• Home
  • »
  • News
  • »
  • sports
  • »
  • HARBHAJAN SINGH IS MESMERIZED WITH HARDIK PANDYAS PERFORMANCE AKD

'রাসেলের চেয়েও ভালো', হার্দিকের ফিনিশার হয়ে ওঠায় মুগ্ধ হরভজন

এমনকি কেকেআরের অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলের থেকে হার্দিককে এগিয়ে রেখেছেন তিনি।

এমনকি কেকেআরের অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলের থেকে হার্দিককে এগিয়ে রেখেছেন তিনি।

  • Share this:

    হার্দিক পান্ডিয়ার ব্যাটিং মুগ্ধ করেছে হরভজন সিং-কে। ভারতের প্রাক্তন অফ স্পিনার জানিয়েছেন ,"পান্ডিয়ার প্রতিভা নিয়ে কোনদিন সন্দেহ ছিল না। কিন্তু ধারাবাহিকতার অভাব ছিল। কিন্তু গত দুই বছর ধরে ও নিজেকে অনেক তৈরি করেছে। পরিশ্রম করেছে, যার ফল পাচ্ছে। এখন শুধু বড় শট নয়, উইকেটে থেকে কিভাবে দলকে জিতিয়ে ফিরতে হয় সেটা করে দেখাচ্ছে। ভারতের টি-টোয়েন্টি সিরিজ জয়ের ম্যাচ সবচেয়ে বড় উদাহরণ। ২২ বলে ৪২ করল। কিন্তু সব বলেই মারতে গেছে এমন নয়। কখন আক্রমণ করবে, কখন স্ট্রাইক রোটেট করবে জানে। নিজেকে ফিনিশার করে তুলেছে। ধোনি চলে যাওয়ার পর ভারতের একজন ফিনিশার দরকার। হার্দিক ওই দায়িত্বটা কিন্তু পালন করছে সাফল্যের সঙ্গে।"এমনকি কেকেআরের অলরাউন্ডার আন্দ্রে রাসেলের থেকে হার্দিককে এগিয়ে রেখেছেন তিনি।

    আর হার্দিক নিজে কী বলছেন? মুম্বই ইন্ডিয়ান্সের হয় আইপিএল জেতা ক্রিকেটার জানাচ্ছেন," এরকম পরিস্থিতিতে আগে বহুবার পড়েছি। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে আমরা বেশিরভাগ সময় ভাবি হাতে সময় নেই। কিন্তু ব্যাপারটা সেরকম নয়। নিজের অভিজ্ঞতা থেকেই শিখেছি কখন কিভাবে নিজের ইনিংস সাজাতে হয়। দলকে জেতাতে পেরেছি এটাই সবচেয়ে বড় প্রাপ্তি। এটাই আমার কাজ। আমি মনে করি এটা নিয়ে আমার খুব বেশি আনন্দিত হওয়ার কারণ নেই।"

    অস্ত্রোপচার করে ফেরার পর বেশিরভাগ ব্যাটিং করছেন। বল হাতে অস্ট্রেলিয়ায় নাম মাত্র হাত ঘুরিয়েছেন। পাশাপাশি নিজের পছন্দের ক্রিকেট ব্যাট খুঁজে পেয়েছেন বলেই এই জয়- মজা করে জানিয়েছেন তিনি। এর পরেই শেষ টি-টোয়েন্টি ম্যাচের পর চার ম্যাচের টেস্ট সিরিজ। রোহিত শর্মা নেই, একটি টেস্ট খেলে দেশে ফিরে আসবেন বিরাট কোহলি। এমন অবস্থায় হার্দিক পান্ডিয়াকে অস্ট্রেলিয়ায় রেখে দেওয়ার ভাবনাচিন্তা করছে বোর্ড। এই ব্যাপারে তাঁকে প্রশ্ন করা হলে হার্দিক জানান এটা ম্যানেজমেন্টর সিদ্ধান্ত। তিনি থাকতে পারলে খুশি হবেন। কিন্তু ব্যাপারটা তাঁর হাতে নেই।

    Written by- Rohan Roy Chowdhury

    Published by:Arka Deb
    First published: