EXCLUSIVE: মেলবোর্নে জিততে পারল না ঘরের মেয়ে, ভেঙে পড়েননি রিচার বাবা

EXCLUSIVE: মেলবোর্নে জিততে পারল না ঘরের মেয়ে, ভেঙে পড়েননি রিচার বাবা

১৮ বলে ১৮ রিচার। আগাম হোলি খেলা হল না শিলিগুড়ির ক্রিকেটপ্রেমীদের ৷

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: আশায় বুক বেঁধেছিল দেশবাসী। তৈরি ছিল শিলিগুড়িও। কিন্তু ফাইনালের স্নায়ুর চাপ নিতে পারলো না হরমণপ্রীত বাহিনী। এমসিজি-তে কার্যত আত্মসমর্পণ করলেন ভারতীয় মহিলা ক্রিকেটাররা। লড়াই গড়েই তুলতে পারলেন না শেফালিরা।

টসে হার দিয়ে শুরু। ভারতীয় বোলারদেরও আজ তাল কাটে। ভারতীয়দের কাছে ১৮৫ রানের বড় টার্গেট সামনে রাখে অজিরা। প্রথম ওভারেই শেফালি ভার্মার ফিরে যাওয়ায় সুরটা কেটে যায় ব্যাটসম্যানদের। চোট পান উইকেটকিপার তানিয়া ভাটিয়া। এতেই সুযোগ পেয়ে যান শিলিগুড়ির রিচা। একে একে ফিরে যাচ্ছেন হরমনপ্রীত, শেফালি, দীপ্তিরা। রিচাকে প্যাড, গ্লাভস পরে দেখতে পেয়েই শিলিগুড়িবাসীও উচ্ছ্বাসে ফেটে পড়ে।

যখন ব্যাট হাতে নামলেন রিচা। তখন ম্যাচ হারা ছিল সময়ের অপেক্ষা। তবু একটা লড়াইয়ের চেষ্টা চালান রিচা। ১৮ বলে ১৮ রান করেন। দুটি বাউন্ডারিও হাঁকিয়েছেন রিচা। ঘরে বসে টিভির পর্দায় চোখ ওর বাবা, মা-সহ অন্য আত্মীয় পরিজনদের। সকালেই রিচার মা স্বপ্নাদেবী প্রার্থনা করেছিলেন জাতীয় দলের কাপ জয়ের আশায়। দুপুর ১২টা বাজতেই টিভির সামনে বসে পড়া। ব্যাট করতে নামে রিচা। কিন্তু আজকের দিন ছিল না ভারতীয় ক্রিকেটারদের পক্ষে। নইলে ৮৫ রানে হার। কাপ জয়ের সামনে এসেও শেষ হাসি হাসতে পারলো না হরমনপ্রীতরা।

পাঁচ বার বিশ্ব সেরার খেতাব ছিনিয়ে নিল অস্ট্রেলিয়া। বদলা নিল গ্রুপ লিগে হারেরও। তবে ভেঙে পড়েননি রিচার বাবা মানবেন্দ্র ঘোষ। এদিন ব্যাটিং, বোলিং, ফিল্ডিং সবেতেই টেক্কা দিয়েছে অজিরা। আগামী দিনে সাফল্য আসবে ভারতীয় দলের। আশাবাদী রিচার বাবা। ভারতীয় দলের পারফরম্যান্সে হতাশ হলেও রিচার খেলায় খুশি শিলিগুড়ি ক্রিকেট লাভার্স অ্যাসোসিয়েশন। জায়েন্ট স্ক্রিনে ম্যাচ দেখার ব্যবস্থা করা হয়েছিল। জাতীয় দল চ্যাম্পিয়ন হলে আগাম হোলিতে মেতে ওঠার প্রস্তুতি সারা ছিল। সেটা শেষপর্যন্ত হল না।

Partha Pratim Sarkar

First published: March 8, 2020, 5:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर