corona virus btn
corona virus btn
Loading

লকডাউনে অসহায় শহরের দুঃস্থ খুদে ফুটবলারদের পাশে 'ইস্টবেঙ্গল দ্য হার্ট অব শিলিগুড়ি'

লকডাউনে অসহায় শহরের দুঃস্থ খুদে ফুটবলারদের পাশে 'ইস্টবেঙ্গল দ্য হার্ট অব শিলিগুড়ি'

শহরের দশটি ফুটবল কোচিং ক্যাম্পের ফুটবলারদের পাশে 'ইস্টবেঙ্গল দ্য হার্ট অব শিলিগুড়ি'র সদস্যরা ।

  • Share this:

#শিলিগুড়ি: দুঃস্থ ফুটবলারদের পাশে দাঁড়াল লাল-হলুদ শিবির । কলকাতার পর এবার শিলিগুড়িতে । শহরের দশটি ফুটবল কোচিং ক্যাম্পের ফুটবলারদের পাশে 'ইস্টবেঙ্গল দ্য হার্ট অব শিলিগুড়ি'র সদস্যরা ।

করোনা মোকাবিলায় দেশজুড়ে আড়াই মাসের বেশী সময় ধরে লকডাউন চলেছে । আর তার জেরে বিপাকে পড়েছে একাধিক ফুটবলারের পরিবার । বহু খেলোয়াড় রয়েছেন যাঁদের অনেকেরই পরিবার দারিদ্র সীমার নীচে বসবাসকারী । লকডাউনের জেরে সমস্যায় পড়েছে পরিবারগুলি । কোচিং ক্যাম্প বন্ধ । ফলে বাড়িতেই সময় কাটছে তাঁদের । সেইসব অসহায় খুদে ফুটবলারদের পরিবারের পাশে লাল-হলুদ বাহিনী ।

রবিবার প্রত্যেক খুদে ফুটবলারের হাতে তুলে দেওয়া হয় ক্লাবের লোগো সহ মাস্ক ! আজ কাঞ্চনজঙ্ঘা স্টেডিয়ামের স্যুইমিং পুলের সামনে চলে খাদ্য সামগ্রী বিলি । রীতিমতো পারস্পরিক দূরত্ব মেনেই লাইনে দাঁড় করানো হয় ফুটবলারদের । তারপর এক এক করে এগিয়ে আসে ওরা । হাতে তুলে দেওয়া হয় শুকনো খাবারের প্যাকেট । কি কি ছিল এই প্যাকেটে ? সংগঠনের সদস্যরা জানান , ৪ কেজি চাল , ৫০০ গ্রাম  মুসুর ডাল , তেল , সোয়াবিনের দুটো প্যাকেট , বিস্কুটের প্যাকেট এবং সাবান ।

এদিন ১০টি ফুটবল কোচিং ক্যাম্পের ১৫০ জন ফুটবলারের হাতে তুলে দেওয়া হয় এই সামগ্রী । উপস্থিত ছিলেন রাজ্যের পর্যটনমন্ত্রী গৌতম দেব , বঙ্গরত্ন টেবল টেনিস প্রশিক্ষক ভারতী ঘোষ , ইস্টবেঙ্গলের প্রাক্তন ফুটবলার মনজিৎ সিং, বর্তমান ফুটবলার মনোজ মহম্মদ , শিলিগুড়ি থানার আই সি সুদীপ চক্রবর্তী । প্রত্যেকেই এক এক করে ফুটবলারদের হাতে তুলে দেন খাদ্যসামগ্রী । এদিন ইস্টবেঙ্গল ক্লাবের পক্ষ থেকে লাল-হলুদ জার্সি , টুপি , মাস্ক এবং খাদ্য তুলে দেওয়া হয় পর্যটনমন্ত্রীর হাতে ।

ইস্টবেঙ্গল দ্য হার্ট অব শিলিগুড়ির এহেন উদ্যোগের প্রশংসা করেন মন্ত্রী । শুধু ফুটবলের মধ্যেই নিজেদের সীমাবদ্ধ না রেখে আজ মানবিক হয়ে ওঠে লাল-হলুদ ফ্যান ক্লাবের সদস্যরা । এমন উদ্যোগকে অভিনন্দন জানিয়েছেন শহরের বিভিন্ন ক্লাবের কর্তারাও । এর আগে মোহনবাগান ক্লাবের পক্ষ থেকেও শিলিগুড়িতে খাদ্য সামগ্রী তুলে দেওয়া হয় ।

Partha Sarkar

Published by: Shubhagata Dey
First published: June 7, 2020, 6:11 PM IST
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर