অবাক কান্ড ! মেসির বার্সেলোনায় জনপ্রিয়তা বাড়ছে ক্রিকেটের

এই মহিলাদের হাত ধরেই ক্রিকেট জনপ্রিয় হচ্ছে বার্সেলোনায়

২০ বছরের পাকিস্তানি মহিলা হিফসা বাট জানিয়েছেন, বছর দুয়েক আগে ক্রিকেট খেলা শুরু হয় সেখানে। এক জিম প্রশিক্ষক খেলার ব্যাপারে বলেন। বার্সেলোনায় থাকা ভারতীয় এবং পাকিস্তানি মহিলারা তখন ক্রিকেটের নিয়ম কিছুই জানতেন না

  • Share this:

    #বার্সেলোনা: পৃথিবীর অন্যতম সেরা ফুটবল শহর। বর্তমান যুগের সেরা ফুটবলার এই শহরের ক্লাবে খেলেন। স্পেনের বিতর্কিত প্রদেশ ক্যাটালোনিয়ার রাজধানী। অলিম্পিকস অবশ্য অতীতে হয়েছে এই শহরে। তাই বলে ক্রিকেট ! তাও আবার বার্সেলোনায় ? এটাও সম্ভব ? শুনলে চোখ কপালে উঠবে, কিন্তু এটাই বাস্তব। যে শহরের সঙ্গে ক্রিকেটের দূর দূর পর্যন্ত কোনও সম্পর্ক নেই, সেই শহরেই বসতে চলেছে ক্রিকেটের আসর।

    ফুটবলপাগল শহর হিসেবে পরিচিত বার্সেলোনা। ক্রিকেটের বিন্দুমাত্র পরিচিতি নেই সেখানে। প্রিয় ফুটবল ক্লাব এবং লিওনেল মেসিকে নিয়ে আচ্ছন্ন গোটা শহর। সেই বার্সেলোনাতেই এবার গড়ে উঠতে চলেছে আস্ত ক্রিকেট স্টেডিয়াম, যার নেপথ্যে ভারত এবং পাকিস্তানের মহিলারা। সম্প্রতি ভোটের মাধ্যম নতুন খেলার পরিকাঠামো গড়ে তোলার জন্য বাসিন্দাদের ভোট দিতে বলেছিল বার্সেলোনা প্রশাসন।

    সাইক্লিং, ক্রিকেট-সহ ৮২২টি বিষয় ছিল তার মধ্যে। সবথেকে বেশি ভোট পড়েছে ক্রিকেটেই। এর পিছনে মহিলাদের অবদান অনস্বীকার্য বলে মন্তব্য করেছেন এক কর্তা। ২০ বছরের পাকিস্তানি মহিলা হিফসা বাট জানিয়েছেন, বছর দুয়েক আগে ক্রিকেট খেলা শুরু হয় সেখানে। এক জিম প্রশিক্ষক খেলার ব্যাপারে বলেন। বার্সেলোনায় থাকা ভারতীয় এবং পাকিস্তানি মহিলারা তখন ক্রিকেটের নিয়ম কিছুই জানতেন না।

    লাতিন আমেরিকার এক রাগবি খেলোয়াড় এসে তখন ক্রিকেট শেখাতে শুরু করেন। তবে তিনিও কোনওদিন ক্রিকেট খেলেননি। ক্রিকেটের সঙ্গে ওই মহিলাদের পরিচয় হয় হিফসার বাবার মাধ্যমে। মনজুর একটি বেসবল মাঠে ক্রিকেট খেলা শুরু হয়। বাট বলেছেন, “আমরা ঠিকঠাক ক্রিকেট খেলতে চাই, যেখানে ১১ জন খেলোয়াড় থাকবে এবং টেনিস বলের বদলে আসল ক্রিকেট বল ব্যবহার করা হবে। তাই আমাদের একটা ক্রিকেট পিচ দরকার।”

    তবে স্টেডিয়াম তৈরির জন্য এত বড় সমতল জায়গা বার্সেলোনায় খুঁজে পাওয়া মুশকিল। ঠিক হয়েছে মনজুর পাহাড়ের উপরে একটি কৃত্রিম পিচ বানানো হবে। তবে শুধুমাত্র ভারত এবং পাকিস্তানের মহিলারা এই ক্রিকেট খেললে স্পেনে খেলাটা কিন্তু সেভাবে জনপ্রিয় হবে না। মহিলারা চেষ্টা করছেন স্প্যানিশদের ক্রিকেটের সঙ্গে যুক্ত করতে।

    তবে দিনের শেষে স্প্যানিশরা খেলাটা নিয়ে হয়তো আগ্রহী হলেও হতে পারেন। কিন্তু সে সম্ভাবনা যে খুবই কম নিশ্চিতভাবেই বলা যায়। স্প্যানিশ এবং ইউরোপিয়ানরা ক্রিকেটের মত সময় নষ্ট করা খেলায় খুব একটা বিশ্বাসী নন। তাঁদের DNA - তে ক্রিকেট খেলা ঢোকাতে অনেক সময় লাগবে।

    Published by:Rohan Chowdhury
    First published: