খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

ধোনির মতো দ্রুত নই, শিখর ধাওয়ানকে স্টাম্প আউট করতে গিয়ে বললেন ম্যাথিউ ওয়েড!

ধোনির মতো দ্রুত নই, শিখর ধাওয়ানকে স্টাম্প আউট করতে গিয়ে বললেন ম্যাথিউ ওয়েড!

ধাওয়ানকে স্টাম্প আউট করতে না পেরে অস্ট্রেলিয়ান কিপার নিজেই স্বীকার করে নিলেন, ধোনির মতো দ্রুত নন তিনি।

  • Share this:

#সিডনি: মহেন্দ্র সিং ধোনি (Mahendra Singh Dhoni)। তিনি স্টাম্প আউট করলে স্ক্রিনে রিভিউ বা থার্ড আম্পায়ারের ডিসিশনের অপেক্ষাটা শুধুমাত্র একটা নিয়মের ব্যাপার ছিল। কারণ ধোনির স্টাম্প মানেই অধিকাংশ ক্ষেত্রে আউট। ধোনির স্টাম্প মানেই একটা নিঁখুত স্টাম্প আউট। ব্যাটসম্যান ভেবে ওঠার আগেই কাজ সেরে ফেলতেন ধোনি। আর দ্রুত মাঠ ছাড়তে হত ব্যাটসম্যানকে। রবিবার দ্বিতীয় টি টোয়েন্টিতে শিখর ধাওয়ান (Shikhar Dhawan) ও ম্যাথিউ ওয়েডের (Matthew Wade) একটি স্টাম্প আউটের দৃশ্যে যেন সেই স্মৃতি চাঙ্গা হয়ে উঠল। ধাওয়ানকে স্টাম্প আউট করতে না পেরে অস্ট্রেলিয়ান কিপার নিজেই স্বীকার করে নিলেন, ধোনির মতো দ্রুত নন তিনি। ঠিক কী হয়েছিল ম্যাচে ?

তিন ম্যাচের T20 সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচে এই মজার দৃশ্যটি চোখে পড়ে। ১৯৪ রানের লক্ষ্যমাত্রা তাড়া করতে নেমে ৮.৫ ওভারে ভারতের স্কোর তখন ১ উইকেটের বিনিময়ে ৭৭। বল করছেন মিশেল সোয়েপসন (Mitchell Swepson)। সোয়েপসনের বলটিকে কাট করতে যান শিখর ধাওয়ান। কিন্তু ব্যাটের অনেকটা দূর দিয়ে ওয়েডের গ্লাভসে পৌঁছে যায় বল। তড়িঘড়ি ধাওয়ানকে স্টাম্প আউট করে আবেদন জানান ওয়েড। কিন্তু তার মাঝেই ক্রিজের মধ্যে পা ফিরিয়ে এনেছিলেন শিখর। তাই আর স্টাম্প আউট হননি তিনি। পরে স্ক্রিন রিভিউেয়র সময়েও একই দৃশ্য চোখে পড়ে।

আর এর পরই স্টাম্প মাইকে ধরা পড়ে আসল ঘটনা। শিখরের উদ্দেশে ম্যাথিউ ওয়েড (Matthew Wade) বলে ওঠেন, ধোনির মতো এতটা দ্রুত নন তিনি। ধোনির মতো এত দ্রুত স্টাম্প করতে পারেননি তিনি। এ কথার পর দু'জনকে হাসতেও দেখা যায়। ইতিমধ্যেই ভাইরাল হয়েছে সেই ভিডিও।

https://twitter.com/cricketcomau/status/1335538622464815104

সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে গতকাল টসে জিতে বল করার সিদ্ধান্ত নেয় ভারত। যদিও শুরুটা সে ভাবে করা যায়নি। কারণ অস্ট্রেলিয়ান ব্যাটসম্যানরা দারুণ ছন্দে ছিলেন। চোটের জন্য অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চ (Aaron Finch) ম্যাচের বাইরে। তবে ফিঞ্চের অনুপস্থিতিতে দলকে ভালো শুরু ও নেতৃত্ব দিয়েছেন ম্যাথিউ ওয়েড (Matthew Wade)। এ দিন ৩২ বলে ৫৮ রানের ইনিংস খেলেন তিনি। ঝুলিতে ছিল ১০টি চার ও একটি ছয়। দলের বড় রান খাড়া করার জন্য মাটি তৈরি করে দিয়ে যান তিনি। এর পর দুরন্ত ফর্মে থাকা স্টিভ স্মিথ ( Steve Smith) ও গ্লেন ম্যাক্সওয়েল (Glenn Maxwell) ম্যাচের হাল ধরেন। বেশ কয়েকটি ভালো শর্ট খেলেন স্মিথ। ম্যাক্সওয়েলও চেনা ছন্দে ছিলেন। চহালকে দু'টি ছয় মারেন। কিন্তু বড় রানের দিকে এগোতে পারেননি। শার্দূল ঠাকুরের বলে আউট হয়ে যান তিনি। অন্য দিকে, ৩৮ বলে ৪৬ রান করে প্যাভিলিয়নের পথ ধরেন স্মিথ।

দু'টি ম্যাচে পর পর ক্যাচ মিস হয়েছে কোহলির (Virat Kohli)। তবে ওয়েডকে রান আউট করে সেই ক্ষতি খানিকটা পূরণ করার চেষ্টা করেন অধিনায়ক। শেষের দিকে হ্যানরিকেস (Moises Henriques) ও স্টয়নিস (Stoinis) যথাক্রমে ২৬ ও ১৬ রান করে। আর পাঁচ উইকেটে ১৯৪ রানে পৌঁছে যায় অস্ট্রেলিয়া। তবে ছাপ ফেলেছেন নটরাজন (T Natarajan)। চার ওভারের স্পেলে ২০ রান দিয়ে দু'টি উইকেট তুলে নেন তিনি।

অন্য দিকে, ব্যাট করতে নেমে শুরুটা বেশ ভালো করে ভারত। ভালো খেললেও ২২ বলে ৩০ রান করে ফিরে যান কে এল রাহুল (K L Rahul)। শিখর ধাওয়ান বড় ইনিংস খেলেন। ৩৬ বলে ৫২ রান করেন তিনি। এ রপর ক্যাপ্টেন ইনিংস খেলেন কোহলি। ২৪ বলে ৪০ রান করেন। তবে ম্যাচের হিরো হার্দিক পাণ্ড্য (Hardik Pandya)। চলতি সিরিজে দারুণ ফর্মে রয়েছেন। আরও একবার সেই প্রমাণ মিলল। এ দিন ২২ বলে ৪২ রান করেন তিনি। অন্য দিকে শেষে নেমে ৫ বলে ১২ করেন শ্রেয়স। আর সহজেই ম্যাচ ও সিরিজ দু'টোই জিতে নেয় ভারত।

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: December 8, 2020, 2:45 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर