সিডনিতে জাতীয় সঙ্গীতের সময় কেন অঝোরে কাঁদলেন সিরাজ?

সিডনিতে জাতীয় সঙ্গীতের সময় কেন অঝোরে কাঁদলেন সিরাজ?

সিডনিতে জাতীয় সঙ্গীতের সময় কেন অঝোরে কাঁদলেন সিরাজ?

দুই দল যখন জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার জন্য দাঁড়িয়ে,তখন জনগণমন গাওয়ার সময় চোখে জল লক্ষ্য করা গেল মহম্মদ সিরাজের। পড়ে দুই হাত দিয়ে সেই জল মুছতে দেখা গেল ভারতীয় পেসারকে।

  • Share this:

    #সিডনিঃ প্রথম টেস্ট অভিষেকে মেলবোর্নে নজর কেড়েছিলেন পাঁচ উইকেট তুলে নিয়ে। ভারত এবং অস্ট্রেলিয়ার কিংবদন্তি ক্রিকেটারদের প্রশংসা কুড়িয়েছিলেন মহম্মদ সিরাজ।

    বৃহস্পতিবার থেকে সিডনিতে শুরু হয়েছে সিরিজের তৃতীয় টেস্ট৷ দুই দল যখন প্রথামাফিক জাতীয় সঙ্গীত গাওয়ার জন্য দাঁড়িয়ে, তখন জন গণ মন গাওয়ার সময় অঝোরে কাঁদছিলেন সিরাজ। পাশে দাঁড়ানো সতীর্থরা পিঠে ভরসার হাত রাখলেন। কিন্তু এদিন কেন কাঁদলেন সিরাজ?

    সিরাজের দরিদ্র বাবার স্বপ্ন দেখতেন তাঁর ছেলে একদিন দেশের হয়ে খেলবে। সেই স্বপ্ন সত্যি করতেই বাবার মৃত্যুর খবর শুনেও দেশে ফেরেননি তিনি। দেশের হয়ে খেলাটা যে কোনও ক্রিকেটারের কাছেই স্বপ্ন। সেই স্বপ্নের রাজপথে এগিয়ে চলেছেন সিরাজ। আর আজ বাবার জন্য তাঁর মন কেমন করে উঠল৷ সিরাজ বলছেন, "যখন জাতীয় সঙ্গীত বাজছিল তখন খুব বাবার কথা মনে পড়ছিল৷ খুব আবেগপ্রবণ হয়ে পড়ি৷ বাবা দেখে যেতে পারলেন না, আমার টেস্ট অভিষেক! থাকলে আজ দেখতেন৷"

    তৃতীয় টেস্টে উমেশ যাদবও নেই চোটের জন্য। যশপ্রীত বুমরাহর সঙ্গে এই মুহূর্তে ভারতের পেস অ্যাটাকের দায়িত্ব সিরাজের হাতে। বৃষ্টির জন্য খেলা বন্ধ হওয়ার আগে ৩.১ ওভারে ১৪ রান দিয়ে তুলে নিয়েছেন ডেভিড ওয়ার্নারের বহুমূল্য উইকেট। করে সোশ্যাল মিডিয়ায় অনেকে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন তরুণ সিরাজকে। প্রাক্তন ক্রিকেটার ওয়াসিম জাফর লিখেছেন,"মাঠে যদি কোন দর্শক না থাকে উৎসাহিত করার জন্য তাতে হতাশ হওয়ার কিছু নেই। মনে রেখ দেশের হয়ে খেলা সবচেয়ে বড় গর্ব। একজন কিংবদন্তি বলেছিলেন দর্শকদের জন্য নয়, দেশের জন্য খেল "।

    আসলে এই বক্তব্যটি মহেন্দ্র সিং ধোনির। সিরাজ শামির জায়গায় সুযোগ পেয়ে নিজেকে উজাড় করে দিচ্ছেন। বলে হয়তো খুব গতি নেই। কিন্তু লাইন, লেন্থ একদম সঠিক। পাশাপাশি উইকেট তুলে নেওয়ার ক্ষমতা রাখেন। হয়তো আজ বাবার কথা খুব মনে পড়ছিল তাঁর। ভারতের জার্সি গায়ে টেস্ট খেলেছেন ছেলে। বাবা বেঁচে থাকলে নিশ্চয় গর্ব বোধ করতেন। নিঃসন্দেহে সিডনিতেও বল হাতে ভারতকে জেতাতে প্রাণপাত করে দেবেন সিরাজ।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: