খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

টিম ইন্ডিয়ার সাহস এবং লড়াইকে কুর্নিশ শোয়েবের

টিম ইন্ডিয়ার সাহস এবং লড়াইকে কুর্নিশ শোয়েবের
photo source/toi

মেলবোর্নে ভারতের যে জিনিসটা তাঁর সবচেয়ে ভালো লেগেছে তা হল কামব্যাক করার মরিয়া লড়াই এবং প্রচেষ্টা। নিজের রক্তাক্ত হয়েও যে বিপক্ষকে পাল্টা মারে রক্তাক্ত করা যায় সেটা দেখিয়েছে ভারত।

  • Share this:

#লাহোর: শোয়েব আখতার আর বিতর্ক পাশাপাশি অবস্থান করে। প্রথম টেস্টে ভারতের লজ্জার হারের পর টিম ইন্ডিয়াকে নিয়ে মজা করতে ছাড়েননি প্রাক্তন পাকিস্তান পেসার। তবে মেলবোর্নে ভারতের দুর্দান্ত কামব্যাক দেখার পর প্রশংসা না করে পারলেন না শোয়েব আখতার।

ভারতের জয়ের প্রসঙ্গে নিজের ইউটিউব চ্যানেল রাওয়ালপিণ্ডি এক্সপ্রেস বলেন," দুর্দান্ত প্রত্যাবর্তন টিম ইন্ডিয়ার। দলের নির্ভরযোগ্য তিন ক্রিকেটার ছাড়াই যেভাবে কামব্যাক করল ভারত তা প্রশংসার যোগ্য। রাহানে মুখে কম কথা বলে। কিন্তু ব্যাট হাতে বুঝিয়ে দিল ওঁর অবদান। যথেষ্ট বুদ্ধিমান অধিনায়ক"।

তিনি বরাবর লড়াকু ক্রিকেটারদের ভালোবাসেন। এই ভারতীয় দলটায় বেশ কয়েকজন লড়াকু ক্রিকেটার নজর কেড়েছে শোয়েবের। কোন রাখঢাক না করেই বললেন,"অনেকে গ্রেট ক্রিকেটারদের কথা বলেন। কিন্তু আমার কাছে লড়াকু ক্রিকেটারদের জায়গা সবার আগে। গিল-সিরাজ দুই তরুণ ক্রিকেটারকে দেখে মনে হল না প্রথম টেস্ট খেলছে, তাও অস্ট্রেলিয়ার মাটিতে। দু'জনের ভবিষ্যত উজ্জ্বল। সিরাজ সিনিয়র বোলার শামির জায়গায় সুযোগ পেয়ে নিজেকে প্রমান করল। গিল পরবর্তী সুপারস্টার"।

মেলবোর্নে ভারতের যে জিনিসটা তাঁর সবচেয়ে ভালো লেগেছে তা হল কামব্যাক করার মরিয়া লড়াই এবং প্রচেষ্টা। নিজে রক্তাক্ত হয়েও যে বিপক্ষকে পাল্টা মারে রক্তাক্ত করা যায় সেটা দেখিয়েছে ভারত। শোয়েব মনে করেন এই জয় ভারতকে সিরিজে শুধু সমতা ফেরাতে সাহায্য করল এমন নয়, তৃতীয় এবং চতুর্থ টেস্টে রোহিত শর্মা ফিরে এলে ভারতের হয়ে বাজি লাগাতে চান তিনি।

পাকিস্তান তারকা মনে করিয়ে দিয়েছেন ভারতের এই অসাধারণ কামব্যাক সহজ ছিল না। কিন্তু ইতিবাচক মানসিকতা এবং দৃঢ়প্রতিজ্ঞ মনোভাব এই দলটার সম্পদ। ক্রিকেট স্কিল শেষ কথা নয়, তিনি মনে করেন লড়াইয়ের ময়দানে জিততে গেলে জেদ এবং মানসিক কাঠিন্য বেশি গুরুত্বপূর্ণ। সেটা এই ভারতীয় দলের ছিল বলেই একদিন বাকি থাকতেই অস্ট্রেলিয়াকে উড়িয়ে দিতে পেরেছে তাঁরা।

Published by: Rohan Chowdhury
First published: December 29, 2020, 8:49 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर