• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • ISHAN KISHAN SUPERHIT ON DEBUT AS INDIA LEVEL SERIES RRC

India vs England: অভিষেকেই হিট ঈশান, সমতা ফেরাল ভারত

দুর্দান্ত কিছু শট খেলতে দেখা গেল ঈশানকে

মাত্র আঠাশ বলে অর্ধশতরান পূর্ণ করলেন। আউট হলেন ৫৬ করে। মারলেন পাঁচটা বাউন্ডারি, চারটে ওভার বাউন্ডারি

  • Share this:

    ইংল্যান্ড - ১৬৪ ভারত - ১৬৬/৩

    ভারত জয়ী সাত উইকেটে

    #আমেদাবাদ: ভারতীয় ক্রিকেটে সতীর্থরা মজা করে তাঁকে 'পকেট ডায়নামাইট' নামে ডাকেন। গতবার আইপিএলে ভারতীয়দের মধ্যে সর্বোচ্চ রান সংগ্রহকারী ছিলেন ঈশান কিষান। ঝাড়খণ্ডের হয়ে মধ্যপ্রদেশের বিরুদ্ধে বিজয় হাজারে অনবদ্য শতরান করেছিলেন কয়েকদিন আগেই। রবিবার জাতীয় দলের জার্সিতে অভিষেক ম্যাচেই হাজার ওয়াটের আলো জ্বালালেন ঈশান। মাত্র আঠাশ বলে অর্ধশতরান পূর্ণ করলেন। আউট হলেন ৫৬ করে। মারলেন পাঁচটা বাউন্ডারি, চারটে ওভার বাউন্ডারি। প্রথম ম্যাচেই এত দাপট বুঝিয়ে দিয়ে গেল আরও এক বিরল প্রতিভার আবির্ভাব ঘটতে চলেছে ভারতীয় ক্রিকেটে। তিনি যে লম্বা রেসের ঘোড়া প্রথম ম্যাচেই ইঙ্গিত পাওয়া গেল।

    এরপর পন্থ দ্রুত ২৬ করে ফিরে গেলেন। অর্ধশতরান সম্পন্ন করে দলকে জিতিয়ে ফিরলেন কোহলি। সহজ জয় পেয়ে সিরিজে সমতা ফেরাল ভারত। অধিনায়ক বিরাটের রানে ফেরাটাও ভারতকে অক্সিজেন দেবে। ছয় মেরে জেতালেন ভারত অধিনায়ক। রবিবার ইংল্যান্ডের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় টি টোয়েন্টি ম্যাচে টসে জিতে বিরাট কোহলির বল করার সিদ্ধান্ত নেওয়ার মধ্যে কিছু চমক ছিল না। প্রথম ম্যাচে বড় পরাজয়ের পর এদিন সিরিজে সমতা ফেরাতে মরিয়া ছিল ভারত। ভারত সাধারণত রান তাড়া করতে ভালোবাসে। শিখর ধাওয়ান এবং অক্ষর প্যাটেলকে বসিয়ে দলে নেওয়া হয়েছিল সূর্যকুমার যাদব এবং ঈশান কিষানকে।

    ভুবনেশ্বর কুমার প্রথম ওভারের তৃতীয় বলেই ফিরিয়ে দিলেন বাটলারকে। বল গুড লেন্থ স্পটে পড়ে সোজা এসে লাগল বাটলারের প্যাডে। এরপর কিন্তু ডেভিড মালান এবং জেসন রয় সামলে নিলেন ইংল্যান্ডের ইনিংস। ৬৩ রানের পার্টনারশিপ গড়লেন দুজনে। ব্যক্তিগত ২৪ রানের মাথায় মালান এলবি হয়ে ফিরলেন চাহালের বলে। সুইপ করতে গিয়ে বলের লাইন মিস করলেন তিনি। আম্পায়ার আউট দেননি। রিভিউ নেওয়া হলে ফিরে যেতে হয় বিশ্বের সেরা টি টোয়েন্টি ব্যাটসম্যানকে। নামলেন বেয়ারস্টো।

    অন্যদিকে রয় ক্রমশ ভয়ঙ্কর হয়ে ওঠার ইঙ্গিত দিচ্ছিলেন। রিভার্স স্কুপ করে কয়েকটি বাউন্ডারি মারলেন। ব্যক্তিগত ৪৬ রানের মাথায় ওয়াশিংটন সুন্দরের বলে তুলে মারতে গিয়ে ভুবনেশ্বর কুমারের হাতে ধরা পড়লেন। ব্যাট করতে এলেন অধিনায়ক ইয়ন মর্গান। প্রথম থেকেই দ্রুত রান তোলার ব্যাপারে বেশ কার্যকর মনে হচ্ছিল ইংলিশ অধিনায়ককে। তবে এদিন ফিল্ডিং করার সময় কয়েকবার শার্দুল, সূর্যকুমাররা সহজ বল গলিয়ে দিলেন। জনি বেয়ারস্টো ওয়াশিংটনের বলে সূর্যর হাতে ক্যাচ দিয়ে ফিরে গেলেন। তাঁর সংগ্রহ ২০।

    অধিনায়ক মর্গান ক্রমশ জমে যাচ্ছিলেন উইকেটে। ২৮ রান করে শার্দুল ঠাকুরের বলে ফিরে গেলেন। স্লোয়ার অফ কাটার বুঝতে পারেননি ইংলিশ অধিনায়ক। ডেথ ওভারে ভুবনেশ্বর যথেষ্ট বুদ্ধি করে বল করলেন। শার্দুল ঠাকুর শেষ ওভারে দারুণ নিয়ন্ত্রণের সঙ্গে বলের গতি হেরফের করলেন। বেন স্টোকস ২৪ করে ফিরলেন পান্ডিয়ার হাতে ক্যাচ দিয়ে। স্যাম কারান শেষ বলে বাউন্ডারি মেরে ইংল্যান্ডের রান ১৬৪ তে নিয়ে গেলেন। কিন্তু শেষরক্ষা হল না ইংরেজদের।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: