corona virus btn
corona virus btn
Loading

ক্রীড়াক্ষেত্রে কেমন গেল ২০১৭ ? ফিরে দেখা যাক

ক্রীড়াক্ষেত্রে কেমন গেল ২০১৭ ? ফিরে দেখা যাক
Representational Image

এবছরটা ভারতীয় খেলাধূলার জন্য কেমন গেল ? ফিরে দেখা যাক একবার ৷

  • Share this:

দেখতে দেখতে আরও একটা বছর কেটে গেল ৷ ২০১৭ শেষে এবার ২০১৮-র অপেক্ষা ৷ এবছরটা ভারতীয় খেলাধূলার জন্য কেমন গেল ? ফিরে দেখা যাক একবার ৷

অপরাজিত বিজেন্দর

পেশাদার কেরিয়ারে এখনও অপরাজিত। জিতে ফেলেছেন জোড়া খেতাব। একটা এশিয়া প্যাসিফিক মিডলওয়েট। আরেকটা WBO ওরিয়েন্টাল সুপার মিডলওয়েট। ২০১৭-তেও বাউটে বিজেন্দর সিংয়ের রেকর্ডটা নজরকাড়া। অগাস্টেই হারিয়েছেন চিনের মইমইতিয়ালিকে। ৯টার মধ্যে ৭টা জয় বিপক্ষকে রিংয়ে নক-আউট করে। আর বছর শেষে ঘানার আমুজুকে হারিয়ে পেশাদার কেরিয়ারের দশম বাউট জিতে নিলেন পঞ্জাব দা পুত্তর। বলিউডে অভিনয় থেকে মুম্বইয়ে নিজের জিম ওপেনিং। সব দিক থেকেই বিজেন্দর এখন ভারতীয় বক্সিংয়ের মুখ।

62225125

হকিতে মিশ্র বছর

৬-এ শুরু। ৬-য় শেষ। বছরটা খুব একটা খারাপ কাটল না ভারতীয় হকির। আজলান শাহ-তে ৩ নম্বর। বিশ্ব হকি লিগেও লড়াই করে ব্রোঞ্জ। আর দাপটে এশিয়া কাপ জিতে মহাদেশের সেরা। সঙ্গে সরাসরি অলিম্পিকের যোগ্যতা অর্জন। পাশেই রাখতে হবে বছরভর তিনবার পাকিস্তান-বধ। যার মধ্যে একটা জয় বিপক্ষকে রেকর্ডভাঙা ৭ গোল দিয়ে। বছরটা খারাপ যায়নি ভারতীয় হকির। ছেলেদের কীর্তি ছুঁয়ে মেয়েরাও এশিয়া কাপের সেরা। তবে মাঠের বাইরে কোচ বদল নিয়েও কম নাটক হয়নি। এছাড়া বছরের উল্লেখযোগ্য হেডলাইন জাতীয় দল থেকে সর্দার সিংয়ের বাদ পড়া।

1484988884_indian-junior-hockey-team-hockey

নতুন তারা সায়নী, মেহুলি

শুধু চাকদহের ঝুলন নয়। ২০১৭-তে বাংলা বুক বাজিয়ে বলবে আরও ২ মেয়ের গল্প। ঝুলন স্বপ্ন ছুঁতে পারেননি। কিন্তু ইংলিশ চ্যানেল পেরিয়ে স্বপ্ন ছুঁলেন সায়নী দাস। যে কীর্তি তাঁকে এক মঞ্চে বসিয়ে দিল মিহির সেন, আরতি সেন-দের সঙ্গে। সময় নিলেন ১৪ ঘণ্টা ৮ মিনিটে। কালনার বারুইপাড়ার বাড়িতে হাত-পা ছোড়া দিয়ে শুরু। পুরীর সমুদ্রে ট্রেনিং। সব বাধা পেরিয়ে স্বপ্নপূরণ। বছরটা স্বপ্নের মত কেটেছে বৈদ্যবাটির শ্যুটার মেহুলি ঘোষের। জুনিয়রে সফল হয়ে চেক প্রজাতন্ত্রে প্রথম আন্তর্জাতিক মিট। ভিসা জট পেরিয়ে প্লাজেন যাত্রা। জেতা হয়নি। কিন্তু সাইতামায় এয়ান গানের আসরে এশিয়া সেরা হয়েছেন জয়দীপের ছাত্রী। রেকর্ড গড়েছেন জাতীয় মিটে। মাত্র ১৭-তেই সিনিয়রে সাফল্য। ২০১৮-এ মেহুলির পাখির চোখ যুব অলিম্পিকে।

DC1j8Q4VoAA2y2v

সুপার শ্রীকান্ত

অলিম্পিকে পদক জিতে ভারতীয় ব্যাডমিন্টনের মুখ ছিলেন দেশের কন্যারাই। কিন্তু এবছর ধারাবাহিকতায় সিন্ধু, সাইনাদের পেছনে ফেলে উঠে এলেন কিদাম্বি শ্রীকান্ত। টেক্কা দিয়েছেন পারুপল্লি কাশ্যপ, অজয় জয়রাম, সাই প্রণীতদের। গোপীর ছাত্রও হায়দরাবাদের ছেলে। নিজামের শহরই এখন দেশে শাটলারদের পীঠস্থান। ফরাসি ওপেন জিতে শুরু। তারপর একে একে অস্ট্রেলিয়া, ডেনমার্ক, ইন্দোনেশিয়া। সুপার সিরিজে ধারাবাহিক সাফল্যের পর কিদাম্বির ডাকনামই হয়ে গেছে সুপার শ্রীকান্ত। কেরিয়ারে প্রথমবার শীর্ষস্থানের লড়াইয়ে ঢুকে পড়েছেন। পদ্মশ্রীর জন্য ক্রীড়ামন্ত্রকের সুপারিশ পেয়েছেন। সবমিলিয়ে বছরটাই শ্রীকান্তের।

Badminton - Danisa Denmark Open

মিতালিদের পুনর্জন্ম

১২ বছর পর আবার স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিল ১২৫ কোটির দেশ। সেই সাহসটা জুগিয়েছিলেন চাকদহের ঝুলন। জয়পুরের মিতালি রাজ। পঞ্জাবের হরমনপ্রীত। সেইসঙ্গে আরও ৮ বাঘিনী। লর্ডসে মহিলা বিশ্বকাপের ফাইনাল। বিরাট, ধোনিদের লার্জার দ্যান লাইফ ইমেজের মাঝে কোথাও নিজেদের অস্তিত্বটা জানান দেওয়া। তাগিদটা একটু বেশিই ছিল মিতালি, ঝুলনদের। আরেকটা বিশ্বকাপ খেলা হবে কি না, জানা নেই। তাই জার্সি তুলে রাখার আগে আরেকবার স্বপ্নপূরণের চেষ্টা। কিন্তু তীরে এসে ডুবল তরী। এবারও খালি হাতেই ফিরতে হল। ২০০৫-এ লর্ডসই কাঁদিয়েছিল। ১২ বছর পরেও। কিন্তু ততদিনে চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দেওয়া গিয়েছে বোর্ডকে। আর দুয়োরানি নয়। ২০১৭ দেশে মেয়েদের ক্রিকেটে রেনেসাঁর বছর।

india-women759

বিদায় বোল্ট

আর দৌড়বেন না। ট্র্যাক দেখবে না বিদ্যুতের ঝলক। গবেষণা হবে না অলিম্পিক মেডেলের সংখ্যা নিয়ে। থেমে গেলেন উসেইন বোল্ট। তবে শেষ স্প্রিন্টটা রূপকথার হল না। লন্ডনে গ্যাটলিনের কাছে হেরে বিশ্বসেরা হয়ে শেষ করা হল না উসেইন বোল্টের। শেষ ১০০ মিটারে তৃতীয় হয়ে ব্রোঞ্জ। সময় নিলেন ৯.৯৫ সেকেন্ড। রিলেতেও অ্যান্টি ক্লাইম্যাক্স। মোক্ষম সময়ে স্বপ্ন শেষ করে দিল হ্যামস্ট্রিংয়ের বেয়াড়া চোট। ১০০ মিটারে বিশ্বরেকর্ডটা এখনও তারই নামে। অলিম্পিকে তাঁর রেকর্ডও হয়তো মিথ হয়েই থেকে যাবে। শুধু জীবনের শেষ রেস মহামানব থেকে রক্তমাংসের করে দিয়ে গেল জামাইকার কিংবদন্তি স্প্রিন্টারকে।

15th IAAF World Athletics Championships Beijing 2015 - Day Six

বছরভর বিরাট-রাজ

২২ গজে বছরটাই কোহলির ভারতের। যার মধ্যে অধিনায়ক ৩ ফর্ম্যাট মিলিয়ে নিজে খেলেছেন ৪৬টা ম্যাচ। বছরভর ২৮১৮ রানে সেরা পারফর্মার তিনিই। সঙ্গে রয়েছে ১১টা সেঞ্চুরি। এমন রকেট গতিতে এগিয়েছেন যে সচিনের সেঞ্চুরির সেঞ্চুরিও আর খুব একটা নিরাপদ মনে হচ্ছে না। দলের গ্রাফেও ধারাবাহিকতা। টানা ৮ সিরিজে অপরাজিত বিরাটের সৈন্যরা। টেস্টে শীর্ষে। ওয়ান-ডেতে সিংহাসনের খুব কাছে। একটা চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ফাইনালে হার ছাড়া টিম ইন্ডিয়ার ২০১৭ কিন্তু চমৎকার কেটেছে। উত্থান ঘটেছে হার্দিক পাণ্ডিয়ার মত নতুন তারকার। সীমিত ওভারে শিখর আর টেস্টে ভরসা দিয়েছে পূজারার চওড়া ব্যাট। আর ওয়ান-ডে কেরিয়ারের তৃতীয় ডাবল সেঞ্চুরি রোহিত শর্মাকে পৌঁছে দিয়েছে রেকর্ডবুকে।

c34075c6c8abae7b0900b97aba73bb44

বুড়োদের বছর

একজন ছত্রিশ প্লাস। আরেকজন একত্রিশ পেরিয়েছেন। পাতি বাংলায় বুড়ো। এই বয়সে পেশাদার টেনিস! তাও আবার হাঁটুর বয়সীদের টেক্কা দিয়ে রাজত্ব। গল্প নয়। সিরিয়াস বাস্তবে এটাই করে দেখালেন রাফা-রজার। মারে ফর্ম হারালেন আর জকোভিচ ফোকাস। সেই সুযোগে সারা বছরের চারটে গ্র্যান্ড স্ল্যাম দিব্যি ভাগাভাগি করে নিলেন দুই বৃদ্ধ। পয়া প্যারিসে লা ডেসিমা। যুক্তরাষ্ট্র ওপেনে ১৬-তম গ্র্যান্ড স্ল্যাম জিতে পয়লা নম্বরে বছর শেষ করলেন নাদাল। পিছিয়ে নেই ফেডেরারও। অস্ট্রেলিয়ান জিতে দুরন্ত শুরু। তারপর উইম্বলডনে ভিন্টেজ টাচ। ২০১৭ ফেডেরারকে পৌঁছে দিল উনিশতম গ্র্যান্ড স্ল্যামের মালিকানায়। শুধু সংখ্যায় এই গ্রহে সবচেয়ে বেশি নয়। অনুরাগীদের আদরেও সবচেয়ে এগিয়ে রজার। টেনিসে তাই নিঃসন্দেহেই এটা বুড়োদের বছর।

federer-nadal-1617965428

বিরুষ্কার বিয়ে

৪ বছর আগের এক শ্যাম্পুর বিজ্ঞাপন। শ্যুটিং ফ্লোরে আলাপের পর থেকেই হেডলাইন তাড়া করেছে কোহলি-অনুষ্কাকে। ভারতীয় মিডিয়ায় জন্ম নিয়েছে এক নতুন শব্দ... বিরুষ্কা। বিরাট হিট মানে খবরের শিরোনামে অনুষ্কাকে উড়ন্ত চুমু। বিরাট ফ্লপ মানে সোশ্যাল জনরোষ নায়িকাকে ঘিরে। কী আশ্চর্য! তবু ঘাত-প্রতিঘাত পেরিয়ে এগিয়েছে সম্পর্ক। মাঝে কয়েকমাসের ব্রেক-আপ গুঞ্জনটুকু ছাড়া। তবে এবছর বহু আগে থেকেই জল্পনা ছিল চার হাত এক হওয়ার। অবশেষে যা হল ডিসেম্বরের ১১ তারিখে। শেষ বাজারে বিয়ের তারিখের নাগাল পেলেও ডাহা ফ্লপ ভারতীয় পাপারাৎজিরা। ডেস্টনেশন বিয়ের জন্য জুটি উড়ে গেলেন ইতালিতে। মিলানের অদূরে তাস্কানির বর্গো ফিনোচ্চিওতে শাদিতে ব্যান্ড-বাজা সবই ছিল। একদম হিন্দি ফিল্মের স্টাইলে সগাই-মেহেন্দি-সঙ্গীত। আর ছিল গোপনীয়তা। যে জুটি সারাবছর শিরোনামে থাকেন, নিজেদের বিয়েটা তাঁরা এক্সক্লুসিভ রেখে দিলেন নিজস্ব স্টাইলে। খবর বা ছবি, সেটুকুই বাইরে এল যেটুকু তাঁরা প্রকাশ্যে আনলেন। বছর শেষে খেলার সেরা ঘটনা বিরুষ্কার বিয়ে।

virat-anushka-wedding

First published: December 30, 2017, 7:58 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर