Prasidh Krishna : গ্লেন ম্যাকগ্রার কাছে কৃতজ্ঞ নতুন পেস তারকা

Prasidh Krishna : গ্লেন ম্যাকগ্রার কাছে কৃতজ্ঞ নতুন পেস তারকা

ম্যাকগ্রার কাছে কৃতজ্ঞ প্রসিদ্ধ

তাঁর বোলিং দেখে অনেকেরই অস্ট্রেলিয়ান ফাস্ট বোলারদের স্টাইলের সঙ্গে মিল লেগেছে

  • Share this:

    #সিডনি: ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে প্রথম একদিনের ম্যাচে দুর্দান্ত বল করে নজর কেড়েছেন প্রসিদ্ধ কৃষ্ণ। ভারতীয় বোলারদের মধ্যে অভিষেক ম্যাচে নতুন রেকর্ড তৈরি করেছেন ৫৪ রানে ৪ উইকেট তুলে নিয়ে। সবচেয়ে বড় কথা সিনিয়র দলে জীবনের প্রথম আন্তর্জাতিক ম্যাচে শুরুটা ভাল না হলেও দুর্দান্ত কামব্যাক করেন দ্বিতীয় স্পেলে। জনি বেয়ারস্টো এক ওভারে ২২ রান তুললেও সাহস হারাননি কর্নাটকের পেসার। রয়, বেন স্টোকস, বিলিংস, টম কারানদের ফিরিয়ে দেন একে একে। তরুণ ভারতীয় বোলারকে দেখে দারুণ খুশি গ্লেন ম্যাকগ্রা।

    প্রাক্তন অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি কয়েক বছর আগে নিজের হাতে তালিম দিয়েছিলেন কৃষ্ণকে। চেন্নাইয়ে MRF Pace Foundation ক্যাম্পে ২০১৭ সালে প্রথম দেখা দীর্ঘদেহী এই তরুণ ফাস্ট বোলারের সঙ্গে। তাছাড়াও আর এক অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তি পেসার জেফ থমসনের থেকেও ফাস্ট বোলিংয়ের টিপস পেয়েছিলেন প্রসিদ্ধ। ছাত্রের দুর্দান্ত পারফরমেন্স দেখার পর সোশ্যাল মিডিয়ায় প্রশংসা করেছেন ম্যাকগ্রা।

    পরিষ্কার জানিয়েছেন এই ছেলেটি ভারতের ভবিষ্যৎ পেস তারকা। তাঁর বোলিং দেখে অনেকেরই অস্ট্রেলিয়ান ফাস্ট বোলারদের স্টাইলের সঙ্গে মিল লেগেছে। সিম বা সুইং নয়, জোরের সঙ্গে পিচে বলটা ঠুকতে ভালোবাসেন। উচ্চতা ভাল বলে বাউন্স আদায় করে নিতে পারেন। কৃষ্ণ জানিয়েছেন গ্লেন ম্যাকগ্রার থেকে তিনি অনেক কিছু শিখেছেন। কোন উইকেটে কীরকম লাইন লেন্থ রাখা উচিত, ব্যাটসম্যানদের মানসিকতা কীভাবে বুঝতে হবে, ইত্যাদি বিভিন্ন বিষয়ে সম্যক ধারণা হয়েছে অস্ট্রেলিয়ান কিংবদন্তির হাত ধরেই। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ জিনিস যেটা শিখেছেন, তা হল কঠিন পরিস্থিতিতেও কীভাবে মাথা ঠান্ডা রাখতে হয়।

    ক্রিকেট ব্যাটসম্যানদের আধিপত্যের খেলা। বোলারদের পরিশ্রম এবং কাজ তুলনায় অনেক বেশি। তাছাড়া কলকাতা নাইট রাইডার্স দলের হয়েও আইপিএল খেলে অনেক কিছু শিখেছেন দাবি প্রসিদ্ধর। তবে জাতীয় দলে জায়গা ধরে রাখার সহজ নয়। এই মুহূর্তে ভারতীয় ক্রিকেটে ফাস্ট বোলারদের অভাব নেই। প্রসিদ্ধ অবশ্য আশাবাদী নিজের যোগ্যতায় দলে পাকা জায়গা করে নেবেন।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    লেটেস্ট খবর