corona virus btn
corona virus btn
Loading

চলতি বছরেই আইপিএল-এর সম্ভাবনা, আয়োজনে কোমর বেঁধে নামছেন বোর্ড কর্তারা

চলতি বছরেই আইপিএল-এর সম্ভাবনা, আয়োজনে কোমর বেঁধে নামছেন বোর্ড কর্তারা

এক বছরের জন্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পিছিয়ে যেতেই আইপিএল আয়োজনে কোমর বেঁধে নেমে পড়তে চলেছেন বোর্ড কর্তারা

  • Share this:

#কলকাতা: করোনা পরিস্থিতিতে চলতি বছরের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পিছিয়ে যেতে উজ্জ্বল হল আইপিএলের ভবিষ্যত। চলতি বছর আইপিএল আয়োজন করার ক্ষেত্রে আর কোনও সমস্যা রইল না বিসিসিআইয়ের কাছে। সোমবার আইসিসির বোর্ড মিটিং-এর দিকে তাকিয়ে ছিলেন বিসিসিআই কর্তারা। এক বছরের জন্য টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ পিছিয়ে যেতেই আইপিএল আয়োজনে কোমর বেঁধে নেমে পড়তে চলেছেন বোর্ড কর্তারা।  বিশ্বকাপ পিছিয়ে যাওয়ায় সেই সময়টাই আইপিএল-এর আয়োজন করবে বিসিসিআই।

ইতিমধ্যেই আইপিএল বিদেশের মাটিতে আয়োজন করার ব্যাপারে একপ্রকার মনস্থির করেই ফেলেছেন কর্তারা। আরব আমিরশাহীতে চলতি বছর আইপিএল আয়োজনের ব্যাপারে অনেকটাই সিদ্ধান্ত নিয়ে ফেলেছেন সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় এবং তাঁর টিম। সম্ভাব্য ক্রীড়া সূচিও তৈরি করেছে বিসিসিআই। ২৬ সেপ্টেম্বর থেকে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত আইপিএল চলবে। মোট ৬০ টি ম্যাচ ৪৪ দিনে আয়োজন করতে চাইছেন বোর্ড কর্তারা। আরব আমিরশাহীর দুবাই এবং আবুধাবিতে ম্যাচ আয়োজিত হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। একই দিনে দুটি করে ম্যাচ করতে চাইছেন কর্তারা। আরব আমিরশাহী ক্রিকেট বোর্ডের পক্ষ থেকেও গ্রিন সিগন্যাল  পাওয়া গিয়েছে আইপিএল আয়োজনের ব্যাপারে।

বোর্ড সূত্রে খবর, ইতিমধ্যেই কেন্দ্রীয় সরকারের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছেন বোর্ড কর্তারা। সব ঠিকঠাক থাকলে আইপিএল ১৩ দিয়েই বিরাট কোহলি মাঠে ফিরতে পারেন। তার আগে টিম ইন্ডিয়ার শিবির করা হবে বলেই খবর। আহমেদাবাদ কিংবা ধরমশালায় হতে পারে কোহলিদের অনুশীলন শিবির। বোর্ড কর্তারা প্রথমে ভারতের মাটিতেই আইপিএল আয়োজন করতে চাইছিলেন। কিন্তু করোনা পরিস্থিতি ভারতে যেভাবে দিনে দিনে বাড়ছে তাতে সেই সম্ভাবনা কার্যত নেই বললেই চলে। বিদেশের মাটিতে খরচ বেশি হলেও সেখানেই আইপিএল আয়োজন করলে অনেক সুবিধা হবে ক্রিকেটারদের।

আরব আমিরশাহীতে করোনার প্রভাব অনেকটাই কম। টুর্নামেন্ট শুরুর আগে  আইপিএলের সমস্ত ফ্র্যাঞ্চাইজি ওখানে ক্যাম্প করতে পারবেন। বিদেশি ক্রিকেটারদের টুর্নামেন্টে যোগ দিতে খুব একটা অসুবিধা হবে না। হোটেল এবং যাতায়াতও অনেক সুবিধার। সব দিক খতিয়ে দেখে আরব আমিরশাহীতেই আইপিএল হতে চলেছে তা একপ্রকার বলাই যায়। বোর্ড কর্তারা দিন কয়েকের মধ্যেই চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত ঘোষণা করতে পারেন।              আইপিএল আয়োজিত হলে বিরাট আর্থিক ক্ষতির হাত থেকে বেঁচে যাবে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড। তাই টুর্নামেন্ট আয়োজন করতে বদ্ধপরিকর  বিসিসিআই।

তবে এরপরেও আইপিএল আয়োজন করার ক্ষেত্রে সম্প্রচারকারী সংস্থার সঙ্গে মতপার্থক্য রয়েছে বিসিসিআইয়ের। টেলিভিশন সম্প্রচারকারী সংস্থা চাইছে নভেম্বরের দিওয়ালি পর্যন্ত আইপিএলটাকে নিয়ে যেতে। কারণ সেই সময় বিজ্ঞাপনের সুযোগ থাকবে বেশি। আর একদিনে দুটি করে ম্যাচ হলে টিআরপির ক্ষেত্রেও কিছুটা সমস্যা হয়। তবে টেলিভিশন সম্প্রচার সংস্থা চাইলেও বিসিসিআই টুর্নামেন্টের দিনক্ষণ বাড়াতে নারাজ। কারণ ? বোর্ডের যুক্তি, ক্রিকেটারদের অস্ট্রেলিয়া সফরের আগে বিশ্রাম প্রয়োজন এবং কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম মানতে হবে। তবে এই সমস্যা দ্রুত মিটে যাবে বলেই মনে করছেন বোর্ড কর্তারা। সোমবার আইসিসির বোর্ড মিটিংয়ে এক বছরের জন্য পিছিয়ে দেওয়া হয় টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ। আগামী বছর অক্টোবর-নভেম্বর মাসে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ হবে।

ERON ROY BURMAN

Published by: Rukmini Mazumder
First published: July 20, 2020, 11:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर