'এটিকে হঠাও' পোস্টার, মোহনবাগান ক্লাব ও সিইএসসি দফতরে বিক্ষোভ বাগান সমর্থকদের

'এটিকে হঠাও' পোস্টার, মোহনবাগান ক্লাব ও সিইএসসি দফতরে বিক্ষোভ বাগান সমর্থকদের
মোহনবাগান সমর্থকদের বিক্ষোভ।নিজস্ব চিত্র।

সবুজ মেরুন সদস্য সমর্থকদের ক্ষোভ যে প্রশমিত হয় নি, তা বোঝা গেল রবিবার।

  • Share this:

কলকাতা : ১২ ম্যাচে ২৪ পয়েন্ট নিয়ে আইএসএলের খেতাব দৌড়ে প্রবল ভাবে রয়েছে এটিকে-মোহনবাগান। সমর্থকদের দাবি মেনে চেন্নাইয়িন এফসি-র বিরুদ্ধে শেষ ম‍্যাচে বিতর্কিত থার্ড কিট বা কালো জার্সি পড়ে মাঠে নামেননি রয় কৃষ্ণ, ডেভিড উইলিয়ামসরা। বরং লক্ষ লক্ষ মোহনবাগান সদস্য সমর্থকদের আবেগের কথা মাথায় রেখে চিরাচরিত সবুজ-মেরুন জার্সি পড়েই চেন্নাইয়িন ম্যাচ খেলেছেন হাবাসের দলের ফুটবলাররা। কিন্তু তাতেও সবুজ মেরুন সদস্য সমর্থকদের ক্ষোভ যে প্রশমিত হয় নি, তা বোঝা গেল রবিবার।

পূর্ব নির্ধারিত সূচি অনুযায়ী রবিবার দুপুর থেকেই মোহনবাগান ক্লাবের সামনে জড়ো হতে থাকেন সাবেকি মোহনবাগান ক্লাবের সদস্য সমর্থকরা। সময় গড়াতেই ক্লাবের সামনে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন জড়ো হওয়া সর্মথকরা।  ক্লাবের ভেতরে গিয়ে শুরু হয় এটিকে বিরোধী পোস্টারিং। আলাদা করে কোন ফ্যান ক্লাবের ব্যানার বা ফ্লেক্স না থাকলেও বিক্ষোভকারীদের অধিকাংশের পরনে ছিল সবুজ-মেরুন জার্সি। হাতে ছিল সবুজ মেরুন পতাকা। প্রায় তিন শতাধিক সদস্য সমর্থক ক্লাব লনে বেশ কিছুক্ষণ বিক্ষোভ দেখানোর পর মিছিল করে যান ধর্মতলায় সিইএসসি দফতর ভিক্টোরিয়া হাউজের সামনে। ভিক্টোরিয়া হাউজের সামনে শুরু হয় বিক্ষোভ অবস্থান। চলতে থাকে এটিকে বিরোধী স্লোগান। ভিক্টোরিয়া হাউসের বাইরে 'রিমুভ এটিকে' পোস্টারও মারেন বিক্ষোভকারীরা। বিক্ষোভ প্রদর্শনকারী সমর্থকদের দাবি ছিল, এটিকে-মোহনবাগান থেকে এটিকের নাম সরিয়ে ফেলতে হবে।

প্রশ্ন হল, এটিকে-মোহনবাগানের সংযুক্তিকরণের পর বছর ঘুরতে চলেছে। হঠাৎ করে এতো দিন পর রাস্তায় নেমে সবুজ-মেরুন সমর্থকদের বিক্ষোভ প্রদর্শনের কারণ কী? সাবেকি ক্লাব কর্তারা এই প্রশ্নের কোনও সদুত্তর দিতে পারেননি। মোহনবাগান সচিব সৃঞ্জয় বোস ও অর্থ-সচিব দেবাশিস দত্ত বিষয়টিকে ক্লাবের আভ্যন্তরীণ ইস‍্যু বলে এড়িয়ে গিয়েছেন। প্রকাশ্যে কোনও মন্তব্য করতে চান না বলেও জানিয়ে দেন সৃঞ্জয় বোস ও অর্থ-সচিব দেবাশিস দত্ত। এটিকে কর্তা উৎসব পারেখ বিষয়টি খোঁজ নিয়ে দেখবেন ও বোর্ড মিটিংয়ে আলোচনা করবেন বলে জানান।


PARADIP GHOSH

Published by:Arka Deb
First published: