corona virus btn
corona virus btn
Loading

রানার্সদের কেউ মনে রাখে না...নিঃশব্দে ঘরে ফিরলেন রিচা

রানার্সদের কেউ মনে রাখে না...নিঃশব্দে ঘরে ফিরলেন রিচা

১৬ বছরের মেয়েকে ঘিরে কোনও উন্মাদনা না থাকার কারণ আজও হয়তো রানার্সের কোনও দাম নেই বলেই।

  • Share this:

#কলকাতা:  তার ঘরে ফেরা অন্যরকম হতে পারতো। ফুলের মালায় সেজে উঠতো বিমানবন্দর। কয়েকশো ক্যামেরায় লেন্সবন্দী হতেন। সাংবাদিকদের ছুটোছুটি পড়ে যেত একটা ইন্টারভিউ নেওয়ার জন্য। কিন্তু সেসব কিছুই হলো না। প্রায় নিঃশব্দেই অস্ট্রেলিয়া থেকে কলকাতায় ফিরলেন রিচা ঘোষ। ভারতীয় মহিলা দলের হয়ে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ার খেলতে গিয়েছিলেন রিচা। ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার কাছে একপেশে ম্যাচে হার স্বীকার করে ভারতীয় টিম। তারপর কিছুটা নিঃশব্দেই ঘরে ফিরলেন সেই দলের একমাত্র বাঙালি সদস্য রিচা।

১৬ বছরের মেয়েকে ঘিরে কোনও উন্মাদনা না থাকার কারণ আজও হয়তো রানার্সের  কোনও দাম নেই বলেই। ফাইনালে প্রথম এগারোয় না থাকলেও কনকাশন সাব হিসেবে ব্যাট করেন রিচা ঘোষ। ১৮ বলে ১৮ করে আউট হন শিলিগুড়ি এই ১৬ বছরের মেয়ে। তানিয়া ভাটিয়ার চোট লাগার কারণে ব্যাট করেন রিচা। কলকাতায় ফেরার দিন রিচাকে ঘিরে খুব বেশি উন্মাদনা না থাকলেও অভ্যর্থনা জানাতে কলকাতা বিমানবন্দরে ছুটে গিয়েছিলেন সিএবি প্রেসিডেন্ট অভিষেক ডালমিয়া।

বিমানবন্দর থেকে বেরিয়ে আসার পরই ফুলের তোড়া দিয়ে সংবর্ধনা জানানো হয় রিচাকে। সেই ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন অভিষেক ডালমিয়া। বিশ্বকাপে ভারতীয় মহিলা দলে ডাক পেয়েছিলেন রিচা। সিনিয়ার দলে কোনও ম্যাচ না খেললেও বিশ্বকাপ স্কোয়াডে ঢুকে পড়েছিলেন শিলিগুড়ি ১৬ বছরের মেয়েটি। ঘরোয়া ক্রিকেটে বাংলার হয়ে ও চ্যালেঞ্জারে দুরন্ত খেলার জন্য সুযোগ পান। বিশ্বকাপে বাংলাদেশের বিরুদ্ধে অভিষেক হয় ডানহাতি এই অলরাউন্ডারের। ম্যাচে ১৪ রান করে আউট হয়েছিলেন রিচা ঘোষ। শারীরিক অসুস্থতার কারণে সেই ম্যাচে খেলেননি স্মৃতি মান্ধানা। স্মৃতির পরিবর্তে ভারতীয় দলে খেলেন রিচা। বিশ্বকাপে রিচার পারফরমেন্সে খুশি প্রাক্তন ক্রিকেটাররা।

সুযোগটা অনেকটাই কাজে লাগিয়েছেন রিচা বলে মনে করেন প্রাক্তন অধিনায়ক ঝুলন গোস্বামী। রিচাকে নিয়ে উচ্ছ্বসিত বাংলা মহিলা ক্রিকেট মহল। বিশ্বকাপ খেলতে যাওয়ার জন্য চলতি বছরে মাধ্যমিক পরীক্ষা দিতে পারেননি রিচা। বিশ্বকাপে ফাইনালের আগে কোনও ম্যাচ না হারলেও ফাইনালে অস্ট্রেলিয়ার সামনে কার্যত আত্মসমর্পণ করতে হয় ভারতীয় মহিলা ক্রিকেট দলকে। বোলিং বিভাগ সেভাবে দাগ কাটতে পারেনি। পাহাড়প্রমাণ রান তাড়া করতে গিয়ে ৯৯ রানে অলআউট হয়ে যায় ভারতীয় দল। তবে ম্যাচ হারলেও মহিলা ক্রিকেটারদের পারফরম্যান্স নিয়ে ভূয়শী প্রশংসা করেন বিরাট কোহলি। ট্যুইট করে প্রশংসা করেন বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ও।

Eeron Roy Barman

First published: March 11, 2020, 8:01 AM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर