কলকাতায় দাদার বাড়ির কাছেই থাকে বিরাটের পছন্দের খুদে ক্রিকেটার!

কলকাতায় দাদার বাড়ির কাছেই থাকে বিরাটের পছন্দের খুদে ক্রিকেটার!
  • Share this:

EERON ROY BARMAN

#কলকাতা: যে বিস্ময় বালককে নিয়ে নেটদুনিয়ায় হইচই, আদপে সে এই কলকাতারই ছেলে। মাইকেল ভন, কেভিন পিটারসন থেকে বিরাট কোহলি এই বয়সেই একগুচ্ছ সেলেব ফ্যান জুটিয়ে ফেলেছেন বেহালার শেখ শাহিদ। আপাতত বছর তিনেকের খুদের নিখুঁত ব্যাটিং স্টেপেই মজে নেট দুনিয়া। কয়েক মাস অপেক্ষার পর অবশেষে পরিচয় জানা গেল ডাইপার ক্রিকেটারের। বেহালার মুচিপাড়া বাসিন্দা শেখ সামশেরের ছেলে শেখ শাহিদ। এখন বয়স ৩ বছর ২ মাস।

৭-৮ মাস আগে সোশ্যাল মিডিয়া ছেলের ব্যাটিং করার ভিডিও আপলোড করেন সামশের। সেখানে দেখা যায় ডাইপার পড়ে ডান হাতে নিখুঁত ব্যাটিং করছেন এক খুদে। তখন শাহিদের বয়স ছিল মাত্র আড়াই বছর। তখন থেকেই ব্যাট হাতে সাবলীল ওই খুদে। নিখুঁত স্ট্রেট ড্রাইভ, কভার ড্রাইভ, শ্যাডো প্র্যাকটিস। এখনও পড়াশোনায় হাতেখড়ি না হওয়া ছেলেটার ব্যাট হাতে হাতেখড়ি হয়ে গেছে ওই দু- আড়াই বছর বয়সেই। এই ভিডিও দেখে মুগ্ধ বিশ্বের তাবড় তাবড় ক্রিকেটাররা। ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি।ck

প্রথমে মাইকেল ভন, ব্র্যাড হগরা নাম না জানা এই ছেলেটির ভিডিও নিজেদের সোশ্যাল মিডিয়ার পেজে আপলোড করেন। গত সপ্তাহে ইংল্যান্ডের প্রাক্তন ক্রিকেটার কেভিন পিটারসেন ইনস্টাগ্রামে ভিডিওটি আপলোড করে বিরাটের উদ্দেশ্যে লেখেন,এই ক্রিকেটার কে কোহলি দলে নেবেন কিনা। খুদের ব্যাটিং ভিডিওটি দেখে মুগ্ধ বিরাট জানতে চান ছেলেটা কোথাকার। তারপরই খোঁজ পরে ছেলেটির সম্বন্ধে। অনেক খোঁজাখুঁজির পর জানা যায় ছেলেটি কলকাতার, তাও আবার প্রাক্তন ভারত অধিনায়ক সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় বাড়ির থেকে কিছুটা দূরত্বেই থাকেন শেখ শাহিদ। নিউজ এইট্টিন বাংলা তরফে বেহালার মুচিপাড়া শেখ শাহিদের বাড়িতে গেলে দেখা যায় কি সাবলীল ভাবে ব্যাট করে চলেছেন ৩ বছর ২ মাসের ডানহাতি খুদে।ck1

তবে অনেকটাই মুডি এই শিশু। ইচ্ছে হলে ব্যাটিং করে নাহলে মোবাইলে কার্টুন দেখাই শখ। এখনও সেভাবে কথা বলতে না পারলেও বিরাটের নাম অকপট বলে দেন শাহিদ। আর আধো আধো কথায় একটাই জবাব বড় হয়ে বিরাটের মতো ক্রিকেটার হতে চায় সে। শাহিদের যখন আড়াই বছর বয়স হঠাৎ একদিন প্রচন্ড বায়না জুড়ে দেয়। ছেলের বায়না থামাতে বাবা শেখ সামশের জোর করেই ভারত-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচ দেখতে টিভির সামনে তার ছেলেকে বসিয়ে দেন। সেই সময় ব্যাট করছিলেন বিরাট। সামশের দেখেন শাহিদ কান্না থামিয়ে চুপচাপ বিরাটের ব্যাটিং দেখছে। কিছুক্ষণ পর সামশেরের লক্ষ্য করেন বিরাটের মত একইভাবে ছেলে প্লাস্টিকের ব্যাট নিয়ে ব্যাট করে চলেছে। ঠিক যেন ফটোকপি। অবাক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকেন বাড়ির লোকজন। এ যেন গড গিফটেড ট্যালেন্ট। তারপরই ছেলের ডাইপার পরা অবস্থায় ভিডিও তুলে সোশ্যাল মিডিয়ায় দেন সেলুনে কাজ করা শেখ সামশের।

cricketer

প্রায় আট মাস পর সেই ভিডিওর সৌজন্যে রীতিমত স্টার হয়ে উঠেছেন শেখ শাহিদ। বিস্ময় ক্রিকেটের এর মা সুফিয়া বিবির কথায়, মাত্র দেড় বছর বয়সেই রান্নাঘরে গিয়ে খুন্তি নিয়ে সবাইকে মারত শাহিদ। তখনও ব্যাট করার মতো করেই সবাইকে খুন্তি দিয়ে মারতে। অবিশ্বাস্য হলেও এটাই নাকি সত্যি। এখনও স্কুলে ভর্তি হয়নি শাহিদ। কিন্তু নিয়ম করে ক্রিকেট কোচিংয়ে যায় বিবেকানন্দ পার্কে। এত কম বয়সের ছেলেকে ভর্তি নিতে না চাইলেও অবিশ্বাস্য ট্যালেন্ট দেখে শাহিদকে কোচিং এ ভর্তি নেন অমিত চক্রবর্তী। এখন খেলার ছলেই শাহিদকে ক্রিকেটের অ, আ শেখাচ্ছেন অমিত বাবু। শাহিদও ব্যাট হাতে পেলে সব বায়না ভুলে যান। তবে কখনো বল করেন না শাহিদ। নিয়ম করে প্রতিদিন দু'বেলা অনুশীলন চলে শাহিদের। বাড়ির ছাদে নেট লাগিয়ে ফুটওয়ার্ক থেকে শ্যাডো প্র্যাকটিস কিছুই বাদ নেই বিস্ময় ক্রিকেটারের। তবে মুড একটু বিগড়লেই মুশকিল। ব্যাট ছুড়ে কান্না জুড়ে দেয় শাহিদ। খুদে ক্রিকেটারের পরিবারের একটাই স্বপ্ন একদিন বিরাট হোক ছোট্ট শেখ শাহিদ। যদি কেউ এই খুদে প্রতিভার সাহায্যে এগিয়ে আসেন তাহলে আরও ভালো করে ছেলেকে গড়তে পারবেন সামশের।

First published: December 17, 2019, 8:24 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर