corona virus btn
corona virus btn
Loading

টিকিট নিয়ে ক্লাব-কোয়েস মতবিরোধ, ৭৫০০-এর বদলে ইস্টবেঙ্গল পেল মাত্র ১৫০০

টিকিট নিয়ে ক্লাব-কোয়েস মতবিরোধ, ৭৫০০-এর বদলে ইস্টবেঙ্গল পেল মাত্র ১৫০০
  • Share this:

Paradip Ghosh

#কলকাতা: মঙ্গলে উষা। বুধে পা। বুধেই কল্যাণীতে আই লিগ অভিযান শুরু লাল-হলুদের। কিন্তু ভাল হচ্ছে কোথায় ! আই লিগে অভিষেক ম্যাচে নামার আগে ফের প্রকাশ্যে ক্লাব বনাম কোয়েসের লড়াই। ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের সদস্য সংখ্যা প্রায় সাড়ে সাত হাজার। অথচ সদস্য টিকিট বাবদ কোয়েসের পক্ষ থেকে ক্লাবকে দেওয়া হয়েছে ১৫০০ টিকিট। আর তাতেই বেঁধেছে গণ্ডগোল। মাত্র ১৫০০ টিকিট নিতে রাজি নয় ক্লাব। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত টিকিট ইস্যুতে ‘টাগ অফ ওয়ার’ জারি লাল-হলুদে। কল্যাণী স্টেডিয়ামের আসন সংখ্যা ১৮ হাজার।কোয়েস কর্তারা স্টেডিয়ামের কিছু অংশে বাকেট চেয়ার বসানোয় সেই সংখ্যা কমে দাঁড়িয়েছে ১২ হাজারে। ফলে টিকিট নিয়ে চোরাগোপ্তা অসন্তোষ থেকেই যাচ্ছে লাল-হলুদ শিবিরে।

কলকাতা লিগ ও ডুরান্ডে সাফল্যের ধারপাশ মাড়ায়নি আলেজান্দ্রোর দল। বুধবার আই লিগ শুরুর ম্যাচে প্রতিপক্ষ হিসেবে রিয়াল কাশ্মীর নেহাত হালকা নয়। ধারে-ভারে টিম আলেজান্দ্রোর সঙ্গে টক্কর দেওয়ার মতোই দল ডেভিড রবার্টসনের। কল্যাণীর অচেনা মাঠে বড় চেহারার কাশ্মীরীদের বিরুদ্ধে কতটা সুবিধে আদায় করে নিতে পারবে কাশিমরা ? লড়াইটা সেখানেই। ক্লাব মাঠে কোচের অরুচি।

বাজেট বাঁচাতে যুবভারতী ছেড়ে তাই কল্যাণীতে পাড়ি জমিয়েছে কোয়েস ম্যানেজমেন্ট। ম্যাচের দিন ৬০-৭০ কিলোমিটার পথ পেরিয়ে ম্যাচ খেলার ঝক্কি। প্রতিপক্ষ কাশ্মীরের পাশাপাশি এটাই ভাবাচ্ছে হাই-প্রোফাইল স্প্যানিশ কোচকে। সমস্যা যে একটা হবে সেটা স্বীকার করে নিচ্ছেন কোচ আলেজান্দ্রো। তবে পুরোদস্তুর পেশাদারের মতোই এত কিছুর পরেও ভরসা রাখছেন ফুটবলারদের পারফরম্যান্সে। বাইশের বড় ম্যাচের আগে বোরহাকে পাওয়ার সম্ভাবনা কম। ক্রিজো, বাজি আর্মান্দদের মাত করতে আলেজান্দ্রোর বাজি কোলাডো-জুয়ান মেরা জুটি। আই লিগে আতসকাঁচের নিচে স্প্যানিশ মার্কোস।

মরশুমের শুরু থেকেই এবার আই লিগকে পাখির চোখ করেছিলেন কোচ আলেজান্দ্রো। প্রস্তুতিকে ঢাল করে পরীক্ষা-নিরীক্ষা জারি রেখেছিলেন লিগ-ডুরান্ডে। কোচের আপত্তিতেই ওপার বাংলাতেও খেলেনি ক্লাব। উনিশের আই লিগ তাই আলেজান্দ্রোর কাছে রীতিমতো অগ্নিপরীক্ষা। আর সেই পরীক্ষার শুরু বুধবার কল্যাণীতে রবার্টসনের কাশ্মীরের বিরুদ্ধে।​

Published by: Siddhartha Sarkar
First published: December 3, 2019, 5:08 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर