ইংল্যান্ডকে গিলে ফেলবে ভারতীয় স্পিনাররা ,বাজি ধরলেন মন্টি

অশ্বিন,জাদেজাদের হাতে ব্রিটিশদের শোচনীয় অবস্থা দেখছেন মন্টি

অগস্ট-সেপ্টেম্বর মাসে বিলেতে গরম পড়ে যায়। ফলে পিচ হয়ে যায় শুকনো। সবাই জানে শুকনো পিচে ভারতের স্পিন বাহিনী কতটা ভয়ঙ্কর হয়ে যায় বলছেন মন্টি

  • Share this:

    #ম্যানচেস্টার: ভারতের মাটিতে সেই ২০১২ সালে ইংল্যান্ডের টেস্ট সিরিজ জয়ের অন্যতম কারিগর ছিলেন তিনি। সচিন তেন্ডুলকর এবং রাহুল দ্রাবিড় সমৃদ্ধ ভারতীয় ব্যাটিংকে ঘোল খাইয়ে ছেড়েছিলেন তাঁর বাঁহাতি স্পিনের জাদুতে। মোট ১৭ উইকেট দখল করেছিলেন মন্টি পানেসার। এবার ইংল্যান্ডের সর্দার একটা ভবিষ্যৎবাণী করলেন। কী হতে চলেছে ইংল্যান্ডের মাটিতে ভারতের পাঁচ ম্যাচের টেস্ট সিরিজের ফল? ঘরের মাঠে ইংল্যান্ড যতই শক্তিশালী হোক, আসন্ন টেস্ট সিরিজ ভারত জিতবে। এমনটাই মনে করেন ভারতীয় বংশোদ্ভূত ইংরেজ স্পিনার মন্টি পানেসার।

    তাঁর মতে অগস্ট-সেপ্টেম্বর মাসে বিলেতে গরম পড়ে যায়। ফলে পিচ হয়ে যায় শুকনো। সবাই জানে শুকনো পিচে ভারতের স্পিন বাহিনী কতটা ভয়ঙ্কর হয়ে যায়। তাই জো রুটের দলের বিরুদ্ধে সিরিজ শুরু হওয়ার অনেক আগে ভবিষ্যদ্বাণী করলেন এই বাঁহাতি স্পিনার। জানিয়ে দিলেন আসন্ন সিরিজে ইংল্যান্ডকে ‘চুনকাম’ করবে বিরাট কোহলির ভারত। কয়েক মাস আগে ইংল্যান্ডকে ঘরের মাঠে ৩-১ ব্যবধানে হারিয়েছিল টিম ইন্ডিয়া।

    তবে বিলেতে ভারত সেই ২০০৭ সালে শেষবার টেস্ট সিরিজ জিতেছিল। যদিও মন্টি বেশ জোর দিয়ে বলেন, “গত কয়েকবার ইংল্যান্ড ঘরের মাঠে ভারতকে হারিয়ে দিলেও এবার কিন্তু পারবে না। কারণ অগস্ট-সেপ্টেম্বর মাসে এখানে গরম পড়ে যায়। ফলে পিচ অনেকটা শুকনো হয়ে যায়। পিচ শুকনো হয়ে ভেঙে গেলে ভারতীয় স্পিনাররা কতটা ভয়ঙ্কর হতে পারে সেটা আমরা সবাই জানি। তাই আমার মতে স্পিনারদের জন্যই ভারত এবার ইংল্যান্ডকে ৫-০ হারাবে।”

    গত অস্ট্রেলিয়া সফরের পর ঘরের মাঠে ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দারুণ ছন্দে ছিলেন রবিচন্দ্রন অশ্বিন। তাঁকে সঙ্গত দেওয়ার জন্য রয়েছেন রবীন্দ্র জাডেজা, অক্ষর পটেল এবং তরুণ ওয়াশিংটন সুন্দর। সেই তুলনায় জো রুটের দলের স্পিন আক্রমণ অনেক ভোঁতা। তাছাড়া সেই সময় ইংল্যান্ডের পিচ উপমহাদেশের মতো আচরণ করতে পারে। তাই এমন ভবিষ্যদ্বাণী করলেন মন্টি। মন্টির কথা সঠিক কিনা সেটা সময় উত্তর দেবে। কিন্তু ইংল্যান্ডের পিচকে হাতের তালুর মতো চেনেন যে স্পিনার, তাঁর ক্রিকেট বুদ্ধি ভুল কথা বলবে না।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: