Man of the match: শেষ টেস্টেও এরকম উইকেট পছন্দ অক্ষরের

Man of the match: শেষ টেস্টেও এরকম উইকেট পছন্দ অক্ষরের

ঘরের মাঠে সুপারহিট অক্ষর প্যাটেল

অক্ষর জানিয়েছেন জীবনের দ্বিতীয় টেস্টে ম্যাচ সেরার পুরস্কার নিঃসন্দেহে সাহস বাড়িয়ে দেবে

  • Share this:

    #আমেদাবাদ: ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে চেন্নাইয়ে প্রথম টেস্ট খেলা হয়নি শেষ মুহূর্তে হাঁটুতে চোট পেয়ে। দ্বিতীয় টেস্টে প্রথমবারের জন্য গায়ে চাপান দেশের জার্সি। তুলে নিয়েছিলেন পাঁচ উইকেট। আমেদাবাদ টেস্টে প্রথম ইনিংসে ছয়টি এবং দ্বিতীয় ইনিংসে পাঁচটি উইকেট তার পকেটে। ইংল্যান্ডের মৃত্যুদূত হয়ে দেখা দিয়েছেন আমেদাবাদের মাঠে। এদিন ইংল্যান্ডের দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাটিং শুরুর প্রথম বলেই জ্যাক ক্রলির উইকেট ছিটকে দিলেন। এরপর বেয়ারস্টো, সিবলী, রুট, ফোক্স কেউ দাঁড়াতে পারেননি এই দীর্ঘদেহী বাঁহাতি স্পিনারের বিরুদ্ধে। কোন বলটা পড়ে ভেতরে ঢুকবে, কোনটা সোজা আছড়ে পড়বে, ধরতেই পারলেন না ইংরেজ ব্যাটসম্যানরা।

    অক্ষরের সবচেয়ে বড় প্লাস পয়েন্ট ধারাবাহিকতা। টানা একই জায়গায় বল রেখে গেলেন। গতির পরিবর্তন ঘটালেন। এতেই কুপোকাত ব্রিটিশ সিংহ। স্বাভাবিকভাবেই ম্যাচের সেরা। গুজরাটের ক্রিকেটার হওয়ার সুবাদে নিজের ঘরের মাঠে এই পুরস্কার তরুণ স্পিনারের কাছে স্বপ্নের মত। হাসিমুখে জানিয়ে দিলেন তিনি চান শেষ টেস্ট ম্যাচে উইকেট যেন এরকম থাকে। ব্যাট হাতে রান করতে দক্ষ তিনি। যদিও ব্যাট হাতে সেভাবে নজর কাড়তে পারেননি, কিন্তু সেটা নিয়ে চিন্তিত নন অক্ষর। দলে তার জায়গা হয়েছে বিশেষজ্ঞ স্পিনার হিসেবে। সেটাই বজায় রাখতে চান। তাই যতক্ষণ প্রয়োজনীয় উইকেট তুলে দলকে সাহায্য করতে পারছেন ততক্ষণ তিনি খুশি।

    জানিয়ে দিলেন খুব একটা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করতে পছন্দ করেন না। তার আসল শক্তি উইকেট টু উইকেট বল করা। ব্যাটসম্যানকে কাট শট খেলার জন্য জায়গা না দেওয়া। আধুনিক টেস্ট ক্রিকেটে ব্যাটসম্যান রান না পেলে সুইপ বা মাথার উপর দিয়ে সোজা শট মারতে যান। এই জায়গাটাই কাজে লাগাতে পছন্দ করেন অক্ষর। কারণ তিনি জানেন ব্যাটসম্যান ভুল করতে বাধ্য। উইকেটের পেছনে ঋষভ পন্থ তাকে ওয়াসিম ভাই বলে সম্বোধন করেন মাঝেমধ্যেই। কারণ ব্যাখ্যা করতে গিয়ে তিনি জানিয়েছেন আর্ম বল করার ক্ষেত্রে কিংবদন্তি পাক পেসার ওয়াসিম আক্রমের সঙ্গে তার মিল প্রথমে চোখে পড়েছিল অজিঙ্কা রাহানের। সেখান থেকেই পন্থ ধরে নিয়েছে কথাটা। যদিও ব্যাপারটা মজা করেই বলা হয়।

    অক্ষর জানিয়েছেন জীবনের দ্বিতীয় টেস্টে ম্যাচ সেরার পুরস্কার নিঃসন্দেহে সাহস বাড়িয়ে দেবে। ব্যাট হাতেও দলকে সাহায্য করার চেষ্টা করবেন জানিয়েছেন তিনি। ম্যাচ শেষে অধিনায়ক বিরাট কোহলিও প্রশংসা করে দিলেন তরুন স্পিনারের। উচ্চতা এবং গতি পরিবর্তন তার অন্যতম প্রধান অস্ত্র জানিয়েছেন বিরাট। রবীন্দ্র জাদেজার পর আরও এক গুজরাটের বাঁহাতি স্পিনার দলকে জেতানোর ক্ষেত্রে বড় ভূমিকা নিয়েছেন জানিয়েছেন ক্যাপ্টেন কোহলি।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: