#IPL2019: বড় শাস্তির মুখে প্রীতির দল, আইপিএল থেকে কী নির্বাসিত হতে চলেছে কিংস, জেনে নিন বিস্তারিত

#IPL2019: বড় শাস্তির মুখে প্রীতির দল, আইপিএল থেকে কী নির্বাসিত হতে চলেছে কিংস, জেনে নিন বিস্তারিত
Photo- AFP

IPL -র নিয়ম অনুযায়ি কোনও আধিকারিক এমন কিছু করতে পারেন না যা লিগ ,দল , বা বিসিসিআইয়ের জন্য লজ্জাজনক , তা সে মাঠের মধ্যে হক বা মাঠের বাইরে

  • Share this:

#মুম্বই : কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের অন্যতম কর্ণধার নেস ওয়াদিয়া দু'বছরের জেলের সাজা হওয়ার পর টালমাটাল ৷ জাপানের সাপোরো আদালতের সিদ্ধান্তে নিষিদ্ধ নেশার দ্রব্য রাখার অপরাধে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন নেস ৷ যিনি আইপিএলের কিংসের অন্যতম মালিক ৷ আইপিএলে এর জন্য বড় অসুবিধার সামনে পড়তে চলেছে কিংস ৷ কারণ আইপিএলের যে নিয়মাবলী রয়েছে তাতে IPL -র নিয়ম অনুযায়ি কোনও আধিকারিক এমন কিছু করতে পারেন না যা লিগ ,দল , বা বিসিসিআইয়ের জন্য লজ্জাজনক , তা সে মাঠের মধ্যে হক বা মাঠের বাইরে ৷

এই নিয়মেই বলা হয়েছে যে দোষী আধিকারিক যদি কোনও আইনি সাজা পান তাহলে তাঁর দল নির্বাসিত হতে পারে ৷ এই মুহূর্তে অম্বুডসম্যান এই বিষয়টি খতিয়ে দেখছেন ৷ আইপিএলের সঙ্গে যুক্ত আধিকারিক সূত্রে জানা গেছে , ‘এই ক্ষেত্রে সবচেয়ে কম শাস্তি হবে নির্বাসন আর সবচেয়ে বড় শাস্তি হবে দলকে লিগ থেকে বার করে দেওয়া হবে ৷ ’

(File photo: Reuters) (File photo: Reuters)

 এক সময়ের প্রেমিকা বছর কয়েক আগে তাঁর বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির অভিযোগ এনেছিলেন ২০১৪ সালে ৷ সে সময়ে দুজনেই ছিলেন আইপিএলের কিংস ইলভেন পঞ্জাবের অংশীদার ৷ কিন্তু ২০১৮ সালে এই কেসটি দু‘জনেই নিজেদের মধ্যে মীমাংসা করে মিটিয়ে  নিয়েছিলেন ৷ প্রীতির প্রাক্তন বয়ফ্রেন্ড নেস ওয়াদিয়া ক্ষমা চেয়েছিলেন মৌখিক আর কোর্টের বাইরে বিষয়টি মীমাংসা করে নিয়েছেলেন৷

আরও পড়ুন - পুরীর অদূরে ঝাঁপিয়ে পড়ার অপেক্ষায় ফণী, প্রবল ঝড় এড়াতে ট্রেনের সূচিতে বড় রদবদল

প্রাক্তন প্রেমিকের বিরুদ্ধে শ্লীলতাহানির মারত্মক অভিযোগ কোনওভাবে মিটিয়ে নিতে পারলেও এবার বড় শাস্তি হচ্ছে নেস ওয়াদিয়ার ৷ ২৮৩ বছরের পুরনো ওয়াদিয়া গ্রুপের উত্তরসূরী ও কিংস ইলেভেন পঞ্জাবের অন্যতম কর্ণধারের বিরুদ্ধে অনৈতিকভাবে ড্রাগ রাখার মারাত্মক অভিযোগ ৷ তাও আবার জাপানে ছুটি কাটানোর সময় তাঁর কাছে ছিল এই ড্রাগ ৷

বিজনেস টাইকুনকে মার্চ মাসে গ্রেফতার করা হয় উত্তর জাপানের দ্বীপ হোক্কাইডো-র নিউ চিতোস বিমানবন্দর থেকে ৷ তাঁর প্যান্টের পকেটে ছিল ২৫ গ্রাম cannabis resin বা ভাঙ৷ জেরায় তিনি স্বীকার করে নেন তাঁর ব্যক্তিগত ব্যবহারের জন্য ছিল ওই ভাঙ ৷ এরপরেই তাঁকে অনির্দিষ্টকালের জন্য আটকে রাখা হয় ৷ সাপোরো জেলা আদালতে এই অপরাধে তাঁকে ২ বছরের কারাদন্ড দিয়েছে যা পাঁচ বছরের জন্য স্থগিত করা হয়েছিল ৷ আসলে ২০২০ -র টোকিও অলিম্পিক্সের আগে নিজেদের ড্রাগ নীতি নিয়ে ভীষণই কড়াকড়ি জাপানে ৷

 আরও দেখুন

First published: May 1, 2019, 3:44 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर