ভেঙে ফেলা হল অমল দত্তের বাড়ি ! মুছে গেল বাংলা ফুটবলের বহু ইতিহাস

ভেঙে ফেলা হল অমল দত্তের বাড়ি ! মুছে গেল বাংলা ফুটবলের বহু ইতিহাস

অমল দত্তের নিজের তৈরি করা এই বাড়িটি এখন শুধুমাত্র ইতিহাস।

  • Share this:

#কলকাতা: ভেঙে ফেলা হলো অমল দত্তের বাড়ি। এ বছর জানুয়ারি মাসে বিক্রি হয়ে গেছে রাজারহাট রোডের বাড়িটি। আর মার্চ মাসে ভাঙা পরলো ডায়মন্ড কোচের বাসভবন।

টি-৮৫, রাজারহাট রোড, কলকাতা-৭০০০৫৯ এটাই ছিল ফুটবল কোচ অমল দত্তের ঠিকানা। ১৯৭৮ সালে এই দোতলা বাড়িটি তৈরি করেন অমলবাবু। বাড়ির নাম ফলকের অমল দত্ত নিজের নামের পাশে লিখেছিলেন ফুটবল কোচ। মোহনবাগান হোক বা ইস্টবেঙ্গল, সব দলের সমর্থকরাই জানতেন বাগুইহাটি জোড়া মন্দির থেকে কিছুটা গেলেই ডান দিকে অমল দত্তের বাড়ি। এই বাড়িতে ভিড় জমিয়েছে ইস্টবেঙ্গল মোহনবাগান সহ ময়দানের বহু কর্তা ব্যক্তি থেকে শুরু করে মাঠ কাঁপানো ফুটবলাররা।

এই বাড়ির ড্রইং রুমে বসে অমল দত্ত তৈরি করেছিলেন ফুটবল মাঠের অসাধারণ সব রণকৌশল, যা বিপক্ষের ঘুম কেড়ে নিয়েছিল। তাঁর বিখ্যাত রণকৌশল 'ডায়মন্ড সিস্টেম' তিনি ছকে ছিলেন এই বাড়িতেই। তারপর থেকে তিনি ময়দানে পরিচিত হয়েছিলেন ডয়মন্ড কোচ নামে। ২০১৬ সালের ১০ জুলাই মৃত্যু হয় অমলবাবুর। ততদিনে ওই এলাকায় ব্যাপক পরিবর্তন ঘটে গেছে। একদা বাড়ির সামনের এক লেনের রাস্তাটি ওয়ান ওয়ে হয়ে গেছে। অমল দত্তের ছেলের আশীষ দত্ত বলেন, 'বাবা বেঁচে থাকার সময় বাড়িটা রাস্তার থেকে অনেক নিচু হয়ে যায়। ফলে একটু বৃষ্টি হলেই জল জমে যাচ্ছিল বাড়ির ভেতর।

এমনকী, ড্রেনের জলও বাড়ির ভেতর ঢুকছিল। এর ফলে পুরো বাড়িটাই স্যাঁতসেঁতে হয়ে থাকতো। একতলায় আর বসবাস করা যাচ্ছিল না। মাঝে বাড়িটা সারানো হয়েছিল। তাতেও কাজের কাজ কিছুই হয়নি।'চলতি বছরের ১৬ জানুয়ারি অমল দত্তের বাড়িতে বিক্রি করে দেন তাঁর সন্তানরা। কিন্তু বাংলার ফুটবলের বহু ইতিহাসের সাক্ষী এই বাড়িটি কেনও বিক্রি করে দিতে হলো? আশিষ বাবু বলেন,' বাড়িটি বাবা আমাদের ভাই বোনেদের কাউকেই লিখে দিয়ে যাননি। তাই আমার পক্ষে একা কোনও সিদ্ধান্ত নেওয়া সম্ভব ছিলনা।' ঘটনা যাই হোক অমল দত্তের নিজের তৈরি করা এই বাড়িটি এখন শুধুমাত্র ইতিহাস।

First published: March 11, 2020, 8:41 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर