মনবীর-কৃষ্ণ জুটিতে ওড়িশাকে উড়িয়ে দিল এটিকে মোহনবাগান

মনবীর-কৃষ্ণ জুটিতে ওড়িশাকে উড়িয়ে দিল এটিকে মোহনবাগান
মনবীর কৃষ্ণ ম্যাজিকে ওড়িশাকে বড় ব্যবধানে হারাল এটিকে মোহনবাগান photo/isl

এদিন ওড়িশার বিরুদ্ধে এটিকে মোহনবাগানের ম্যাচ সেরা যদি হন মনবীর সিং, সেরা পার্শ্ব চরিত্রে অবশ্যই বলতে হবে রয় কৃষ্ণর কথা। মূলত এই দুজনের সৌজন্য চলতি আইএসএলে নিজেদের সবচেয়ে বড় জয় তুলে নিল সবুজ মেরুন শিবির।

  • Share this:
    এটিকে মোহনবাগান -৪(মনবীর ২, কৃষ্ণ ২)

    ওড়িশা এফসি - ১( আলেকজান্ডার)

    #গোয়া: সিনেমার পুরস্কার মঞ্চে সেরা অভিনেতা এবং সেরা পার্শ্ব চরিত্র পুরস্কার প্রদান করা হয়। ফুটবল ম্যাচের ক্ষেত্রে বরাদ্দ থাকে স্রেফ ম্যাচ সেরার পুরস্কার। এদিন ওড়িশার বিরুদ্ধে এটিকে মোহনবাগানের ম্যাচ সেরা যদি হন মনবীর সিং, সেরা পার্শ্ব চরিত্রে অবশ্যই বলতে হবে রয় কৃষ্ণর কথা। মূলত এই দুজনের সৌজন্য চলতি আইএসএলে নিজেদের সবচেয়ে বড় জয় তুলে নিল সবুজ মেরুন শিবির। স্কোরবোর্ড বলছে এটিকে মোহনবাগান জিতেছে ৪-১ ব্যবধানে।অ্যান্টোনিও লোপেজ হাবাসের দলের ক্ষেত্রে এই স্কোরলাইন কিছুটা অস্বাভাবিক। আগের দিন কেরলের বিরুদ্ধে রুদ্ধশ্বাস ম্যাচে দুই গোল হজম করে শেষ পর্যন্ত তিন গোল করে জিতেছিল এটিকে মোহনবাগান।

    শনিবার ওড়িশার বিরুদ্ধে দাপটে শুরু করেছিল মোহনবাগান। প্রথম থেকেই মার্সেলিনো এবং গোয়া থেকে আসা লেনি রদ্রিগেজকে নামিয়ে দিয়েছিলেন হাবাস। প্রেসিং ফুটবল খেলছিল সবুজ মেরুন ব্রিগেড। এগারো মিনিটের মাথায় দুর্দান্ত গোল করে সবুজ মেরুনকে এগিয়ে দিলেন মনবীর সিং। রয় কৃষ্ণর বাড়ানো বল ধরে বক্সের বাইরে থেকে ইনসাইড করে নিয়ে বাঁপায়ের অনবদ্য বাঁক খাওয়ানো শটে গোল পেলেন মনবীর। চলতি টুর্নামেন্টে ভারতীয়দের মধ্যে এটাই সেরা গোল। এরপর কৃষ্ণর সঙ্গে পাস খেলে মার্সেলিনোর ডান পায়ের শট বাঁচিয়ে দেন ওড়িশা গোলরক্ষক। বিরতির এক মিনিট আগে ম্যাচে সমতা ফেরায় ওড়িশা। দুর্দান্ত শটে গোল করেন আলেকজান্ডার। অরিন্দম শরীর ছুঁড়ে বল আটকাতে পারেননি।

    দ্বিতীয়ার্ধে লিগ তালিকায় নীচে থাকা ওড়িশাকে দাঁড়াতে দেয়নি সবুজ-মেরুন শিবির। দশ মিনিটের মধ্যে কৃষ্ণর পাস থেকে বক্সের ডানদিক থেকে নেওয়া জোরালো শটে আর্শদীপকে পরাস্ত করেন মনবীর। প্রথম গোলটা শিল্প, দ্বিতীয়টা শক্তি। মার্সেলিনোকে তুলে নিয়ে উইলিয়ামসকে নামান কোচ। জাভির জায়গায় নামানো হয় জয়েসকে। ৮৩ মিনিটে পেনাল্টি পায় এটিকে মোহনবাগান। প্রণয় হালদারের শট বক্সে হাতে লাগান আলেকজান্ডার। গোল করতে ভুল করেননি কৃষ্ণ। তিন মিনিট পর গৌরব বোরাকে পরাস্ত করে বক্সে ঢুকে নিজের দ্বিতীয় গোল করেন কৃষ্ণ।

    আগের দিন জোড়া গোল করার পর এদিনও জোড়া গোল পেলেন। দশ গোলে পৌঁছে গেলেন ফিজির স্ট্রাইকার। তবে হলুদ কার্ড দেখে পরের ম্যাচে নেই প্রণয় এবং প্রীতম। এদিনই প্রথম নামলেনলেনি। স্প্যানিশ  কোচ নব্বই মিনিট মাঠে রাখলেন এই গোয়ান ফুটবলারকে। মিডফিল্ডারটি আসার পর সবুজ মেরুন মাঝমাঠে শক্তি বেড়েছে সন্দেহ নেই। এই জয়ের ফলে তিরিশ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় স্থানে রইল এটিকে মোহনবাগান। মুম্বই সিটির সঙ্গে পয়েন্ট পার্থক্য রইল সেই তিন।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published:

    লেটেস্ট খবর