ত মনে করেন না তিনি। অস্ট্রেলিয়ার মাটি থেকে শেষ কোন দল টেস্ট সিরিজ জিতে ফিরেছে প্রশ্ন তোলেন তিনি। পাশাপাশি অসম্ভবকে সম্ভব করে তোলার জন্য ছেলেদের প্রশংসা করতে কার্পণ্য করেননি টিম ইন্ডিয়ার হেড স্যার।

    নিজে যখন ক্রিকেট খেলতেন, তখন বাঁহাতি স্পিন এবং ওপরের দিকে ব্যাটিং করতেন। ওয়াশিংটন সুন্দরের ভেতর সেই প্রতিভার ঝলক দেখতে পেয়েছেন তিনি। শাস্ত্রী জানিয়েছেন প্রয়োজনে তামিলনাড়ুর অধিনায়ক দিনেশ কার্তিককে অনুরোধ করবেন ওয়াশিংটনকে যেন আরও ওপরে ব্যাট করতে পাঠানো হয়। পাশাপাশি তাঁর অফ স্পিন এবং ফিল্ডিং আগের থেকে অনেক উন্নত জানিয়েছেন শাস্ত্রী।

    বর্তমান ভারতীয় দলের ড্রেসিংরুম ইগো সমস্যায় ভোগে না। প্রত্যেকে প্রত্যেককে সাহায্য করতে চায়। পরিস্থিতি যতই কঠিন হোক, এই দলটা হারার আগে হারে না। অভিজ্ঞতা কম হলেও সাহসের ঘাটতি নেই কারও। ব্যক্তিগত রেকর্ড নয়, দলের জয় সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এই দর্শনে বিশ্বাসী সবাই। অধিনায়ক হিসেবে বিরাট কোহলির পরিশ্রম, অধ্যাবসায় এবং লড়াকু ভাব দলের সকলের মধ্যে ঢুকে গিয়েছে। শেষ ছয় বছরে কোচ হিসেবে যা শিখেছেন তা শেষ পঁয়ত্রিশ বছরে শেখেননি জানিয়েছেন রবি শাস্ত্রী। সব মিলিয়ে আমার একটা দলের কোচ হতে পারা গর্বের ব্যাপার মনে করেন তিনি।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: