দিল্লিতে ট্রেন মিস, ৬ ঘণ্টা বাস জার্নি করে লুধিয়ানার পথে কোলাডোরা

দিল্লিতে ট্রেন মিস, ৬ ঘণ্টা বাস জার্নি করে লুধিয়ানার পথে কোলাডোরা
Photo Courtesy: Quess East Bengal
  • Share this:

Paradip Ghosh

 

#কলকাতা: কথায় বলে নেই মামার থেকে কানা মামা ভাল। কিন্তু কোয়েসকে দেখে এখন সেটাও নাহলেই ভাল মনে হচ্ছে। ইস্টবেঙ্গলের বিনিয়োগকারীরা প্রথম বর্ষে লেটার মার্কস পেলে দ্বিতীয় বছরে ডাহা ফেল। পেশাদারিত্ব গায়েব। প্লেয়ার্স স্বচ্ছন্দ উধাও। সমর্থকপ্রীতি জানলা দিয়ে ফুড়ু‍ৎ। সামান্য খরচ বাঁচাতে গিয়ে বিনিয়োগকারীরা বিপদে ফেলছেন ফুটবলার-সমর্থকদের।শনিবার দুপুর ২টোয় লুধিয়ানায় ইস্টবেঙ্গল-পঞ্জাব ম্যাচ। কলকাতা থেকে লুধিয়ানা উড়ানের টিকিট কেটে দিলেই ঝামেলার প্রশ্ন ছিল না। দিল্লি পর্যন্ত বিমানের টিকিট করে বাকি রাস্তা ট্রেনে করে লুধিয়ানা পৌঁছানোর ‘বিরল’ পরিকল্পনা করেছিলেন কোয়েসের মহান ম্যানেজমেন্ট। দিল্লি পর্যন্ত তো তাও ছিল। তারপর হল বিপত্তি। মধ্যাহ্নভোজ সারতে পথে হল দেরি। অগত্যা ট্রেন মিস। দিল্লি স্টেশন থেকে ফোনাফুনি, খোঁজাখুঁজি শুরু। শেষে বাস একটা মিলল বটে। কিন্তু সেই বাসে লুধিয়ানা পৌঁছতে পৌঁছতে মধ্যরাত। ভাবুন অবস্থা। রাতভোর জার্নি করে শনিবার দুপুরেই অচেনা পরিবেশে আনকোরা প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে নামবেন ফুটবলাররা। বিনিয়োগকারী থেকে যদি এই অবস্থা হয়, তাহলে তো বলতে হবে পড়শি ক্লাব ভাগ্যবান।

শনিবার দুপুরে ম্যাচ। অনুশীলন কিংবা বিশ্রাম। কোনওটারই বালাই নেই। শুক্রবারটা রাস্তায়-রাস্তায় কাটিয়ে দিলেন কোলাডো, খুয়ান মেরা, পিন্টু মাহাতরা। রক্ষা একটাই, বাজাজ সাহেবের এই পঞ্জাব দলটাও ধুঁকছে। চার্চিলের বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচেই তিন গোল খেয়ে বসে আছে। প্রি-ম্যাচ সাংবাদিক সম্মেলন করতে কাশিমকে নিয়ে কোচ আলেজান্দ্রো দুপুরেই পৌঁছে যান লুধিয়ানা। কিন্তু বিকেলে বাকি দলের ট্রেন মিসের ঘটনা শুনেই রাগে গজগজ করতে শুরু করেন আলে স্যার।

স্প্যানিশ ডিফেন্ডার ক্রেসপি মার্তি তো দিল্লি স্টেশন থেকেই নিজের ইনস্টাগ্রাম অ্যাকাউন্টে ক্ষোভ উগরে দেন। মন্তব্য করেন, ‘‘লুধিয়ানার ট্রেন মিস করেছি। দিল্লি স্টেশনে অপেক্ষা করছি। শনিবার দুপুরে ম্যাচ। আমরা ফুটবলার, যন্ত্র নই।’’কিন্তু কেন এমনটা হবে ? কলকাতায় কোয়েস-ইস্টবেঙ্গলের সিইও সঞ্জিৎ সেনের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে, ঠাণ্ডা গলায় নির্লিপ্ত জবাব,‘‘শুনেছি কিছু একটা সমস্যা হয়েছে। পৌঁছে যাবে কোনওভাবে।’’

বাহ, চমৎকার সঞ্জিৎবাবু। আগামী বছর ক্লাবের ভারতগৌরব সম্মানের জন্য আপনার নাম বিবেচনা করার প্রস্তাব রইল লাল-হলুদের শীর্ষকর্তা দেবব্রত সরকারের কাছে। ইস্টবেঙ্গল বনাম পঞ্জাব ম্যাচের প্রিভিউতে দুই শিবিরের খবর ছাপিয়ে সমর্থকদের চর্চায়-আলোচনায় এখন শুধুই কোয়েসের মিসম্যানেজমেন্ট। লক্ষ লাল-হলুদ সমর্থকদের প্রার্থনা, সড়কপথে মাঝ রাস্তায় না আবার কোনও বিভ্রাট ঘটে। কোলাডোরা অন্তত ম্যাচের আগে সুস্থ শরীরে লুধিয়ানা পৌঁছক।​

First published: 07:19:17 PM Dec 06, 2019
পুরো খবর পড়ুন
अगली ख़बर