corona virus btn
corona virus btn
Loading

ওভালে পাক বোলারদের কাছে আত্মসমর্পণ কোহলিদের, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির রং এবার সবুজ

ওভালে পাক বোলারদের কাছে আত্মসমর্পণ কোহলিদের, চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির রং এবার সবুজ
Photo Courtesy: ICC

পাকিস্তান : ৩৩৮/৪ ( ৫০ ওভার), ভারত: ১৫৮ ( ৩০.৩ ওভার)

  • Share this:
পাকিস্তান : ৩৩৮/৪ ( ৫০ ওভার)
ভারত: ১৫৮ ( ৩০.৩ ওভার)
১৮০ রানে জিতে আইসিসি চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি চ্যাম্পিয়ন পাকিস্তান 
#লন্ডন: ক্রিকেট খেলা এই জন্যই হয়তো তীব্র অনিশ্চয়তার খেলা ৷ যেখানে  র‌্যাঙ্ক তালিকায় শীর্ষে থাকা দলও যে কোনওদিন ধুলোয় গড়াগড়ি খেতে পারে ৷ খাতায়-কলমে কোনও দল যতোই এগিয়ে থাকুক না কেন, ম্যাচ শেষ হওয়া না পর্যন্ত কারোর জয়ই নিশ্চিত বলে ধরে নেওয়া সম্ভব নয় ৷ রবিবার ওভালে ঠিক তেমনটাই করে দেখালেন সরফরাজরা ৷ যে দলের টুর্নামেন্টে অংশ ( আইসিসি-র ওয়ান ডে র‌্যাঙ্কিংয়ে অষ্টম স্থানে ছিল পাকিস্তান)  নেওয়াটাই একসময় অনিশ্চিত ছিল ৷ সেই দলের হাতেই কী না শেষপর্যন্ত উঠল চ্যাম্পিয়নশিপ ট্রফি !
ভারতের কাছে বিশ্রী হেরেই চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির অভিযান শুরু করেছিল পাকিস্তান ৷ সরফরাজদের সেইসময় তুলোধনাও কিছু কম করেননি পাক সমর্থকরা ৷ কুশপুতুল পোড়ানোর পাশাপাশি পাক ক্রিকেটারদের শ্রাদ্ধের কাজও সেরে ফেলেছিলেন ক্ষুব্ধ সমর্থকরা ৷ আজ,রবিবার দেশবাসীর হাতে এবছরের সবচেয়ে বড় উপহারটা তুলে দিতে সফল সরফরাজরা ৷ ইমরান খানের নেতৃত্বে ১৯৯২ বিশ্বকাপ এবং ২০০৯ সালে ইংল্যান্ডের মাটিতে টি২০ বিশ্বকাপ চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর ফের কোনও আইসিসি টুর্নামেন্ট জয়ের স্বাদ পেল পাকিস্তান ৷ সেইসঙ্গে এবারই প্রথম চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি জিতল পাকিস্তান ৷
‘সুপার সানডে’ ফাইনালটা অবশ্য শুরু হয়েছিল ভারতের পক্ষেই ৷টস জিতে এদিন প্রথমে ফিল্ডিং নিতে বিশেষ ভাবেননি ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি ৷ কিন্তু এরপর থেকে গোটা ম্যাচে যে আর কোনও কিছুই ঠিকঠাক যাবে না গতবারের চ্যাম্পিয়নদের, তা হয়তো আশা করেননি অতি বড় পাক সমর্থকও ৷ কারণ এদিনের ফাইনাল ভারত শুধু হারেনি, পাকিস্তানের কাছে এককথায় আত্মসমর্পণ করেছে ৷ ফাইনালের মতো মহাগুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে বিরাটদের এমন জঘন্য পারফরম্যান্স একেবারেই কাঙ্খিত নয় ৷ ব্যাটিং-বোলিং-ফিল্ডিং, ক্রিকেটের এই তিন বিভাগেই ভারতকে এদিন টেক্কা দিতে সফল সরফরাজরা ৷
টস হেরে ব্যাট করতে নামার পর থেকেই এদিন আগাগোড়া চ্যাম্পিয়নের মতো খেলেছে পাকিস্তান ৷ ইনিংসের শুরুতে বুমরাহের বলে আউট হয়েও নো বলে বেঁচে যান পাকিস্তানের তরুণ প্রতিভা ফকর জামান ৷ এরপর আর ফিরে তাকাতে হয়নি তাঁকে ৷ ১০৬ বলে ১১৪ রানের একটা চোখধাঁধানো ইনিংস খেলেন পাক ওপেনার ৷ জীবনের প্রথম আন্তর্জাতিক সেঞ্চুরিরও স্বাদ পেলেন তিনি ৷ তাও আবার ভারতের বিরুদ্ধে মহাগুরুত্বপূর্ণ ফাইনালে ৷ ফকর জামানের পাশাপাশি বড় রান পেয়েছেন আজহার আলি (৫৯), বাবর আজম (৪৭) এবং অভিজ্ঞ মহম্মদ হাফিজও (৫৭ নট আউট) ৷
৩৩৯ রানের টার্গেট খুব সহজ কাজ না হলেও টি২০-র যুগে এই রান তাড়া করাটা এখন অসম্ভব কিছু নয় ৷ কিন্তু বাঁ-হাতি পাক পেসার মহম্মদ আমেরের প্রথম স্পেলেই সব শেষ হয়ে যায় ভারতের ৷ একে একে প্যাভিলিয়ানে ফেরেন রোহিত শর্মা (০), অধিনায়ক বিরাট কোহলি (৫) এবং শিখর ধাওয়ান (২১)৷ এরপর যুবরাজ (২২) কিছুটা চেষ্টা করলেও বেশি দূর এগোতে পারেননি ৷ চূড়ান্ত ব্যর্থ ধোনি (৪) এবং কেদার যাদবও (৯) ৷ এই ম্যাচ থেকে ভারতের প্রাপ্তি শুধু একটাই, সেটা প্রথমবারের জন্য ইংল্যান্ডের মাটিতে খেলা হার্দিক পাণ্ডিয়ার ব্যাটিং ৷ মাত্র ৪৩ বলে ৭৬ করে এদিন বিপক্ষকে একসময় চাপে ফেলে দিয়েছিলেন ৷ কিন্তু তিনি রান আউট হতেই সব আশা শেষ হয়ে যায় ভারতের ৷১৮০ রানে শেষপর্যন্ত ম্যাচ জিতে নেয় পাকিস্তান ৷ ম্যাচের সেরা নির্বাচিত হয়েছেন ফকর জামান ৷ পাশাপাশি টুর্নামেন্ট সেরার পুরস্কার পেয়েছেন পাক পেসার হাসান আলি ৷
Photo: ICC Photo: ICC
First published: June 18, 2017, 11:03 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर