খেলা

  • associate partner
corona virus btn
corona virus btn
Loading

IPL 2020: বেল জ্বলে উঠেও পড়ল না, ভাগ্যের ভরসায় ম্যাচের হিরো হয়ে উঠলেন রাহুল তেওটিয়া!

IPL 2020: বেল জ্বলে উঠেও পড়ল না, ভাগ্যের ভরসায় ম্যাচের হিরো হয়ে উঠলেন রাহুল তেওটিয়া!

ম্যাচের অন্যতম আকর্ষণীয় ঘটনা হল রাহুল তেওটিয়ার স্টাম্পিং। না, আউট হননি তিনি। উইকেটের বেল জ্বলে উঠলেও বিপক্ষের ভাগ্যের আলো জ্বলেনি।

  • Share this:
দুবাই: পর পর হারের পর গতকাল জয়ের স্বাদ পেল রাজস্থান। আর এ বারেও ম্যাচের কাণ্ডারি রাহুল তেওটিয়া। পাঁচ উইকেট পড়ে যাওয়ার পরও বিপক্ষের হাত থেকে ম্যাচ ছিনিয়ে নিলেন তিনি। বাঁ-হাতি এই ব্যাটসম্যানের ২৮ বলে ৪৫ রানের ইনিংস গতকাল নজর কাড়ল। তবে ম্যাচের অন্যতম আকর্ষণীয় ঘটনা হল রাহুল তেওটিয়ার স্টাম্পিং। না, আউট হননি তিনি। উইকেটের বেল জ্বলে উঠলেও বিপক্ষের ভাগ্যের আলো জ্বলেনি। ঘটনার সূত্রপাত রশিদ খানের ১৮ নম্বর ওভারে। বিপক্ষের অন্যতম বিপজ্জনক বোলারকেও তোয়াক্কা করেননি রাজস্থানের তরুণ রাহুল তেওটিয়া। পর পর তিনটি বাউন্ডারি। কিন্তু ওভারের পাঁচ নম্বর বলকে ঘিরে যাবতীয় জল্পনার সূত্রপাত। তখনও ১৪ বলে ২৩ রান দরকার রাজস্থানের। রাহুল তেওটিয়ার ব্যাট পেরিয়ে বল গিয়ে উইকেট কিপার বেয়ারস্টোর প্যাডে লাগে। এ দিকে বল কোথায়, তা না দেখেই ক্রিজ ছেড়ে বেরিয়ে যান রাহুল। আর বেয়ারস্টোর প্যাড থেকে বল সরাসরি উইকেটে গিয়ে লাগে। বেল জ্বলে ওঠে। কিন্তু বেল জ্বলে উঠলেও, উইকেট থেকে পড়েনি। উইকেটের উপরের খাঁজেই আটকে থেকে যায়। আর নতুন জীবন পান রাহুল। বলা বাহুল্য ঈশ্বরকে ধন্যবাদ দিয়ে এর পর আরও একবার আশায় বুক বেঁধেছিল রাজস্থান। আর সেই আশা সার্থক হয়। প্লেয়ার অফ দ্য ম্যাচ হন রাহুল। ম্যাচটি জিতে যায় রাজস্থান। এই দৃশ্যটি দেখার পর কোচ থেকে শুরু করে কমেন্টের- কেউই নিজেদের চোখকে বিশ্বাস করতে পারছিলেন না। নেটিজেনদের কথায় কাল রাহুলের দিন ছিল। তাই হায়দরাবাদের আফসোস ছাড়া আর কিছুই করার নেই। গতকাল দুবাইয়ের মাটিতে ব্যাট করতে নেমে নির্ধারিত ২০ ওভারে ১৫৮ রান তোলে সানরাইজার্স হায়দরাবাদ। ওপেনিংয়ে ওয়ার্নারের ৩৮ বলে ৪৮ রান, পরে মণীশ পাণ্ডের ৪৪ বলে ৫৪ রানই সামলে নেয় হায়দরাবাদকে। পরে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা অবশ্য ভালো করতে পারেনি রাজস্থান রয়্যালস। ওপেনাররা চলেনি। অধিনায়ক স্মিথ ও সঞ্জু স্যামসনও অল্প রানে ফিরে যান। ৭৮ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে ম্যাচ যখন প্রায় হাতছাড়া, তখনই হাল ধরেন রাহুল তেওটিয়া ও রিয়ান পরাগ। দলের এই তরুণ খেলোয়াড়দের হাত ধরে এক বল বাকি থাকতেই ম্যাচ জিতে নেয় রাজস্থান।  রাহুল তেওটিয়া ২৮ বলে ৪৫ রান ও ২৬ বলে ৪২ রান করেন রিয়ান পরাগ। বলা বাহুল্য, এর আগে এক ওভারে পাঁচটি ছক্কা আর গতকাল আবারও একটি ম্যাচ উইনিং ইনিংসের জেরে রীতিমতো চর্চায় রয়েছেন রাহুল তেওটিয়া।
Published by: Elina Datta
First published: October 12, 2020, 10:51 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर