৯ বছরের বিরাটকে দেখে বুঝেছিলাম ও অন্য রেসের ঘোড়া: রাজকুমার শর্মা

৯ বছরের বিরাটকে দেখে বুঝেছিলাম ও অন্য রেসের ঘোড়া: রাজকুমার শর্মা

অধিনায়ক হিসেবে প্রিয় ছাত্রের হাতে বিশ্বকাপ দেখতে চান বিরাট রাজকুমার শর্মা। ভারতীয় অধিনায়ক এর জানা অজানা নানা গল্প শোনালেন তাঁর কোচ

  • Share this:

#কলকাতা: রনজি ম্য়াচের জন্য় কলকাতা ঘুরে গেলেন বিরাট কোহলির ছোটবেলার কোচ রাজকুমার শর্মা৷ দিল্লি রনজি দলের সহকারি কোচের দায়িত্বে রয়েছেন তিনি৷ বাংলার বিরুদ্ধে রঞ্জি ম্যাচ শেষে বিরাটকে নিয়ে অনেক জানা-অজানা গল্প শোনালেন নিউজ এইট্টিন বাংলাকে।

এখনও সময় পেলে ছোটবেলার কোচের সঙ্গে কথা বলেন বিরাট৷ খোঁজ নেন দিল্লি রনজি দল নিয়ে, রাজকুমার শর্মার ক্রিকেট অ্যাকাডেমি নিয়ে। নিউজিল্যান্ড সিরিজের মাঝেও হোয়াটসঅ্যাপে যোগাযোগ করেছেন  কোহলি। রাজকুমার শর্মার মতে, 'সাফল্যের চূড়ায় পৌঁছেও অ্যাকাডেমির খোঁজ-খবর রাখেন বিরাট। খুদে ক্রিকেটারদের জন্য প্রচুর ক্রিকেট সরঞ্জাম নিয়ে আসেন। আর প্রতিভাবান কোনও তরুণকে দেখলেই, সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেন।' শীর্ষে থেকেও মাটিতে পা রেখে চলা বিরাটের সাফল্য়ের চাবিকাঠি বলে মনে করেন তাঁর ছোটবেলার কোচ৷

কিন্তু বিরাটকে খুঁজে পেলেন কীভাবে? প্রশ্ন শুনেই নস্টালজিক রাজকুমার শর্মা। মাত্র ৯ বছর বয়সে প্রথম তাঁর কাছে ক্রিকেট শিখতে আসে বিরাট। ছটফটে বাচ্চাটা প্রথম থেকেই জোরে শট মারায় পারদর্শী ছিল। সবসময় বড়দের সঙ্গে খেলতে চাইত৷ প্রথমদিকে কোচ অনুমতি না দিলেও, কিছুদিনের মধ্যেই সিদ্ধান্ত পাল্টে ফেলতে বাধ্য হন৷ রাজকুমারের মতে, ছোট থেকেই ক্রিকেটের প্রতি আলাদা দর্শন ছিল বিরাটের। বাবা মারা যাওয়ার পরের দিনই ব্যাট হাতে দিল্লির হয়ে রনজি খেলতে নামেন বিরাট। যে ঘটনা মোটামুটি সবারই জানা৷ কিন্তু যেটা জানা নয় তা হল, সেদিন বিরাট বাইশ গজে নামতেই পারতেন না, যদি না রাজকুমার শর্মা তাঁকে ভরসা দিতেন। রনজি ম্যাচ চলাকালীন, এক রাতে মারা যান বিরাটের বাবা। বিরাট সেদিন নট আউট ছিলেন। পরের দিন খেলতে নামা উচিত কিনা, তা নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে পারছিল না সদ্য বাবা হারানো কিশোর। সেদিন রাজকুমার শর্মাই বিরাটকে সাহস জোগান৷ বলেন, মন যদি চায় তাহলে খেলতে নামা উচিত৷ পরিবারের বাকি সদস্যদের পরামর্শ আর ছোটবেলার কোচের মত নিয়ে বিরাট রঞ্জি ম্যাচে নামেন এবং ৯০ রান করেন৷

আরও পড়ুন - Big News: নিউজিল্যান্ড সফরের মধ্যেই ভারতীয় দলের জন্য বড় ঝটকা

প্রিয় ছাত্র কোহলির মধ্যে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ছায়া দেখতে পান রাজকুমার শর্মা৷ দেখতে পান দাদার সেই চেনা আগ্রাসন৷ প্রিয় ছাত্র সাফল্য়ের শিখর ছুঁয়েছে৷ ভেঙেছে অনেক রেকর্ড৷ এখন রাজকুমার শর্মার একটাই স্বপ্ন৷ বিরাটের হাতে বিশ্বকাপ দেখতে চান তাঁর ছোটবেলার কোচ৷

First published: February 1, 2020, 5:46 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर