খেলা

corona virus btn
corona virus btn
Loading

বারবার ব্যর্থ করে দিচ্ছে বিপক্ষের গোল করার চেষ্টা, ভাইরাল এই তরুণ গোলরক্ষকের ভিডিও

বারবার ব্যর্থ করে দিচ্ছে বিপক্ষের গোল করার চেষ্টা, ভাইরাল এই তরুণ গোলরক্ষকের ভিডিও

ভিডিয়োটি শেয়ারের পর ক্যাপশানে তিনি লেখেন, "ভারত কেন ফুটবল বিশ্বকাপ জেতেনি ? " মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি।

  • Share this:

#নয়াদিল্লি: ক্রিকেটে বিশ্ব কাঁপালেও, ফুটবলে এখনও অনেক যুদ্ধ জয় বাকি ভারতের। ফুটবল বিশ্বকাপের কথা ভাবলে এখনও অনেকটা পথ অতিক্রম করার কথা ভাবতে হয়। কিন্তু প্রতিভার কাছে হার মানে সবকিছু। কিছু প্রতিভা দেখার পর তাই আপশোষ হয়, ভারত কেন ফুটবল বিশ্বকাপ জেতে না ? সম্প্রতি এমনই একটি ভিডিয়ো ভাইরাল হয়েছে। যেখানে দেখা যাচ্ছে, বিপক্ষের একের পর এক গোলের চেষ্টা একার চেষ্টা ব্যর্থ করে দিচ্ছে এক তরুণ গোলকিপার।

প্রথমে এশিয়ান ফুটবল কনফেডারেশনের (Asian Football Confederation) অফিশিয়াল পেজে শেয়ার করা হয়েছিল ভিডিয়োটি। দেখা যাচ্ছে, কাঠের খুঁটি দিয়ে তৈরি গোল পোস্ট। গ্রামাঞ্চলের কোনও এক মাঠে কয়েকজন মিলে ফুটবল খেলছে। এমন সময় একটি দলের গোলকিপার রীতিমতো চমক দিয়েছে সবাইকে। তার গায়ে সাত নম্বর জার্সি। বিরুদ্ধ দলের একের পর এক গোলকে দারুণভাবে বাঁচিয়ে চলেছে সে। চারবার চেষ্টা চালিয়েও বিপক্ষপরা একটিও গোল ঢোকাতে পারেনি। হাত, পা কোমর কাজে লাগিয়ে প্রতিটি বল ফিরিয়ে দিয়েছে ওই তরুণ গোলরক্ষক। আর এই সাত নম্বর জার্সির গোল বাঁচানোর স্কিল ইতিমধ্যে ব্যাপক মাত্রায় ছড়িয়ে পড়েছে নেট দুনিয়ায়।

সম্প্রতি ভিডিয়োটি শেয়ার করেছেন নরওয়ের পরিবেশবিদ এরিক সোলেম (Erik Solheim)। ভিডিয়োটি শেয়ারের পর ক্যাপশানে তিনি লেখেন, "ভারত কেন ফুটবল বিশ্বকাপ জেতেনি ? " মুহূর্তেই ভাইরাল হয়ে যায় ভিডিওটি। ইতিমধ্যে ১.৬ মিলিয়নের বেশি ভিউজ হয়েছে ভিডিয়োটিতে।

https://twitter.com/ErikSolheim/status/1337589252327141377

এরিক সোলেমের ট্যুইটের জবাব দিতে গিয়ে দেশের নানা দিকের কথা উঠে এসেছে। এক ট্যুইট ব্যবহারকারীর কথায়, এর কারণ হল ভারতীয় বাবা-মায়েরা অন্যান্য সব বিষয়ের থেকে ছেলে-মেয়েদের মার্কশিট ও গ্রেডের উপর বেশি নজর দেন। তাদের ২৪x৭ পড়ার জন্য ব্যস্ত রাখেন। আর এক ট্যুইট ব্যবহারকারী আবার অন্য কারণ খোঁজার চেষ্টা করেছেন। তাঁর কথায়, এই পরিস্থিতির মূল কারণ হল ভারতের পাশ্চাত্য অনুকরণ মনোভাব। আসলে অধিকাংশ ভারতীয় মনে করে, পাশ্চাত্যের পদ্ধতি বা কলা-কৌশল বিজ্ঞানসম্মত আর দেশীয় যা কিছু আছে, সেগুলির কোনও বৈজ্ঞানিক ভিত্তি নেই। এখানকার অধিকাংশই মধ্যবিত্ত মানসিকতা সম্পন্ন। এদের লক্ষ্য একটাই। লক্ষ্য হল হয় বিদেশ যাওয়া নয়তো কোনও IT বা সরকারি চাকরি করা। এক্ষেত্রে নিজেদের মানসিকতাকেই বদলাতে হবে আগে।

https://twitter.com/VenkateshYGupt1/status/1338102978071457792

ভিডিয়োটি রিটুইট করে কেউ কেউ লিখেছেন, একদিন অবশ্যই ফুটবল বিশ্বকাপও জিতবে ভারত। তবে কেউ আবার ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। খেলা নিয়ে রাজনীতি ও যোগ্য খেলোয়াড়দের সুযোগ না পাওয়ার বিষয়টিকেও কটাক্ষ করেছেন অনেকে। তাঁদের কথায়, পুরো সিস্টেমে অনেকাংশে দুর্নীতি। এই জন্য ভালো বা প্রতিভাবান প্লেয়ার সুযোগ পান না। যাদের আগে থেকে যোগাযোগ থাকে, তারাই নির্বাচিত হয়ে যায়। আর বঞ্চনার শিকার হতে হয় দেশের প্রত্যন্ত থেকে প্রত্যন্ত এলাকার আসল প্রতিভাগুলিকে।

https://twitter.com/Rahul78084324/status/1338127355932332032 https://twitter.com/KGNPrinters/status/1337949159685578756

প্রসঙ্গত, পেশাদার ফুটবলের দিক দিয়ে দেখতে গেলে এখনও অনেকটা যাত্রা বাকি ভারতের। তবে সম্প্রতি ফুটবল নিয়েও জোরকদমে প্রস্তুতি শুরু হয়েছে। এর অন্যতম দৃষ্টান্ত হল ইন্ডিয়ান সুপার লিগ (Indian Super League)। এই মুহূর্তে এটি ভারতের সর্বোচ্চ পেশাদার ফুটবল লিগ। এক্ষেত্রে এই লিগের প্রতি সিজনে মোট ১১ টি টিম অংশ নেয়। সাধারণত নভেম্বর থেকে মার্চের মধ্যেই অনুষ্ঠিত খেলা। লিগ পর্যায়ে প্রতিটি টিম একে অন্যের বিরুদ্ধে রাউন্ড-রবিন স্টাইলে মোট ২০ টি করে ম্যাচ খেলে। এবারের সিজনে মুম্বই সিটি ( Mumbai City FC), নর্থইস্ট ইউনাইটেড (NorthEast United), এটিকে মোহনবাগান (ATK Mohun Bagan) পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রয়েছে।

Published by: Dolon Chattopadhyay
First published: December 15, 2020, 2:09 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर