বুড়ো হাড়ে কোহলিদের ভেলকি দেখাতে তৈরি অ্যান্ডারসন

ভারতের বিরুদ্ধে মাঠে নামার জন্য মুখিয়ে আছেন জিমি

ইংল্যান্ডের জোরে বোলার চাইছেন ঘরের মাঠে পরের সাতটি টেস্টেই খেলতে।সাম্প্রতিককালে ইংল্যান্ড ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে খেলানোর নীতি চালু করেছে। ফলে অ্যান্ডারসন কোনও সিরিজের প্রতি ম্যাচে খেলার সুযোগ পান না

  • Share this:

    #লন্ডন: ইংল্যান্ডের তো বটেই, শেষ কয়েক বছরে বিশ্ব ক্রিকেটের সেরা টেস্ট ফাস্ট বোলার তাঁকেই ধরা হয়। ঠান্ডা মাথা, নিখুঁত লাইন, লেন্থ তো আছেই। সামনে থেকে বল হাতে নেতৃত্ব দেওয়ার ক্ষমতা তাঁর অসাধারণ। জেমস অ্যান্ডারসন এখনও ইংল্যান্ড টেস্ট দলের অন্যতম সেরা সম্পদ। নিজের দিনে বল হাতে ম্যাচের রঙ বদলে দিতে পারেন। আগামী জুলাইয়ে ৩৯-এ পা দেবেন তিনি। কিন্তু বয়সের ভার তাঁকে এতটুকু নুইয়ে দেয়নি। বরং নতুন উত্তেজনায় ফুটছেন জেমস অ্যান্ডারসন।

    ইংল্যান্ডের জোরে বোলার চাইছেন ঘরের মাঠে পরের সাতটি টেস্টেই খেলতে।সাম্প্রতিককালে ইংল্যান্ড ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে খেলানোর নীতি চালু করেছে। ফলে অ্যান্ডারসন কোনও সিরিজের প্রতি ম্যাচে খেলার সুযোগ পান না। তিনি না খেললে সেই জায়গা নেন স্টুয়ার্ট ব্রড। তবে গত বছরের শুরুতে ভারতের বিরুদ্ধে একটি ম্যাচে দু’জনকেই একসঙ্গে খেলতে দেখা গিয়েছিল।

    এক ওয়েবসাইটে অ্যান্ডারসন বলেছেন, “আমি প্রতিটি টেস্টেই খেলতে চাই। ভারতের বিরুদ্ধে পাঁচটা আর নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে দুটো টেস্ট রয়েছে। তারপরে অ্যাশেজ। গ্রীষ্মকালটা ঘরের মাঠে ভাল ভাবে শুরু করতে চাই। যদি শক্তিশালী দল নামাতে হয় তাহলে মনে হয় আমাদের দু’জনেরই খেলা উচিত। নতুন বল ওর সঙ্গে ভাগ করে নিতে চাই।”

    তবে সেই স্বপ্ন যে সফল না-ও হতে পারে সেটাও ধরা পড়েছে অ্যান্ডারসনের কথায়। তাঁর আশঙ্কা, ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজে হয়তো খেলোয়াড়দের আরও বেশি ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে খেলানো হতে পারে। বলেছেন, “গত ১২ মাস আমরা বলয়ে থেকে খেলেছি। এবার অনেক খোলা মনে খেলতে পারব। কিন্তু এত কম সময়ের মধ্যে ম্যাচগুলো রয়েছে যে বিশ্রাম দেওয়া ছাড়া উপায় নেই।”

    অ্যান্ডারসন জানিয়েছেন নিজেকে ফিট রাখতে পারাটাই তাঁকে দীর্ঘদিন জাতীয় দলের হয়ে খেলার সুযোগ করে দিয়েছে। এই মুহূর্তে টেস্ট ক্রিকেটে একটা অনন্য কীর্তির সামনে দাঁড়িয়ে আছেন। ৬১৪ উইকেট রয়েছে তাঁর দখলে। অনিল কুম্বল র ৬১৯ উইকেট স্পর্শ করতে আর মাত্র ৫ উইকেটের ব্যবধান। নিউজিল্যান্ডের বিরুদ্ধে দুটো টেস্টে সুযোগ পেলে এই রেকর্ড স্পর্শ করতে চাইবেন তিনি। তবে মুখে জানিয়ে দিলেন লক্ষ্য একটাই। নিউজিল্যান্ড এবং ভারত দুটো দলের বিপক্ষেই সিরিজ জয়।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: