ব্যাটে বলে নয়, সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কারা বোতল ছোঁড়ায় সেরা? ভিডিও ঘাবড়ে দেবে!

ব্যাটে বলে নয়, সানরাইজার্স হায়দরাবাদের কারা বোতল ছোঁড়ায় সেরা? ভিডিও ঘাবড়ে দেবে!

সবাই আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছেন ঠিকই, কিন্তু কারও ভাগ্যেই বোতল সোজা হয়ে দাঁড়াচ্ছে না মাটিতে!

সবাই আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছেন ঠিকই, কিন্তু কারও ভাগ্যেই বোতল সোজা হয়ে দাঁড়াচ্ছে না মাটিতে!

  • Share this:

#নয়া দিল্লি: আমার বা আপনার কথা ছাড়ুন! আমরা দর্শকরা হয় টিভির সামনে বসে অথবা ময়দানে গিয়ে যার যার পছন্দের দল আর খেলোয়াড়ের স্বপক্ষে গলা ফাটাই! জিতে গেলে সে যেন নিজেদেরই কৃতিত্ব, এমন আত্মপ্রসাদ নিয়ে দিন কাটাই! আর হেরে গেলে বইয়ে দিয়ে থাকি সমালোচনার ঝড়- পাড়ার মোড়ে, বন্ধুদের আড্ডায়, বাসে-ট্রামে, অফিসে সব জায়গাতেই!

কী ভাবছেন? আমাদের এই স্বভাব মানসিক চাপের মুখে ফেলে না খেলোয়াড়দের? আলবাত ফেলে! সেই চাপটা তো সব সময় নিতেই হয় তাঁদের। পাশাপাশি চলতি বছরের ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগে খেলোয়াড়দের সামনে রয়েছে আরেক বাড়তি অস্বস্তি- কোভিড ১৯! যাতে ভাইরাসের সংক্রমণের সম্ভাবনা বিন্দুমাত্র না থাকে, সে জন্য প্রতিনিয়ত কঠিন স্বাস্থ্যবিধি পালন করে চলতে হচ্ছে তাঁদের। দর্শকশূন্য ময়দানে খেলতে নেমেও বজায় রাখতে হচ্ছে পেশাদারি মনোভাব। এ সবের মাঝে অনুশীলনের ফাঁকে তাঁরা যদি নিজেদের মধ্যে একটু মজায় মাতেন, তা হলে কী এমন মহাভারত অশুদ্ধ হয় বলুন তো?

হয় না বলেই সানরাইজার্স হায়দরাবাদের সবাই নন, জনাকয়েক খেলোয়াড়কে সম্প্রতি দেখা গেল অনুশীলনের ফাঁকে নিজেদের মধ্যে বোতল নিয়ে ছোঁড়াছুঁড়ি করতে! মজার এই খেলার নাম বটলস ফ্লিপ চ্যালেঞ্জ। মানে, যাঁরা অংশ নিয়েছেন এই খেলায়, তাঁরা সারি বেঁধে মাঠে বসে শূন্যে ছুঁড়ে দেবেন নিজের নিজের জল খাওয়ার খালি বোতল। ফিরে এসে যাঁর বোতলটা সটান দাঁড়িয়ে থাকবে, গড়িয়ে পড়বে না কাত হয়ে, তিনিই জিতে যাবেন- ব্যস, এই তো!

তা বলে মোটেও ভাববেন না যে এ বড় সহজ ব্যাপার! সম্প্রতি দলের তরফ থেকে তাদের সোশ্যাল মিডিয়া হ্যান্ডেলে যে ট্যুইট ভিডিও ছাড়া হয়েছে, তাতে দেখা যাচ্ছে সাফ- সবাই বেশ হিমসিম খেয়ে যাচ্ছেন বোতল দাঁড় করানোর মামলায়!

ভিডিওয় দেখা যাচ্ছে যে রশিদ খান, আবদুল সামাদ, প্রিয়ম গর্গ আরও বেশ কিছু খেলোয়াড়ের সঙ্গে এই চ্যালেঞ্জে অংশ নিয়েছেন। সবাই আপ্রাণ চেষ্টা করে চলেছেন ঠিকই, কিন্তু কারও ভাগ্যেই বোতল সোজা হয়ে দাঁড়াচ্ছে না মাটিতে! শেষ পর্যন্ত কী হল? নিজেই দেখুন না ভিডিওটা ক্লিক করে! আমরা খামোখা বলে দিয়ে আপনার মজাটা আর নষ্ট করি কেন!

Published by:Piya Banerjee
First published: