Home /News /sports /
আরব সাগরের তীরে জয়, ছয়ে উঠল ইস্টবেঙ্গল

আরব সাগরের তীরে জয়, ছয়ে উঠল ইস্টবেঙ্গল

আরব সাগরের তীরে সন্ধেটা খারাপ গেল না লাল-হলুদ কোচ মারিও রিভেরার। কোচ হিসেবে ভারতে এসে তৃতীয় ম্যাচে প্রথম জয়ের স্বাদ পেলেন আলেজান্দ্রোর একসময়ের সহকারি

  • Share this:

#মুম্বই: তাঁর সিনেমা ফ্লপ করলেও নাকি প্রযোজক জাহাজ কিনতেন...! অমিতাভ বচ্চন সম্পর্কে একটা সময়ে এটাই ছিল বলিউডের ধরাবাঁধা প্রতিক্রিয়া। শতাব্দী পেরিয়ে ভারতীয় ফুটবলের ছবিটাও অনেকটা একইরকম। টিআরপি দরকার? মাইলেজ দরকার? প্রমোশন কিংবা অর্থের প্রয়োজন ? ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানকে লড়িয়ে দাও। এফএসডিএল east bengalব্যতিক্রম নয়। এই দুটো ক্লাবকে এই কারণেই প্রথম দিন থেকে আইএসএল-এ চাইছিলেন উদ্যোক্তারা।

সপ্তাহ শুরুর কর্মব্যস্ত দিনে সন্ধে সাতটায় ম্যাচ। তাতেও মুম্বইয়ের কুপারেজ স্টেডিয়ামে উপচে পড়া ভিড়। ম‍্যাচের সময় যত গড়িয়েছে, দর্শক সংখ্যা লাফিয়ে লাফিয়ে বেড়েছে বদলে যাওয়া কুপারেজ স্টেডিয়ামে। আরব সাগরের তীরে সন্ধেটা  খারাপ গেল না লাল-হলুদ কোচ মারিও রিভেরার। কোচ হিসেবে ভারতে এসে তৃতীয় ম্যাচে প্রথম জয়ের স্বাদ পেলেন আলেজান্দ্রোর একসময়ের সহকারি। অ্যারোজ-কে ৩-১ গোলে হারিয়ে ১২ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে ছয় নম্বরে উঠে এল ইস্টবেঙ্গল। চ্যাম্পিয়নশিপে গ্রহণ আগেই লেগেছে। সম্মানজনক ভাবে লিগ শেষ করতে পারলেই এই মরশুমে অনেক। অ্যারোজ-কে তিন গোল দেওয়ার দিনেও এই দলটাকে নিয়ে এর থেকে বেশি আশার বাণী শোনানো যাচ্ছে না। নেহাতই অনভিজ্ঞ, বাচ্চাদের নিয়ে তৈরি অ্যারোজ। ভেঙ্কটেশ, মহেশ গাওলির দলে বিক্রমপ্রতাপ, গিবসনদের মত ছড়ানো-ছেটানো প্রতিভা আছে বটে। কিন্তু সেই অ্যারোজের বিরুদ্ধেও কাশিম, মার্কোস, ডিকাদের খেলায় না ছিল ছন্দ, না ছিল কোন বাঁধুনি! তেজ, ঝাঁজ এই শব্দগুলোই যেন উবে গিয়েছে লাল হলুদ থেকে। কোলাডো অবশ্য মন্দের ভাল। অন্যদিনের তুলনায় সচল ছিলেন স্প্যানিয়ার্ড। ৪ মিনিটে বক্সের মাথা থেকে জোড়ালো শটে গোলও করলেন। কিন্তু এই কোলাডো গতবারের ছায়ার বেশি কিছু না।

জুয়ান মেরা প্রথম একাদশে না থেকে কোন অঙ্কে পরিবর্ত হিসেবে মাঠে আসেন ? সেটা বুঝতে মারিওর মত ফুটবল বুদ্ধি দরকার। শতবর্ষে দাঁড়িয়ে থাকা ক্লাবের এই দুর্দশার দায় সবার। কোচ-কর্তা-কোয়েস সবার। অবশ্য যে  দলে আলেজান্দ্রোর খুলে রাখা বুট জোড়ায় পা গলানোর জন্য মারিও-কে ধরে আনা হয়, সেখানে সবই সম্ভব! ৫৪ মিনিটে ভিপি সিং অ্যারোজ-কে ম্যাচে ফেরানোর পর ইস্টবেঙ্গলের হয়ে গোল আশির আখতার ও লালরিনডিকার। ইস্টবেঙ্গলের পরের ম্যাচ ইম্ফলে, ২৩ ফেব্রুয়ারি, ট্রাউ এফসির বিরুদ্ধে।

PARADIP GHOSH

Published by:Rukmini Mazumder
First published:

Tags: East Bengal

পরবর্তী খবর