ঘরের মাঠে পঞ্জাব-কে রুখে নয়ে উঠল ইস্টবেঙ্গল

ঘরের মাঠে পঞ্জাব-কে রুখে নয়ে উঠল ইস্টবেঙ্গল

ঘরের মাঠে পঞ্জাব এফসি-কে রুখে দিয়ে মূল্যবান এক পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে নয় নম্বরে উঠে এলো ইস্টবেঙ্গল।

  • Share this:

#কলকাতা : হার এড়ানো গেল। তবু জয় অধরাই থাকল। ঘরের মাঠে পঞ্জাব এফসি-কে রুখে দিয়ে মূল্যবান এক পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে নয় নম্বরে উঠে এলো ইস্টবেঙ্গল। খেতাব দৌড়ে দ্বিতীয় স্থানে থাকা পঞ্জাবকে সামলে দেওয়া গেছে। এই ইস্টবেঙ্গলে এটাই ঢেড়। হাড় কঙ্কাল বেরিয়ে যাওয়া দলটায় এখন এক পয়েন্টই অনেক। বৃহস্পতিবার ম্যাচের আগেই প্রেস রিলিজ এল। ঘাড়ের ওপর বোঝার মতো চেপে থাকা ক্রেসপি মার্তিকে রিলিজ ধরানো গেছে। যেন হাফ ছেড়ে বাঁচা গেল। সময় জ্ঞান নিতান্তই কম। এটাই বড় মাইনাস পয়েন্ট কোয়েস কর্তাদের। সঠিক সময়ে সঠিক কাজটা করতেই জানেন না সঞ্জিত সেনের দলবল। মরশুমভর তার-ই মাশুল দিতে হল লাল হলুদ জনতাকে। না হলে ম্যাচের দিন সকালে ফুটবলার ছেড়ে দেওয়ার প্রেস রিলিজ পাঠায় কেউ! আরে! অন্য ফুটবলারদের উপর তো এর একটা প্রভাব পড়ে! বিকেলে কল্যাণী স্টেডিয়ামে ছন্নছাড়া কোলাডো, মার্কোসরা।

কোচ মারিও এদিন আবার প্রথম এগারোয় রাখেননি জুয়ান মেরা-কে। কী যে তার  গেম  স্ট্র্যাটেজি আর কী  যে তার  ম্যাচ  রিডিং বোঝা ভার! কোচিং লাইসেন্স টা থাকলেই সব হয় না। একবার দোভাষী কাম ভিডিও অ্যানালিস্ট হিসেবে যার পরিচিতি ঘটে গেছে, ১০০ বছরের পুরনো ক্লাবের হট সিটে তাকে বেমানান লাগে। এ যেন অনেকটা শাহরুখের বাজিগরের জনি লিভার দাবাং থ্রিতে সলমনের চরিত্রে অভিনয় করার মত! মানা যায়? ৯ মিনিটে ক্রোমার গোল ছাড়া ম্যাচের কথা যত কম বলা যায় মঙ্গল। ভাগ্যিস, পঞ্জাব কোচ ইয়ান ল ডিপান্ডা ডিকা, কেভিন লোবোদের রিজার্ভে রেখেছিলেন। ৪০ মিনিটে গিরিক খোসলার গোলে সমতায় ফেরে পঞ্জাব এফসি। শেষ কুড়ি মিনিট তো চোখে দেখা যায় না। তখন বাজাজের  পঞ্জাব যেন উড়তা পঞ্জাব! শেষপর্যন্ত যে ১ পয়েন্ট এসেছে সেটাই অনেক। ব্রেন্ডন, মেহতাব সিং, আশির আখতারদের মত তুলনায় অদামি, আনকোরারা অবশ্য লড়াই করলেন। ১১ ম‍্যাচে ১২ পয়েন্ট। গোল পার্থক্যে নেরোকা কে পিছনে ফেলে পয়েন্ট টেবিলে নয় নম্বরে উঠে এল ইস্টবেঙ্গল। দিনের শেষে এটাই যা!

PARADIP GHOSH
First published: February 13, 2020, 11:10 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर